Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

ক্ষমতার দম্ভ দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায় না -ড. মঈন খান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৫৪ পিএম

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বলেছেন, ক্ষমতার দম্ভ দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায় না। অতীতে পাকিস্তানীরাও পারেনি। আজ বৃহস্পতিবার সকালে এক মানববন্ধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
ড. আবদুল মঈন খান বলেন, গণতন্ত্রের অতন্দ্র প্রহরী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার অবিলম্বে মুক্তি দাবি করছি। যিনি সুদীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে গণতন্ত্রের লড়াই করছেন। মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছে। কারণ তিনি গণতন্ত্রের কথা বলেন। এজন্যই তাকে কারাবন্দী করা হয়েছে। সরকার হয়তো ক্ষমতার লোভে অন্ধ হয়ে নির্বাচন, প্রশাসন, ও অর্থনীতি সবকিছু দখল কর্ রেখেন। কিন্তু ক্ষমতার দম্ভ দিয়ে মানুষের মন জয় করা যায়না। পাকিস্তানীরাও পারেনি। এই সরকারও পারবেনা।
বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ড্যাব এর উদ্যোগে এই মানববন্ধন কুরআন তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হয়। ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ হারুন অাল রশিদের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব অধ্যাপক ডাঃ আবদুস সালামের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা শামীমুর রহমান শামীম, ড্যাবের কোষাধ্যক্ষ ডাঃ শাকিল, সহসভাপতি ডাঃ শহিদুল ইসলাম সিরাজ, দফতর সম্পাদক ফখরুজ্জামান ফখরুল, মাসুদ রানা, রংপুর বিভাগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ মারুফ হাসান, শহিদুল ইসলাম, ডা: শেখ ফরহাদ, ডাঃ বদর উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব ডাঃ রফিকুল ইসলাম, ডাঃ একেএম ফরিদ উদ্দিন, ডাঃ মেহেদী হাসান প্রমুখ। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সড়কে এই মানববন্ধনে ড্যাব নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডা: শাহ মুহাম্মদ আমান উল্লাহ, ডা: ফারুক, ডাঃ নাসিম, মাহবুব শামীম, ডাঃ মোঃ শাহনেওয়াজ, ডাঃ মোঃ আবু নাসের, ডাঃ মেহবুব উল কাদির, আদনান মাসুদ, ডাঃ জাফর ইকবাল, পারভেজ রেজা কাকন, আশরাফুল ইসলাম মানিক, খালেকুজ্জামান দীপু, ডাঃ তানিয়া ইসলাম সহ শতাধিক চিকিতসক।
ড. আবদুল মঈন খান বলেন, বেগম জিয়াকে চিকিতসার মতো মৌলিক অধিকার থেকেও বণ্চিত খরা হয়েছে। সেজন্য চিকিতসকেরা আজকে মৌলিক অধিকার পুনরুদ্ধারের জন্য রাস্তায় নেমেছেন। দেশনেত্রীর জামিন না দেয়ার ধন্য সরকারকে জবাবদিহিতা করতে হবে।
মিথ্যা উন্নয়নের নামে দেশের মানুষের সাথে প্রতারনা করা হয়েছে। আজকে ঢাকা শহরকে জুয়াড়িদের শহরে পরিণত করেছে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশকে একদলীয় শাসন ব্যবস্থায় পরিণত করেছে। আসুন আমরা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করে দেশনেত্রীর মুক্ত করি।
মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, আওয়ামী লীগের দুই কান নষ্ট। কথা বলেল তারা শোনেনা। তারা কয়লা ময়লা, পাথর ব্যাংক বীমা সবই খায়। কিছু ভালো কাজের জন্য আমরা তাদের প্রশংসা করি। কিন্তু যখন দেখি তাদের সামনে দিয়ে চোর ডাকাত ছিনতাইকারী চলে যায়। তখন ব্যাথা পাই। তাই দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া দেশের অনিয়ম দূর বা বন্ধ করা যাবেনা।
হাবিব উন নবী খান সোহেল বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় সাজানো রায় দিয়ে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে অবৈধ সরকার। আজকে দেশের ষোলো কোটি মানুষ তার মুক্তি চায়। কারণ বেগম জিয়া ছাড়া দেশের মানুষ অনিরাপদ। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়ার পর দেশের গণতন্ত্র ও মানবিক মূল্যবোধকেও কারাগারে নেয়া হয়েছে। মানুষের ভোটাধিকার হরণ করা হয়েছে। নির্বাচনের নামে মধ্যরাতের সার্কাস করা হচ্ছে। অবিলম্বে দেশনেত্রীর মুক্তি দিতে হবে।
তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ঠেলে দিয়ে বাংলাদেশকে ডাম্পিং ল্যান্ড বানানো হয়েছে। আবারো আসামের নাগরিকদের বাংলাদেশে ঠেলে দেয়ার চক্রান্ত চলছে। দেশের সর্বত্র আজ লুটপাট চলছে অবাধে। চাঁদা দাবি করেছেন ৮৬ কোটি টাকা। দেশের পুরনো ছাত্র সংগঠন। দেশের ছাত্র রাজনীতিকে কলংকিত করেছেন ছাত্রলীগ। আমরা জানতাম মসজিদের শহর ঢাকা। অথচ এখন তা অবৈধ সরকারের ডিজিটাল উন্নয়নের খপ্পরে পরে ক্যাসিনোর শহরে পরিণত হয়েছে। আরো রহস্য উদঘাটন হচ্ছে। ক্যাসিনোর টাকা শুধু যুবলীগের নেতারা পায়না। এই টাকা আওয়ামী লীগের বড় বড় নেতাদের বাসায় যায়। তাদেরকেও খুঁজে বের করতে হবে। বাকি যত ক্যাসিনো আছে সেসব চিরতরে বন্ধ করুন। না হলে জনগণ বুঝবেন এসব লোক দেখানো এবং তারা নিজেই সেসব বন্ধ করবে।

ড্যাবের সভাপতি অধ্যাপক ডাঃ হারুন অাল রশিদ বলেন, আজকে হাসপাতালে আমাদের থাকার কথা। কিন্তু দেশের সাবেক জনপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের প্রতীক অাপোসহীন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দী রেখেছে। আমরা তার দ্রুত মুক্তি চাই।

ড্যাবের মহাসচিব অধ্যাপক ডাঃ আবদুস সালাম বলেন, সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি রেখেছে। বেগম জিয়া অসুস্থ হলেও সরকার তাকে সুচিকিতসা দিচ্ছে না। আমরা অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করছি। দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ছাড়া ফিরে যাবেনা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ড. মঈন খান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ