Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০৫ এএম


দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম
প্রশ্ন : ঈদগাহের জন্য জমি ওয়াক্ফ করা শর্ত কিনা? যদি শর্ত হয় তাহলে কি সরকারী রেজিস্ট্রি করা লাগবে নাকি শুধু স্ট্যাম্পে নিজেরা লিখে রাখলে চলবে। আর ঈদগাহের জায়গা ব্যক্তিগত কিংবা ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহার করা যাবে কিনা?
উত্তর : ঈদগাহ মূলত মুসাল্লা। এর বিধান অনেকটাই মসজিদের মত। তবে, যেহেতু এটি মসজিদ নয়, তাই এর মেন্টেইন মসজিদের মত করা সম্ভব নয়। শরীয়া সম্মত ওয়াকফই যথেষ্ট। সরকারী নিয়মে ওয়াকফ না হলেও চলবে। মৌখিক ওয়াকফ বা স্ট্যাম্পে লেখা সবই সমান। উদ্দেশ্য জায়গাটি যেন পরবর্তীতে মুসাল্লা বা নামাজগাহ ছাড়া অন্য কিছু না হয়ে যায়। তবে, ঈদের নামাজ সহীহ হওয়ার জন্য সর্ব সাধারণের জন্য উন্মুক্ত ব্যক্তিগত বা সরকারী মাঠ হওয়াই যথেষ্ট। ঈদগাহ হিসাবে যেটি ওয়াকফকৃত সে জায়গা থেকে ব্যক্তিগত আয় করা নিঃশর্তভাবে জায়েজ নয়। যদি ওয়াকফের সময় আয়ের কোনো অংশ কেউ নেওয়ার শর্ত করে নেয়, তাহলে নিতে পারে। ঈদগাহর উন্নয়ন বা অন্যান্য প্রয়োজনে মাঠ থেকে আয় করা ও উপযুক্ত স্থানে ব্যয় করা জায়েজ।
প্রশ্ন : কোন অসুস্থ ব্যক্তির জন্য রক্তের দরকার হলে , তা কোন অমুসলিম থেকে নেওয়া যাবে কি না, জানালে খুশি হবো।
উত্তর : অপারগ অবস্থায় নেওয়া যাবে। সাধারণ অবস্থায় নেওয়া যাবে না।
প্রশ্ন : স্বামী এবং স্ত্রী মিলে জামায়েতের সাথে সালাত আদায় করা যাবে কী?
উত্তর : মসজিদের জামাতের বিকল্প হিসাবে এ জামাত চলবে না। যদি কোনো কারণে ঘরেই নামাজ পড়তে হয়, আর তা জামাতে পড়ে সেটা গ্রহণযোগ্য। ফরজ নামাজ ছাড়া তো আর কোনো নামাজে জামাত নেই। ফরজ নামাজ যখন ঘরে পড়ার মত কারণ ঘটে তখন স্বামী স্ত্রী মিলেও জামাত পড়া যায়। তবে, ইমাম অবশ্যই স্বামীকে হতে হবে। দুই ব্যক্তি জামাত করলে যেভাবে একই কাতারে দাঁড়ায়, স্ত্রী এভাবে দাঁড়াবে না। স্ত্রী জামাতের সময় বরাবর না দাঁড়িয়ে পেছনে দাঁড়াবে।
-আল্লামা মুফতী উবায়দুর রহমান খান নদভী

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম

১০ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন