Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী

জাপার কাউন্সিল ২১ ডিসেম্বর

রংপুর উপ-নির্বাচনে সমঝোতার চেষ্টা চলছে : জিএম কাদের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০৪ এএম | আপডেট : ১২:১৯ এএম, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

এ যেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কার্বন কপি। বড় ভাইয়ের মতো সকাল-বিকাল সিন্ধান্ত পরিবর্তনের মতোই সাপ্তাহ না যেতেই আগের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। এর আগে আগামী ৩০ নভেম্বর জাপার জাতীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হওয়ার তারিখ নিধারিত হয়েছিল। গতকাল ঘোষণা দেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এর আগের দিন তিনি জানান, রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সমঝোতার চেস্টায় আলোচনা চলছে।
গতকাল বুধবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) পুরাতন ভবনের সেমিনার হলে জাতীয় ছাত্র সমাজ কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি আয়োজিত সাংগঠনিক সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন। জিএম কাদের বলেন, অক্টোবর মাসের মধ্যেই ছাত্র সমাজের কাউন্সিল করতে হবে। নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি হবে।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাপার মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলু, রওশন পুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ প্রমূখ। জাতীয় ছাত্র সমাজের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মো. জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাংগঠনিক সভা পরিচালনা করেন সদস্য সচিব ফয়সাল দিদার দিপু।
এর আগের দিন রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জিএম কাদের বলেছেন, জাতীয় পার্টিতে কোনো বিভেদ নেই। আমরা সবাই ঐকমত্য হয়ে রংপুর-৩ আমনের উপ-নির্বাচনে রাহগীর আল মাহী এরশাদকে (সাদ এরশাদ) মনোনয়ন দিয়েছি। এখানে কেন্দ্রীয় ও তৃণমূল নেতাকর্মীরা একত্র হয়ে দলের স্বার্থে কাজ করবে এবং আমরা জয়ী হব ইনশাআল্লাহ।
রংপুর-৩ উপনির্বাচনে রওশন পুত্র রাহগীর আল মাহী সাদের জয় নিশ্চিত করতে জোটসঙ্গী আওয়ামী লীগের সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে ইঙ্গিত দিয়ে জিএম কাদের বলেন, সমঝোতা হবে কিনা এই মুহূর্তে আমরা বলতে পারছি না। হবে না এটাও বলতে পারছি না। এ বিষয়ে আমরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি, আলাপ আলোচনা কিছুটা করেছি। আমরা এখনও কোনো ঐকমত্যে আসতে পারিনি। তিনি আরো বলেন, আমরা কিছু বিষয়ে আলোচনা করেছি, উনারাও বিষয়টি বিবেচনা করবেন বলেছেন। তবে শেষ পর্যন্ত হয়তো আর দুই চারদিন পর প্রত্যাহারের দিনের মধ্যেই আমরা নিশ্চিত হব।
দল ঐক্যবদ্ধ আছে দাবি করে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, যেকোনো মূল্যে দলকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে চেয়েছি। সামনে দলের একটি ভবিষ্যৎ আছে। তাই আমাদের ব্যক্তিগত কার কী ক্ষতি হলো বা লাভ হলো এটা কোনো ব্যাপার না। আমরা দলের স্বার্থটা এখানে বড়। #



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জাপা

১৬ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ