Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

জাকির নায়েককে ফেরত চাননি মোদি: মাহাথির মোহাম্মদ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:১৩ পিএম

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, জাকির নায়েককে ফিরিয়ে দিতে অনুরোধ করেননি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেছেন, চলতি মাসে শুরুর দিকে রাশিয়ায় ‍উভয় নেতার মধ্যে বৈঠকে এই ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়নি।

৫৩ বছর বয়সী ইসলামিক বক্তা জাকির নায়েক ২০১৬ সালে ভারত থেকে চলে যান। পরবর্তীতে তিনি মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ মালয়েশিয়ায় থাকতে শুরু করেন, যেখানে তাকে স্থায়ীভাবে থাকার অনুমতি দেয়া হয়।

মাহাথির বলেন, জাকির নায়েককে ফিরিয়ে দিতে দিল্লির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক নোটিশ থাকা সত্ত্বেও মোদি তার কাছে এ বিষয়ে কোনও অনুরোধ করেননি।

তবে মঙ্গলবার দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর বলেছেন, ভ্লাদিভস্টকে অর্থনৈতিক ফোরামের বৈঠকে উভয় নেতার মধ্যে আলোচনায় জাকির নায়েকের ইস্যুটি উঠেছিল। তিনি বলেন, জাকির নায়েককে ফিরিয়ে দিতে জানুয়ারি মাসেই মালয়েশিয়ার কাছে অনুরোধ জানিয়েছে ভারত।

গত ৫ সেপ্টেম্বর উভয় নেতার মধ্যকার বৈঠকের বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব বিজয় গোখালে বলেন, মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কাছে জাকির নায়েকের ইস্যুটি উত্থাপন করেছিলেন মোদি।

কিন্তু রেডিও স্টেশন বিএফএম ৮৯.৯-কে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, খুব বেশি দেশ নেই যারা তাকে (জাকির নায়েক) নিতে চায়। মোদির সঙ্গে আমার সাক্ষাৎ হয়েছে। কিন্তু তিনি জাকির নায়েককে ফেরত চাননি।

তার দেশ জাকির নায়েককে অন্য দেশে পাঠানোর চেষ্টা করছে বলেও জানিয়েছেন মাহাথির মোহাম্মদ। তিনি বলেন, আমরা তাকে অন্য দেশে পাঠানোর চেষ্টা করছি। কিন্তু কোনও দেশই এই মুহূর্তে তাকে গ্রহণ করতে চাইছে না।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার হিন্দু ও চীনা বংশোদ্ভূত মালয়েশীয়দের ব্যাপারে নেতিবাচক মন্তব্য করে বেশ বিতর্কের জন্ম দেন জাকির নায়েক। এরপর থেকে মালয়েশিয়ায় জাকির নায়েকের প্রকাশ্য বক্তব্য প্রদানের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

এ বিষয়ে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি (জাকির নায়েক) আমাদের দেশের নাগরিক নন। আমার ধারণা, বিগত সরকার তাকে এ দেশে স্থায়ীভাবে থাকার সুযোগ করে দিয়েছে। একজন স্থায়ী বাসিন্দা এই দেশের ব্যবস্থা ও রাজনীতি নিয়ে মন্তব্য করতে পারেন না। তিনি সেটা লঙ্ঘন করেছেন। তাই এখন তার আর কথা বলার অনুমতি নেই।



 

Show all comments
  • ম নাছির উদ্দীন শাহ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:২২ পিএম says : 0
    যুগে যুগে যারা ইসলাম প্রচার করেছে তারা প্রচণ্ডরূপে ইহুদী কাফের বিধর্মী দ্বারা বাধা প্রাপ্ত হয়ে লান্চিত অপ মানিত রক্তাক্ত ক্ষতবিক্ষত এমনকি শহীদ ও হয়েছে। ভারতের মত হিন্দুত্ববাদী দেশে ইসলামের প্রচারক জাকির নায়েক তার জ্বলন্ত উদাহরণ। ইসলামী দেশে রাষ্ট্রের মালিক গন ইসলাম বাণী প্রচার প্রসার করতে দিবেননা। একটি কারণ বিদেশি প্রভু সামরাজ্যবাদী শক্তি ইহুদী কাফের নারাজ হবেন। আল্লাহ ভয়ের কথা পবিত্র কোরআন সুন্নাহ বিধি বিধান ইসলামের পকৃত আদশ্য সত্য ন্যায়নিষ্ঠতা বর্তমানে আমরা মুসলমানদের আচার আচরণে পরিলক্তিত হচ্ছেন না। একটি কারণ দুনিয়ায় ভালোবাসা আখেরাতের কথা ভুলে য়াওয়া। আগামীতে আরো ভয়াবহ আমরা মুসলমানদের করুন পরিনতি হবে। আল্লাহ আপনি আমাদের ঈমানদার কাতারে রাখুন। সমস্ত মুসলমানদের হেদায়েত করুন। আমিন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়া


আরও
আরও পড়ুন