Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতিসংঘ নয় মানবাধিকার নিশ্চিত করেছে ইসলাম -এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:২১ এএম

সমগ্র পৃথিবীতে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় মানবতা ও কাজ করছে বলে জাতিসংঘ যে ধোয়া তুলছে তার প্রমাণ আমরা কোনভাবেই দেখতে পাচ্ছি না। এর কারণ হলো জাতিসংঘ মুসলমানদের জন্য কাজ করে না বরং এটা হচ্ছে খৃস্টান ক্লাব। গোটা পৃথিবীতে আজ মুসলমান অনেক দেশে নির্যাতনের শিকার, বিশেষ করে কাশ্মীরের লাখ লাখ মুসলমানকে গৃহবন্দী করে নির্যাতন করা হচ্ছে। তাদের ৩৭০ ধারা বাতিল করে যে অমানবিক বিচার বহির্ভূত নিপীড়ন করছে উগ্রবাদী মুশরেক সন্ত্রাসীরা, তাদের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের আজ কোন ভূমিকা আমরা লাখ করতে দেখিনি। এভাবে মিয়ানমার, ফিলিস্তিন, চিন, লিবিয়া সহ অনেক মুসলিম রাষ্ট্রে মুসলমানদের উপর নির্যাতনের কোন সুষ্ঠু বিচার কিংবা মুসলমানদের অধিকার রক্ষায় কার্যত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে জাতিসংঘকে দেখা যায়নি। অথচ আজ থেকে দেড় হাজার বছর আগে নূর নবী মোহাম্মদ (সা.) কুরআন, ইসলাম, মুসলমান›ই কেবল গোটা পৃথিবীতে সকল ধর্মাবলম্বীদের মানবাধিকার সুষম প্রতিষ্ঠা করেছেন।

তাহরিকে খাতমে নুবুয়্যাতের আমীর শায়খুল হাদীস মুফতি ড. এনায়েতুল্লাহ আব্বাসী পীরসাহেব জৌনপুরী গতকাল নাসিনগরের বুড়িশ্বর রাউফুর রাহীম যুব সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত শোহাদায়ে কারবালার স্বরণে এক ইসলামি মহাসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। পীর সাহেব আরও বলেন বাংলাদেশ যখন দিন দিন উন্নয়নের দিকে হাঁটছে তখন একদল কুচক্রী মহল যারা স্বাধীনতাকে বিপন্ন করতে চেয়েছিল তারাই আজ এদেশের তেল, গ্যাস, কয়লা নিয়ে সোনার বাংলাদেশকে সুক্ষভাবে চক্রান্ত করে যাচ্ছে। আমাদের সকল দলের মুসলমানকে এরুপ ইসলাম, মুসলমান ও সাধীনতা বিরোধী কাদিয়ানী সম্প্রদায় সহ সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে। সৈয়দ লিয়াকত আব্বাস টিপুর সভাপতিত্বে মহা-সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে আলোচনা পেশ করেন মুফতি মাওলানা শাহআলম মাছুমী, মুফতি মোযযাম্মিল হক মাছুমী, শায়ের আক্তারুজ্জামান শাহ মাছুমী প্রমুখ।

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাতিসংঘ


আরও
আরও পড়ুন