Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

ধামরাইয়ে সন্ত্রাসী হান্নানের লাশ উদ্ধার

২০দিনে ৩টি খুন

ধামরাই ( ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:৪৫ পিএম

ঢাকার ধামরাইয়ে হান্নান হোসেন নামের এক সন্ত্রাসীর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। আজ বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকালে জয়পুরা এলাকায় বিলের মধ্যে একটি এনজিওর মাছের ঘের থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। তার মাথায় ও শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত হান্নান উপজেলার সোমভাগ ইউনিয়নের জয়পুরা গ্রামের মৃত সোনা মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোহেল ও শাশীম নামের দুইজনকে থানা পুলিশ আটক করেছে।

অপরদিকে গত ২০দিনে আরো দুইটি খুনের ঘটনা ঘটেছে । শুধু তাই নয় কয়েকটি ধর্ষের ঘটনাও ঘটেছে ।এরমধ্যে একটি শিশু রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৯টার পর থেকে হান্নান হোসেন(৪৬)কে খুজে পাওয়া যায়নি। সারা রাত খোজার পর ভোরে মৃতের বাড়ির পশ্চিম পাশে নাগরাইল নামক বিলে মাছের ঘের থেকে তার মৃত দেহ পাওয়া যায়। তবে রাতে মনোরঞ্জণ করার জন্য বাহির থেকে মেয়ে এনে ওই ঘরের ভেতর রেখে ছিল বলে প্রত্যদর্শিরা জানিয়েছে। তবে কেবা কারা তাকে হত্যা করেছে এ বিষয়ে পুলিশ কিছুই জানাতে পারেনি।

স্থানীয়রা আরো জানান, নিহত হান্নান বিভিন্ন মামলার আসামি ও একজন মাদকসেবি হিসেবে পরিচিত ছিল । গতকাল রাতে শামীম ও সোহেল নিহত হান্নানের সাথে ছিল। শামীম (২০) জয়পুরা এলাকার আব্দুল খালেকের ছেলে ও সোহেল(২২) কেলিয়া এলাকার বাদশার মিয়ার ছেলে।এদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে। এ বিষয়ে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দিপক চন্দ্র সাহা বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শামীম ও সোহেলকে আটক করা হয়েছে। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ পাঠানো হয়েছে।

এদিকে নিখোঁজের ৩ দিন পর শরিফভাগ দক্ষিণ পাড়া এলাকার বংশী নদী থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় গত ০৯ সেপ্টেম্বর রবিবার রাতে পুলিশের কথিত সোর্স হৃদয় সাহা (১৬) নামে এক তরুনের ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। নিহত হৃদয় উপজেলার সোমভাগ ইউনিয়নের কান্দিকুল গ্রামের বিশ্বনাথ সাহার ছেলে। নিহতের বাবা জানান গত ৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে নিজ বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় হৃদয়। তবে নিখোঁজের তিন দিন পর রবিবার ধামরাই থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তিনি।
অপর দিকে ২৯ আগষ্ট গভীর রাতে ধামরাইয়ের সানোড়া ইউনিয়নের সুইসখালী গ্রামের শেখ শাজাহান মিয়ার ছেলে বহু অপকর্মের হুতা একাধীক মামলার আসামী থানা পুলিশের প্রাইভেটকারের চালক শেখ ফরিদ বাড়ির সামনেই খুন হয়। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লাশ উদ্ধার


আরও
আরও পড়ুন