Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

হালদায় অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান

রাউজান (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯:০১ পিএম

প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদী থেকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রাউজান উপজেলার নোয়াজিশপুর ইউনিয়নের ইন্দ্রিরা ঘাট এলকায় হালদা নদীতে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে বালু উত্তোলন করছে মনসুর ও নবী। সংবাদ পেয়ে মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) মঙ্গলবার দুপুরে রাউজান উপেজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রেট জোনায়েদ কবির সোহাগ রাউজান থানা পুলিশের একটি দলকে সাথে নিয়ে ইন্দ্রিরা ঘাট এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় নির্বাহী অফিসারে সাথে ছিলেন রাউজান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ। অভিযানে পুলিশের সহায়তায় বালু উত্তোলনের কাজে ব্যবহৃত পাইপগুলো ধ্বংস করা হয়।
জোনায়েদ কবির সোহাগ বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার সরঞ্জাম ধ্বংস করা হয়েছে। হালদা নদী থেকে উত্তোলন করা বালুর স্তুপ স্থানীয় চেয়ারম্যানের জিম্মায় দেওয়া হয়েছে। হালদা নদী রক্ষায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন থেকে কোন বালুমহল ইজারা দেওয়া হয়নি। হালদা রক্ষায় বালুমহল ইজারা দেওয়া না হলেও রাউজান, হাটহাজারী, নগরীর মোহরা এলাকায় এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরা হালদা নদীতে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছে। হালদা নদীতে পাওয়ার পাম্প বসিয়ে ও ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করায় হালদা নদীর মা মাছের প্রজনন হুমকির মুখে পড়েছে। প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীতে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন কারীদের বিরুদ্ধে অভিযান অভ্যাহত থাকবে বলে জানান রাউজান উপজেলা নির্বাহী অফিসার জোনায়েদ কবির সোহাগ ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হালদা নদী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ