Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

হুথিদের সউদীতে সব ধরনের হামলা বন্ধের ঘোষণা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩:৫৮ পিএম

সউদী আরবকে লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা বন্ধ করা হবে জানিয়েছেন ইয়েমেনের হুথি বিদ্রোহী আন্দোলনের এক কর্মকর্তা। সতর্ক করে দিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেছেন, চলমান যুদ্ধের পরিণতি মারাত্মক হতে পারে। শুক্রবার রাতে হুথিদের সর্বোচ্চ রাজনৈতিক কাউন্সিলের প্রধান মাহদি আল মাসাত এই ঘোষণা দিয়েছেন।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সউদী আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর দুটি বৃহৎ তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালানো হয়। ওই হামলার পর সউদী আরবের তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমে আসে। ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী হুথি বিদ্রোহীরা এ হামলার দায় স্বীকার করলেও এ ঘটনায় ইরানকে দায়ী করে যুক্তরাষ্ট্র ও সউদী আরব। যুক্তরাষ্ট্রের তরফে স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ করে হামলার নেপথ্যে ইরান জড়িত রয়েছে বলে দাবি করা হয়। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে তেহরান। এই ঘটনার জেরে সউদী আরব এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে আরও সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শুক্রবার হুথি বিদ্রোহীদের পরিচালিত আল মাসিরাহ টেলিভিশনে বিদ্রোহী নেতা মাহদি আল মাসাত বলেন, সউদী অঞ্চলে সামরিক ড্রোন, ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং অন্য সব ধরণের অস্ত্র নিয়ে হামলা বন্ধের ঘোষণা দিচ্ছি। আর তাদের দিক থেকেও একই ধরণের পদক্ষেপের অপেক্ষা করছি। এই হুথি নেতা বলেন, তারা (সউদী আরব) এই পদক্ষেপকে ইতিবাচক হিসেবে নিতে ব্যর্থ হলে প্রত্যাঘাতের অধিকার আমাদের রয়েছে। তিনি বলেন, ইয়েমেনে চলমান যুদ্ধ কোনও পক্ষই লাভবান হবে না।
ইয়েমেনে যুদ্ধে লিপ্ত বিভিন্ন পক্ষকে সত্যিকার আলোচনায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে হুথি নেতা আল মাসাত বলেন, এই আলোচনা কাউকে বাদ না দিয়ে বিস্তৃত জাতীয় পুনর্গঠনকে ত্বরান্বিত করবে। তিনি বলেন, যুদ্ধ বন্ধের বড় লক্ষ্য হবে ইয়েমেনিদের রক্ত রক্ষা করা আর সাধারণ দায়মুক্তি অর্জন।

২০১৫ সালে ইয়েমেনের প্রেসিডেন্ট মনসুর হাদিকে উচ্ছেদ করে রাজধানী সানা দখলে নেয় ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী হুথি বিদ্রোহীরা। সউদী আরবের রাজধানী রিয়াদে পালিয়ে যান হাদি। ২০১৫ সালের মার্চে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে মিত্রদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তায় ‘অপারেশন ডিসাইসিভ স্টর্ম’ নামে সামরিক অভিযান শুরু করে সউদী আরব। সউদী জোটের অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত নারী-শিশুসহ ১০ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে কোটি কোটি মানুষ। হুথি বিদ্রোহীদের সাম্প্রতিক ঘোষণা বিষয়ে তাৎক্ষনিক কোনও মন্তব্য করেনি সউদী নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট।



 

Show all comments
  • kuli ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮:৩৭ পিএম says : 0
    হুতিরা ডরাইসে
    Total Reply(0) Reply
  • Md missory Missory ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৭ পিএম says : 0
    যুদ্ধ একটি মারাত্তক মরন ব্যাধী সব্দ যার পরিনাম বেশিরবাগ নিরীহ মৃত্য,,যদ্ধে পুরা পৃথীবীর ক্ষতি করে,তাই বন্দ হোক সারা বিস্বের যুদ্ধ
    Total Reply(0) Reply
  • Md missory Missory ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৯:৫৭ পিএম says : 0
    যুদ্ধ একটি মারাত্তক মরন ব্যাধী সব্দ যার পরিনাম বেশিরবাগ নিরীহ মৃত্য,,যদ্ধে পুরা পৃথীবীর ক্ষতি করে,তাই বন্দ হোক সারা বিস্বের যুদ্ধ
    Total Reply(0) Reply
  • People ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:১৮ এএম says : 0
    সবার অচিত শান্তি আলোচনা করে জুদ্দ বন্ধ করা কারন সবাই মুসলিম রক্ত আমাদের যাচ্ছে, লাভ আমেরিকার
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইয়েমেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ