Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

শোভন-রাব্বানীকে সরিয়ে ছাত্রলীগে নতুন নেতৃত্ব: ফেইসবুকে প্রতিক্রিয়া

আবদুল মোমিন | প্রকাশের সময় : ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:০৮ পিএম

বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের অভিযোগে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁদের পরিবর্তে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। এদিকে শোভন-রাব্বানীকে সরিয়ে দেওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন নেটিজেনরা। পাশাপাশি নতুন নতৃত্বে আসা জয় ও লেখককে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন তারা।

মিজানুর রহমান ফেইসবুকে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখেছেন, ‘‘শুধু বাদ দিলে হবে না। শোভন আর রাব্বানী যত অবৈধ অর্থ, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি করেছে তার যথাযত

বিচার করতে হবে। কারণ তাহলে পরবর্তীতে যে সকল ছাত্রছাত্রী নেতানেত্রী হবে তাদের মধ্যে দায়বদ্ধতা এবং স্বচ্ছতা থাকবে। দুদুকের উচিত দ্রুত শোভন ও রাব্বানীর অবৈধ টাকা-পয়সা, ধন-সম্পদের অনুসন্ধান করা।’’

সোহেল হায়দার লিখেছেন, ‘‘আওয়ামী লীগের এরকম মাত্র কয়েকটি সিদ্ধান্ত বদলে দিতে পারে দেশটাকে, গড়তে পারে সোনার বাংলাদেশ। সেই আপেক্ষায় আছে তরুণেরা।’’

‘‘তোমাদের এই বিদায়ে সবাই খুশি কেন, এবার তার খোঁজ করো বনজঙ্গলে বসে। পারলে নিজেদের সংশোধন কর এমনভাবে যাতে তোমাদের আগামীদিনের কাজকে মানুষ স্মরণ করে তোমাদের অবর্তমানে’’ শোভন-রাব্বানীর উদ্দেশ্যে লিখেছেন এম হোসাইন।

মো. মামুন লিখেছেন, ‘‘মানুষের মনের আন্তরিক সিদ্ধান্ত এর বহি:প্রকাশ। এধরনের অনেক সঠিক সিদ্ধান্ত মানুষের মনের খোরাক জোগায়।’’

কাবের আহমেদ লিখেছেন, ‘‘একটা অধ্যায়ের করুন পরিণতি এবং পরিসমাপ্তি হইলো। তাদের মাগফিরাত কামনা করছি।’’

‘‘যথাসময়ে নায্য পাওনা পরিশোধ করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন। আরও কিছু জঞ্জাল সাফ করতে তিনি কঠোর হবেন এটা সময়ের দাবী’’ মন্তব্য রেজওয়ান খান চুন্নুর।

নতুন নেতৃত্বকে শুভেচ্ছা জানিয়ে এম জুয়েল আলম লিখেছেন, ‘‘নতুনদের অভিনন্দন! আর সদ্য সাবেক হওয়া শোভন আর রাব্বানীর সম্পদের হিসেব নেওয়া উচিত দুদকের।’’

‘‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যাদের কে নতুন করে দায়িত্ব দিয়েছেন তাদের ব্যক্তিগত আয় ব্যয়ের এবং পারিবারিক সম্পদের তথ্য সংগ্রহ করে রাখার জন্য অনুরোধ করছি, এক বছর পরে বুঝা যাবে তাহারা কতটুকু সৎ ছিলেন’’ এমন দাবি জানিয়েছেন অজিত বিদ্যা।

এসএ শোয়াইব লিখেছেন, ‘‘যারা ছাত্রলীগকে কলঙ্কিত করেছে তাদের সুবিচার হয়েছে এভাবে প্রতিটা অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যে বা যারা, যাদের জন্য প্রিয়নেত্রীর ভাবমূর্তি নষ্ট হবে তাদের এই শাস্তিই হওয়া উচিত সে যেই হোক। প্রিয়নেত্রীর জন্য শুভকামনা রইল।’’

শোভন-রাব্বানীকে সরিয়ে দেওয়ায় মখলেছুর রহমান লিখেছেন, ‘‘ধন্যবাদ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য। এসব আগাছা আগে থেকেই মূলোৎপাটন করতে হয়। এদের আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা উচিৎ। ব্যক্তির কর্মকাণ্ড কোন দল বা সংগঠন নিতে পারেনা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রমাণ করলেন দূর্নীতির বিরূদ্ধে তিনি জিরো টলারেন্স।’’

‘‘যেকোন রাজনৈতিক দলের কাছ থেকে চাওযা পাওয়া তো প্রাই উঠেই গেছে সবার। তবু আশা করি নতুন কমিটি ছাত্রলীগের সস্মান রাখবে। এরা ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করবে না৷ যা হোক নতুনদের শুভেচ্ছা’’ লিখেছেন বিদ্যুৎ রায়।

জিএম মাহাদী হাসান লিখেছেন, ‘‘ক্ষমতা কি জিনিস কালকে থেকে বুঝবেন। যারা আপনাদের সাথে হাত মেলানোর জন্য কত কষ্ট করত, কালকে হয়তো তারা আপনাদের থাপ্পর দিবে রাস্তাঘাটে অপমানিত হবেন, রিক্সাওয়ালারাও থাপ্পর দিতে পারে। হয়তো বাংলাদেশ থাকাটাই আপনাদের দায় হয়ে দাঁড়াবে। ক্ষমতার অপর পিঠ দেখবেন কত ভয়ঙ্কর।’’

নতুন নেতৃত্বকে শুভেচ্ছা জানিয়ে কাজী সুলতানা লিখেছেন, ‘‘অভিনন্দন তোমাদের কিন্তু সাবধান ঘুষ, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, মাদকসেবন, নারীবাজি আর ক্ষমতার অপব্যবহার থেকে। তোমরা যদি কোন কলঙ্ক করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বাস, আস্থা এবং ভরসার জায়গা কুলষিত কর না, জাতি তোমাদের ক্ষমা করবে না।’’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সোশাল মিডিয়া

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ