Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের ৪০ টন বোমা বর্ষণ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২:১৫ পিএম

গতকাল মঙ্গলবার ইরাকের আইএস অধিকৃত একটি দ্বীপে ৪০ টন বোমা ফেলেছে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনী। মধ্য-ইরাকে মসুল ও ইরবিলের কাছেই তাইগ্রিস নদীর মাঝে অবস্থিত আল-কানুস নামের দ্বীপটিতে বিমান হামলা চালানো হয়।
‘অপারেশন জয়েন্ট রিজলভ’ নামের এ হামলায় মার্কিন এফ-১৫ ও এফ-৩৫ সিরিজের কয়েকটি যুদ্ধবিমানসহ আইএসবিরোধী জোটের বেশ কয়েকটি বিমান অংশ নেয়।
বিমান হামলার পর ওই এলাকায় বিশেষ স্থলবাহিনী পাঠানো হয়। এক টুইটার বার্তায় এ হামলার তথ্য নিশ্চিত করেন যৌথবাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল মাইলস বি ক্যাগিংস।
এদিকে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় নিষেধাজ্ঞা ব্যবস্থার সম্প্রসারণ এবং আধুনিকায়নের জন্য একটি নির্বাহী আদেশ জারি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রেস সচিবের দফতর থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ কথা বলা হয়েছে। খবর দ্য সান ও ফক্স নিউজের। ২০১৪ সালের জুনে ইরাক ও সিরিয়ার বিশাল এলাকা দখলে নিয়ে কথিত খিলাফতের ঘোষণা দেয় আইএস।
সিরিয়ার রাকাকে রাজধানী ঘোষণা করে। পার্শ্ববর্তী ইরাকের মসুল শহরকে ঘোষণা করে দ্বিতীয় রাজধানী। প্রায় তিন বছর ধরে ইরাকি বাহিনীর সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়াসহ ৭৯টি দেশের বিরামহীন বিমান হামলার চাপে ২০১৭ সালে ইরাকে কোণঠাসা হয়ে পড়ে জঙ্গিগোষ্ঠীটি।
কিন্তু একেবারে পতন হয়নি। বিশ্লেষকদের হুশিয়ারি সত্যি করে সম্প্রতি ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে আইএস জঙ্গিরা। দিনের বেলা তারা ইরাকের পাহাড়-পর্বত ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের বন-জঙ্গলে লুকিয়ে থাকে। রাতের বেলা বের হয়ে হামলা চালাচ্ছে। আইএসকে পুরোপুরি ধ্বংসের লক্ষ্যে নতুন করে হামলা শুরু করেছে মার্কিন জোট।
জোটের কর্মকর্তারা বলছেন, সিরিয়া থেকে ইরাকের মসুল, মাখমুর ও কিরকুক প্রদেশে প্রবেশের জন্য দ্বীপটিকে ‘ট্রানজিট ঘাঁটি’ হিসেবে ব্যবহার করত আইএস।
ঘাঁটিটি ধ্বংসে হামলাটি চালানো হয়েছে রাতের বেলা। বিমানবাহিনীর প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, দ্বীপের একপ্রান্ত থেকে আরেকপ্রান্ত পর্যন্ড বোমার বিস্ফোরণ হচ্ছে।
আর সেই বিস্ফোরণ থেকে কালো ধোঁয়া আকাশে উঠে যাচ্ছে। জোটের বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আইএসকে সমূলে নিশ্চিহ্ন করতেই এ হামলা চালানো হয়েছে। অভিযানের মুখপাত্র কর্নেল মাইলস বি ক্যাগিংস বলেন, ‘আমরা ছবি প্রকাশ করেছি।
সেখানে আপনারা দেখবেন ৩৬ হাজার কেজি বোমা একটা দ্বীপের উপর ফেলতে দেখতে কেমন লাগে। দ্বীপটি আইএস অধ্যুষিত।’ কমান্ডার মেজর জেনারেল এরিক টি হিল বলেন, কানুস দ্বীপে জঙ্গি লুকিয়ে থাকার চেষ্টাকে আমরা গুঁড়িয়ে দিয়েছি। এর ফলে অঞ্চলে স্থিতিশীলতা ফিরে আসবে।
সন্ত্রাস দমনের নামে ইরাকে বিমান হামলা জোরদার করেছে ইসরাইল। গত সোমবার ইরাকের সীমান্ত এলাকায় হামলা চালায় ইসরাইলি বিমানবাহিনী। দেশটির দাবি, তারা এই এলাকায় ইরানি বাহিনীর ঘাঁটিতে হামলা চালিয়েছে। লন্ডনভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থার দাবি, ওই হামলায় অন্তত ১৮ জন ইরানি ও মিত্রসেনা নিহত হন।
সন্ত্রাস মোকাবেলায় নির্বাহী আদেশ ট্রাম্পের : হোয়াইট হাউস এক বিবৃতিতে বলেছে, ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের কারণে সন্ত্রাসী এবং তাদের সমর্থকদের লক্ষ্য করে জোরালো নিষেধাজ্ঞা আরোপ এবং বিশ্বব্যাপী তাদের আর্থিক, বস্তুগত এবং প্রায়োগিক সমর্থন সহযোগিতা থেকে বঞ্চিত করা যাবে।
বিদেশি আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো এখন জানে যে, তারা যদি সজ্ঞানে চিহ্নিত সন্ত্রাসী এবং তাদের সমর্থকদের সঙ্গে কোনোরকম উল্লেখযোগ্য দেয়া-নেয়ায় সম্পৃক্ত হয়, তা হলে তারাও নিজেদের ঝুঁকির মুখে ফেলবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরাক

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন