Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

সখিপুরে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিদিনই সংঘর্ষে লিপ্ত এলাকাবাসী

সখিপুর (টাঙ্গাইল) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯:৪৮ পিএম

প্রতিবছর সখিপুরে আন্তঃ স্কুল মাদরাসা ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে এলাকাভিত্তিক লোকজনের মধ্যে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করে। উত্তেজনা শেষ পর্যন্ত ঘাত-প্রতিঘাত,সংঘাতের মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। এ বছরও সখিপুরে চলতি আন্তঃ স্কুল মাদরাসা ফুটবল টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে প্রায়ই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে স্থানীয় এলাকাবাসী। বেশ কয়েকটি খেলায় কিছু সমর্থক অপরপক্ষের সমর্থকদের মধ্যে দেশীয় অস্ত্র হাতুড়ি, রড, চেইন ও লাঠিসোটা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ রকম সংঘর্ষে আহত হয়ে গত তিনদিনে কমপক্ষে ৫জন আহত হয়ে সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছে । এর মধ্যে বুধবারের সংঘর্ষে গুরুতর আহত হয়ে শাকিল আহমেদ (১৯) সখিপুর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

জানা যায়, বুধবার সকাল ১০টায় উপজেলার পাথার গ্রামের জনতা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গজারিয়া শান্তিকুঞ্জ ও কেজিকে উচ্চবিদ্যালয়ের খেলা চলছিল। খেলা চলাকালীন গজারিয়া এলাকার শাকিল আহমেদ কেজিকে উচ্চ বিদ্যালয়ের পক্ষ নিয়ে পাথারপুর এলাকার কায়সার (১৭), নিকছন, সিয়াম ও শাকিবের সঙ্গে তর্কে জড়ায়। খেলা শেষে ওই চারজনসহ আরো কয়েকজন মিলে শাকিলকে বেধড়ক পিটুনি দেয়। স্থানীয় শিক্ষক তাইবুর রহমান ও মিজানুর রহমান তাকে উদ্ধার করে রক্তাক্ত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। একইভাব গত সোমবার প্রতিমাবংকী ফাজিল মাদরাসা মাঠে উদয়ন ও বংকী পূর্বপাড়া পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলা চলাকালীন সময় সংঘর্ষ বাধে। এতে হাতুড়ি পেটায় উদয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের তিনজন আহত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছে। উপজেলার গোহাইলবাড়ি এলাকায়ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

শান্তিকুঞ্জ একাডেমিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মতিউর রহমান ভূইয়া বলেন, খেলাগুলো স্থানীয় পর্যায়ে হওয়ায় বেশি সংঘাতের খবর পাওয়া যাচ্ছে। আগের মত উপজেলা শহরের নির্দিষ্ট মাঠে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা সহকারে হলে এসব ঘটনা কম ঘটতো। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মফিজুল ইসলাম বলেন, খেলা নিয়ে কোনো সংঘর্ষের ঘটনা জানা নেই। দুই-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটলেও স্থানীয়ভাবে গঠিত কমিটি আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করেছেন। খেলার বাইরে কিছু ঘটলে সে দায়িত্ব কমিটির নয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টাঙ্গাইল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ