Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ সফর ১৪৪১ হিজরী

সিরাজদিখানে কাঁচির আঘাতে কলেজ ছাত্রী খুন

সিরাজদিখান(মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:১৭ পিএম

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে মামীর হাতে ভাগনী খুনের ঘটনা ঘটেছে। মামী রহিমা আক্তার (২৮)এর কাঁচির আঘাতে ভাগনী কলেজ ছাত্রী তাসনিম আক্তার নিপা (১৭) খুন হয়েছে। নিপা ইছাপুরা সরকারি কেবি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজদিখান উপজেলার মধ্যপাড়া ইউনিয়নের বাহেরকুচি গ্রামে। বৃহস্পতিবার রাত ১ টার দিকে (বুধবার দিবাগত রাত) ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিপার মৃত্যু হয়। এ ব্যাপারে নিপার বাবা বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানায় (১৯ সেপ্টম্বর) বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে লিখিত অভিযোগ করেন। দুপুরে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছে পুলিশ। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ সদর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। ঘাতক রহিমা বেগম ও তার স্বামী আবু তাহের পালিয়েছে।
স্বজন ও পুলিশের বরাত দিয়ে জানা যায়,পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ১৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে নিপার মা রোমেলা বেগমকে মারধরধর করে রহিমা আক্তার ও আবু তাহেরসহ কয়েকজন। এ সময় নিপা তার মাকে মারধর থেকে রক্ষা করতে গেলে তার মামী রহিমা বেগম কাপড় কাটার কাঁচি দিয়ে নিপার পেটে আঘাত করে। প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে প্রাথমিক চিকিৎসা করে ঢাকা রেফার করে। ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় গেল রাতে তার মৃত্যু ঘটে। কারণ হিসেবে জানা যায়, কাঁচির আঘাতে পেটের নাড়ি ও ভুড়ি ফুটো হয়েছিল।
নিপার নানা বাড়িতে মায়ের অংশে বাড়ি করে ২০ বছর যাবৎ তার বাবা ও মা বসবাস করে আসছিল।
সিরাজদিখান থানার ওসি (অপারেশন) কাজী রমজানুল জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। নিপার বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলাল প্রস্তুতি চলছে। আসামীদের ধরতে পুলিশ গিয়েছে, তবে আসামীরা পলাতক রয়েছে বলে জানা যায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ