Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানকে পূর্ণ সমর্থন সউদী-আমিরাতের

দিল্লি সফর বাতিল করে ইসলামাবাদ যাচ্ছেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৬ এএম

কাশ্মীর সীমান্তে ২ হাজার সেনা মোতায়েন পাকিস্তানের : মেহবুবা মুফতির সাথে মেয়েকে দেখা করার অনুমতি
ইনকিলাব ডেস্ক
অধিকৃত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে নেয়া ভারতের একতরফা সিদ্ধান্ত ও সে কারণে উদ্ভ‚ত পরিস্থিতিতে সউদী আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতকে পাশে পেল পাকিস্তান। সমস্যা সমাধানে পাকিস্তানকে সম্পূর্ণ সমর্থন দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে দেশ দু’টি। পাশাপাশি, আগামীকাল শনিবার চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইয়ি পাকিস্তান সফরে আসছেন। পাকিস্তানের পরে তার ভারত সফরের কথা থাকলেও তা বাতিল হয়ে গেছে। এদিকে, কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির সাথে তার মেয়ে সানা ইলতিজা জাভেদকে দেখা করার অনুমতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

গতকাল বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনীর জনসংযোগ অধিদফতর (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে জানায়, সউদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আহমেদ আল যুবায়ের এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন যায়েদ আল নাহিয়ান কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে পাকিস্তানকে সম্পূর্ণ সমর্থন দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। রাওয়ালপিন্ডিতে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে বৈঠকের সময় তারা এ আশ্বাস দিয়েছেন বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

সেনাবাহিনীর মিডিয়া উইংয়ের বরাতে সংবাদমাধ্যম দ্য ডন জানিয়েছে, বৈঠকে ক্রমবর্ধমান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কসহ পারস্পরিক স্বার্থের বিষয় ও ওই অঞ্চলের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কাশ্মীরে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য উভয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী পাকিস্তানের প্রশংসা করেছেন। জেনারেল বাজওয়া বলেন, সউদী আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে বিশেষ কৌশলগত ও ভ্রাতৃত্বপ‚র্ণ সম্পর্ক নিয়ে পাকিস্তান গর্বিত। এর আগে বুধবার দুই মন্ত্রী পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কোরেশি এবং প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রী দফতরের দেয়া এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে মানবাধিকার পরিস্থিতির চরম অবনতি ও উপত্যকাটির সবশেষ পরিস্থিতির বিষয়ে ইমরান খান সউদী ও আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অবহিত করেছেন। বিশেষত গত এক মাস যাবৎ সেখানে কারফিউর কারণে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে বলে জানান তিনি। কাশ্মীরে ইন্টারনেট ও যোগাযোগ ব্যবস্থা পুনর্বহালসহ উপত্যকাটিতে বসবাসের স্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে ভারতের ওপর চাপ সৃষ্টির আহŸান জানান তিনি।

এদিকে, আগামী ৯-১০ সেপ্টেম্বরে নয়াদিল্লীতে ভারতের ন্যাশনাল সিকিউরিটি অ্যাডভাইজর অজিত দোভালের সাথে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্টেট কাউন্সিলর ওয়াং ই’র যে সীমান্ত আলোচনার কথা ছিল, সেই সফর বাতিল করা হয়েছে। বিষয়টি সম্পর্কে অবগত সূত্রের বরাতে এই তথ্য জানিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে।

সূত্র জানিয়েছে যে, ভারতীয় পক্ষের ‘সময় সঙ্কট’ থাকার কারণে তারা এ বৈঠকটির সময় পুনর্র্নিধারণ করতে চেয়েছে। ভারত ও চীনের মধ্যে সীমান্ত আলোচনার জন্য দুই দেশের পক্ষ থেকে দোভাল ও ওয়াংকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। পারস্পরিক বোঝাপড়ার ভিত্তিতে এই বৈঠকটি পরে পুনর্র্নিধারিত হতে পারে। ওয়াং ইয়ি আগামীকাল শনিবার পাকিস্তান-আফগানিস্তান-চীন ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের জন্য ইসলামাবাদে অবতরণ করবেন এবং রোববার তিনি নেপালের কাঠমান্ডু যাবেন।

অন্যদিকে, মায়ের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেলেন কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির মেয়ে সানা ইলতিজা জাভেদ। গতকাল বৃহস্পতিবার আদালতে এক পিটিশনের জবাবে সুপ্রিমকোর্ট তাকে তার মায়ের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দেন।

ওই পিটিশনে সানা ইলতিজা জানিয়েছিলেন, মা মেহবুবা মুফতির স্বাস্থ্য নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন তিনি। দীর্ঘ এক মাস মায়ের সঙ্গে দেখা করতে পারছেন না। এ জন্য উৎকণ্ঠায় দিন কাটছে তার। আদালতে কাছে মেহবুবা মুফতির মেয়ে বলেন, আমি শ্রীনগরে যেতে চাই এবং মায়ের সঙ্গে আলাদাভাবে দেখা করতে চাই। প্রশাসন থেকে সেই অনুমতিও পেয়েছেন বলে জানান তিনি। এর পরেই আদালত তাকে তার মায়ের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি দিয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট ভারত সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের পর থেকেই কাশ্মীরে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে মেহবুবা মুফতিসহ সকল শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিবিদের।

কাশ্মীর সীমান্তে বিপুল সেনা মোতায়েন পাকিস্তানের
পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর সীমান্তে কমান্ডোর পর এবার বিপুলসংখ্যক সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে পাকিস্তান। এমন তথ্য গোয়েন্দাস‚ত্রে পেয়ে সীমান্তে নজরদারি বাড়িয়েছে ভারত। সেনাবাহিনীর বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছাকাছি এক ব্রিগেডের সমান প্রায় ২ হাজার পাক সেনা মোতায়েন করেছে ইসলামাবাদ। দেশটির গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারত সরকার সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পর থেকে সীমান্তে উত্তেজনা বাড়ানোর চেষ্টা করছে পাকিস্তান।

আজাদ কাশ্মীরের একাধিক সেক্টর থেকে প্রায় প্রতিদিন অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গোলাবর্ষণ চালিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তানি সেনারা। তবে এ সবের পাল্টা জবাব দিচ্ছে ভারতও। গণমাধ্যমটির দাবি, সেনা মোতায়েনের পাশাপাশি ১০০ এসএসজি কমান্ডো মোতায়েন করেছে ইসলামাবাদ। চলছে জঙ্গি ঢোকানোর প্রচেষ্টাও।

আনন্দবাজার পত্রিকা দাবি করে, ইসলামাবাদ থেকে স¤প্রতি প্রায় ২০০০ সেনা জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে। নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে মাত্র ৩০ কিলোমিটার দ‚রে বাগ ও কোটি সেক্টরে তারা ঘাঁটি গেঁড়েছে। এক সেনা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বর্তমানে আক্রমণাত্মক মেজাজে তাদের মোতায়েন করা হয়নি। তবে ভারতীয় সেনার পক্ষ থেকে তীক্ষè নজর রাখা হয়েছে তাদের গতিবিধির ওপর। সূত্র : ডন, আনন্দবাজার পত্রিকা।



 

Show all comments
  • ash ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:২১ এএম says : 0
    SAWDI, AMIRAT PAKISTANE ESHECHE GHUSH DEBAR JONNY, VAROT ISRAEL ER SUPPOR HISHAVE, TAI TO PAKISTANER AKTU SOFT SOFT VASHA. JEKHANE KASHMIRE KOYEK LAKH VAROTIO ARMY SHEKHANE PAKISTANER 2 HAJAR ARMYR SHOMABESH, HAHAHAHAHAHAHAHAHAH
    Total Reply(0) Reply
  • Sheikh.lokman.hossain ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:৫১ এএম says : 0
    ইয়া আল্লাহ আপনি দুনিয়ার সকল মুসলিমদের এক সাথে থাকার তৌফিক নসীব করুন আমীন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ