Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় বয়সভিত্তিক সাঁতার শুরু মঙ্গলবার

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮:৩৭ পিএম

প্রায় ছয়শ’ বালক-বালিকা ও যুবক-যুবতীদের অংশগ্রহণে মঙ্গলবার মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সে শুরু হচ্ছে সাইফ পাওয়ারটেক জাতীয় বয়স ভিত্তিক সাঁতার প্রতিযোগিতা। একশ’ তিনটি ইভেন্টে পাঁচটি গ্রুপে খেলবেন সাঁতারুরা। গ্রুপগুলো হলো- অনূর্ধ্ব-১০, ১১-১২, ১৩-১৪, ১৫-১৭ ও ১৮-২০ যুবক ও যুবতী। ৪৪ জেলা, ৪৩ সুইমিং ক্লাব, ছয়টি বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, একটি শিক্ষা বোর্ড, বিকেএসপি ও আনসারসহ ৯৬ টি দলের সাঁতারুরা অংশ নেবেন এ আসরে।

মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সে স্প্রিং বোর্ড না থাকায় ডাইভিংয়ের তিনটি ইভেন্ট নৌবাহিনীর পুলে অনুষ্ঠিত হবে। ব্যক্তিগত ইভেন্টে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জপদক ছাড়াও চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দলকে ট্রফি দেয়া হবে। রোববার দুপুরে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের ডাচ বাংলা ব্যাংক অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান, সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক এমবি সাইফ। প্রায় ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে দেশজুড়ে নৌবাহিনীর সহায়তায় ‘সেরা সাঁতারুর খোঁজে’ প্রতিভা অন্বেষন করেছে ফেডারেশন। সেই প্রতিভারাই ঝড় তুলছেন পুলে। এবারো সেই প্রতিক্ষায় রয়েছেন কর্মকর্তারা। তাছাড়া ক্যাম্পের ক্ষুদে সাঁতারুদের জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি বিভাগের বিশেষজ্ঞদের সহযোগিতার মাধ্যমে খাবারের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানান সাইফ। তার কথায়, ‘আমরা ক্ষুদে ছেলে মেয়েদের প্রশিক্ষণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে খাবার দিচ্ছি। যাতে তারা আগামীর তারকা হয়ে উঠতে পারে।’ তবে মিরপুর সুইমিং কমপ্লেক্সে ইলেক্ট্রোনিক্স স্কোর বোর্ড থাকলেও তা নিয়ে সন্দিহান কর্মকর্তারা। কারণ গত বছরও কাজ করেনি জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের তত্বাবধানে থাকা এই ইলেক্ট্রনিক্স বোর্ড।

এদিকে গৌহাটি-শিলং সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে দক্ষিণ কোরিয়ান কোচ পার্কের তত্বাবধানে দু’টি স্বর্ণ জিতেছিলেন বাংলাদেশের কৃতি নারী সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শিলা। এবার পার্ক নেই। জাপানি কোচ তাকিও ইনোকি দায়িত্ব নিয়েছেন জাতীয় দলের। তাই আসন্ন নেপাল এসএ গেমসে কতটা চ্যালেঞ্জিং হবে বাংলাদেশের স্বর্ণপদক জিততে? এমন প্রশ্নের উত্তরে সুইমিং ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদকের উত্তর, ‘ইতোমধ্যে ঢাকায় এসেছেন তাকিও। সোমবার তিনি দেশে ফিরে গিয়ে ফের ১৬ সেপ্টেম্বর ঢাকায় এসে দলের দায়িত্ব নেবেন। এছাড়া জাইকার মাধ্যমে আমরা আরেকজন কোচ আনার চেষ্টা করছি। আশাকরি সর্বশেষ এসএ গেমসের ফলাফল ধরে রাখতে পারবো।’ নেপালের পুল নিয়ে অসন্তুষ্ট প্রকাশ করে সাইফ বলেন, ‘ডিসেম্বরে প্রচন্ড ঠান্ডা থাকবে নেপালে। আমরা জানতে পেরেছি, সেখানে ২৫মিটার পুলে হিটার রয়েছে। ৫০ মিটার পুলে নেই। যেখানে আমাদের ছেলে মেয়েরা ৫০ মিটার পুলে প্রশিক্ষণ নিয়ে অভ্যস্ত। এরইমধ্যে নেপালের এই পুল নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান। তবে আমরা খেলবো।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সাঁতার

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন