Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ সফর ১৪৪১ হিজরী

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণে সম্ভাব্যতা যাচাই দল কক্সবাজারে

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১০:১৭ এএম

উখিয়া ও টেকনাফের ৩৪ টি রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পের চতুর্দিকের সীমানায় কাঁটাতারের বেড়া নির্মানের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। এর সম্ভাব্যতা যাচাই ও ডিপিপি (প্রাক্কলন) তৈরীর জন্য শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ পুলিশের একটি উচ্চ পর্যায়ের টিম আজ কক্সবাজার আসছেন।

উচ্চ পর্যায়ের এই টেকনিক্যাল টিম সরেজমিনে গিয়ে টেকসই, শক্ত ও মানব পার হতে বাধাসম্পন্ন কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের জন্য ফিজিবিলিটি স্টাডি করে ডিপিপি (ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট প্রোফাইল) তৈরী করবেন।

জানা গেছে, বাংলাদেশ পুলিশের কনস্ট্রাকশন ডেভলপমেন্ট বিভাগের (কারিগরি) দু’জন এআইজি, দুজন এডিশনাল এসপি সহ ৭ জন সদস্য রয়েছেন এ টিমে। তাঁরা কক্সবাজার জেলা পুলিশের প্রেরিত প্রস্তাবের আলোকে আগামী এক সপ্তাহ ধরে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প গুলোতে এ বিষয়ে কাজ করবেন। টিমের সাথে কক্সবাজার জেলা পুলিশের কর্মকর্তারাও থাকবেন।

সুত্র মতে, রোহিঙ্গা শরনার্থীদের নিয়ন্ত্রণের জন্য ক্যাম্পের সীমানায় কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের বিষয়টি নীতিনির্ধারণী মহলে খুবই গুরুত্ব পাচ্ছে।

প্রায় ৩ মাস আগে আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী (বিপিএম-বার), বিজিবি প্রধান, পুলিশের এসবি প্রধান ও র‍্যাব প্রধান ড. বেনজির আহমেদ সরেজমিনে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করে ক্যাম্প গুলোতে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

এছাড়া পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক (বিপিএম-বার পিপিএম) সভাপতির বক্তব্যে রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প গুলোর সীমানায় কাঁটাতারের বেড়া নির্মানের কথা গুরুত্বের সাথে আলোচনা হয় বলে জানা গেছে।



 

Show all comments
  • ash ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১:৪৯ পিএম says : 0
    THAT WILL BE WASTING MONEY & TIME ! THEY SHOULD BE PUSH TO MOVE IN THAT ISLAND, WHICH IS READY BY BANGLADESH NAVY ! WE JUST CANT DESTROY CTG BECAUSE OF ROHIGGA !! IF OTHER COUNTRY CAN KEEP REFUGEE IN DETENTION CENTER (AUS) WHY WE CANT BE??
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রোহিঙ্গা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ