Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৯ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

খেলা ছাড়ার এক যুগ পর অবসর!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

২০০৭ সালের মে মাসে ঢাকায় বাংলাদেশের বিপক্ষে সবশেষ ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন ভারতের বাঁহাতি ব্যাটসম্যান দিনেশ মোঙ্গিয়া। এরপর ভারতের জার্সিতে আন্তর্জাতিক কোনো ম্যাচে তাকে দেখা যায়নি। খেলা ছাড়ার ১২ বছর পর অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন মোঙ্গিয়া।

ভারতীয় জার্সিতে ৫৭ ওয়ানডে আর মাত্র একটি টি-টোয়েন্টি খেললেও মোঙ্গিয়া কোনো টেস্ট খেলার সুযোগ পাননি। পাঞ্জাবের হয়ে শেষ ঘরোয়া লিগে খেলেছিলেন ২০০৭ সালে। তারপর ক্রিকেট থেকে দূরে ছিলেন ৪২ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের অভিষেক হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পুনেতে। ওয়ানডেতে একটি সেঞ্চুরি ও চারটি হাফসেঞ্চুরি আছে তার নামের পাশে। ২০০১ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত মোট ৫৭টি একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে রান করেছেন ১২৩০। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৫৯ রান করেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। একমাত্র টি-টোয়েন্টিতে ৪৫ বলে করেন ৩৮ রান। ২০০৬ সালের ১ ডিসেম্বর জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে একমাত্র টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

১৯৯৫ সালে পাঞ্জাবের হয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে অভিষেক হয় মোঙ্গিয়ার। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১২১টি ম্যাচে ২৭টি সেঞ্চুরি আর ২৮টি ফিফটিতে মোঙ্গিয়া করেছেন ৮০২৮ রান। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে ১৯৮ ম্যাচে ছিল ১০টি সেঞ্চুরি আর ২৬টি ফিফটি, রান করেছেন ৫৫৩৫।

২০০৩ বিশ্বকাপে টিম ইন্ডিয়ার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন মোঙ্গিয়া। ২০০৭ সালে পাঞ্জাবের হয়ে শেষবার খেলেছেন তিনি। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআইর নিষেধাজ্ঞার বিপরীতে গিয়ে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগে (আইসিএল) খেলেছেন মোঙ্গিয়া। ভারতের বিদ্রোহী ক্রিকেট লিগ বিসিসিআই কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষিত হওয়ায় মোঙ্গিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা চাপানো হয়। তারপর ধীরে ধীরে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে মুছে যায় মোঙ্গিয়ার নাম। আজ ফের এলেন, হয়তো শেষবারের মতো।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অবসর

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
১৪ মার্চ, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন