Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

১৫০ নেতাকে শোকজ করা হচ্ছে

আ. লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে বৈঠক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:২৩ এএম

২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতা করায় অন্তত দেড়শ’ নেতাকে শোকজ করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। আজ রোববার থেকে এই শোকজ নোটিস অভিযুক্ত নেতাদের কাছে পাঠানো হবে। গতকাল আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদকদের সঙ্গে বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বালিশ কান্ড এবং ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজে পর্দা ক্রয়ে দুর্নীতির বিষয়কে ‘ছিঁচকে’ অপকর্ম আখ্যা দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বালিশ কান্ড, পর্দা ক্রয় এ ধরনের ছিঁচকে কাজ যারা করেন তারা নিশ্চয়ই কোনো এমপি বা মন্ত্রী নন। এটা হাওয়া ভবনের মতো লুটপাটের বিষয় নয়। দেশটাকে লুটপাট করে খেয়েছে হাওয়া ভবন। হাওয়া ভবন ছিল তখন খাওয়া ভবন। আমাদের সময়ে লুটপাটের জন্য কোনো ক্ষমতার বিকল্প কেন্দ্র তৈরি হয়নি। এটা আমি দাবির সঙ্গে বলতে পারি। বালিশ আর পর্দাকে হাওয়া ভবনের সঙ্গে মেলানো যাবে না। আওয়ামী লীগের ১৫০ নেতাশোকজ নোটিস পাচ্ছেন জানিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সময় যারা দলের প্রার্থী ও দলীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ছিলেন, তাদের শোকজ করার সিদ্ধান্ত আগেই নেয়া হয়েছে। সেটা বাস্তবায়নের প্রসেস কীভাবে দ্রুত করা যায়, সেটা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। রোববার থেকে ১৫০টির মতো শোকজ নোটিস তৈরি হবে। শোকজের জবাবের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের তিন সপ্তাহ সময় দেয়া হবে। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদ্রোহী হতে দলের যারা সিনিয়র নেতা, কেন্দ্রীয় নেতা বা সংসদ সদস্য-মন্ত্রী, মদদদাতারা ভূমিকায় ছিলেন তাদের শোকজ করা হবে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকন্দ্রে বালিশ ও ফরিদপুর মেডিক্যালের পর্দা কেনার দুর্নীতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সরকারের ওবায়দুল কাদের বলেন, এ ধরনের ছিঁচকে কাজগুলো যারা করে, তারা মন্ত্রী-এমপি নন। এখানে তো হাওয়া ভবনের মত লুটপাটের বিষয় নেই। যারা এমন অভিযোগ করে, তারা তো দেশটাকেই লুটপাট করে খেয়েছে। এখন কিন্তু সরকারের কোনো বিকল্প সেন্টার নেই। লুটপাটের কোনো ভবন এই সরকারের আমলে নেই, এটা আমি দাবি করে বলতে পারি।

‘জাতীয় পার্টির বিভক্ত দুই গ্রুপ আওয়ামী লীগের দিকে তাকিয়ে রয়েছে’ এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতীয় পার্টির সঙ্গে এক সময় আমাদের জোট ছিল। তাদের সঙ্গে আমাদের নির্বাচনী জোট থাকলেও আদর্শিক কোনো ঐক্য নেই। এখন জাতীয় পার্টি বিরোধী দল। সত্যিকার অর্থে তারা বিরোধীদল হিসেবে শক্তিশালী থাকুক এটা আমরাও চাই। বিরোধী দল নিজেরাই যদি নিজেদের দ্ব›েদ্ব দুর্বল হয়ে যায়, এখানে তো আমাদের কিছু করার থাকে না। আমরা চাই এটা তারা নিজেরাই মীমাংসা করুক। এখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো দায়িত্ব নেই। জাতীয় পার্টির অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে আমাদের মাথা ঘামানোর তো দরকার নেই। জাতীয় পার্টিতে কি হয়েছে, আমাদের দেখার বিষয় নয়। জাতীয় পার্টি তো আওয়ামী লীগের কোনো শাখা সংগঠন নয়, যে এটা আওয়ামী লীগকে দেখতে হবে। এটা তাদের বিষয়, তারাই দেখবে।

পুলিশের ওপর একাধিকবার হামলার প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের এই নীতি-নির্ধারক বলেন, জঙ্গি তৎপরতা একেবারে থেমে গেছে এমন দাবি আমরা করব না। ছোটখাট যে ঘটনাগুলো ঘটছে এগুলো বিচ্ছিন্ন-বিক্ষিপ্তভাবে হলেও ওরা হয়তো টেস্ট কেস করছে। বড় ধরনের কোনো ঘটনা ঘটনানোর জন্য।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এনামুল হক শামীম, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বি এম মোজাম্মেল হক প্রমুখ।



 

Show all comments
  • Engr. Md. Manirul Islam ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
    It's a new Bangladesh that I haven't seen before (may be).
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    এটা হাস্যকর। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা টাকা পয়সা খেয়ে মদদ না দিলে এমন করার দুৎসাহস লোকাল নেতারা দেখাতো না।
    Total Reply(0) Reply
  • Mannan Bhuiyan ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী না জানলেও সিন্ডিকেটের খপ্পরে পড়ে নমিনেশন কেনা ওয়ালারা কিছুটা স্বান্তনা পাবে এই ঘটনার বিপরীতে। তা নাহলে ভবিষ্যতে টাকা দিয়ে নমিনেশন কিনে কেউ টাকা খোয়ানো ও পরাজয়ের ঝুঁকি একসঙ্গে নিতে চাইবে না। রাজনৈতিক যোগ্যতায় নমিনেশন পেলেও "টাকা দিয়ে কেনার গুজব" রটিয়ে দিয়ে বিদ্রোহীরা প্রতিপক্ষকে জনগণের নিকট হেয় করার বিনিময়ে নৌকার ভোট কমতে থাকে। কিন্তু টাকার বস্তা বিদ্রোহীও ঘাড়ে করে দ্বারে দ্বারে ধর্ণা দিয়েছে।
    Total Reply(0) Reply
  • নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
    স্থানীয়ভাবে যারা ভিন্ন নেতার পূজারী তাদের সাইজ করার জন্যই এ ব্যবস্থা । আর কিছুই হবে না বলতে পারেন ।
    Total Reply(0) Reply
  • Md Jamal Hosen ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
    বিধি মোতাবেক দিবেন
    Total Reply(0) Reply
  • Tusher Iqbal ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৪ এএম says : 0
    মশায় ? আপনারটা বাদ পড়লো কেন ? আপনি কী ওদের থেকে আলাদা ?
    Total Reply(0) Reply
  • Shahid Ullah ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৫ এএম says : 0
    মনে হয় আমার নাম ও আছে। আল্লাহ রক্ষা কর।
    Total Reply(0) Reply
  • Masud rana ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৭ এএম says : 0
    এই সব নাটক বাদ দেন। এমন সিদ্ধান্ত আরও আগেই কতবার শুনেছিলাম। কাজের কাজ এখনো করে দেখাতে পারেননি। এদের বিচার করার ক্ষমতা আপনাদের নেই। আমাদের চোখ দিয়ে জল এলেও আপনাদের চোখে ভাসে শুধু টাকা।
    Total Reply(0) Reply
  • Rashidullah ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:০৮ এএম says : 0
    এসব নাটক। নেত্রী ভাল কিছু করতে চান কিন্তু আশেপাশের নেতাদের সে লক্ষ্য বিপরীতমুখী।...নির্বাচনের আগে গোয়েন্দা রিপোর্ট আরো কতো কি, শেষ পর্যন্ত যে লাউ সেই কদু।
    Total Reply(0) Reply
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:০২ এএম says : 0
    বাংলাদেশের ইতিহাসে একমাত্র বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিঃসংশয়ে সৎ জাতীয় নেতা ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর মত মহান আদশ্যবান নেতা বাংলার জমিনে আর হবেনা। তাহার কথা শারীরিক গঠন চশমা পায়জামা পান্জাবী সিগারেট খাওয়া হাটা চলা মানুষের প্রতি ভালোবাসা দেশ প্রেমর গভীরতা কারো মাঝে পরিলক্ষিত হয় না।। মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর হাতে সব নেতার আমল নামা জানা আছেন। বড় আমল নামা আল্লাহর দরবারে জমা আছেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আ. লীগ

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন