Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী

ওয়ালটন ফ্রিজ কিনে মিলিয়নিয়ার হলেন নাটোরের ইউপি সদস্য

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:২৮ পিএম

পরিবারের জন্য ১১ সিএফটির একটি ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর কিনেছিলেন ছায়েদ আলী। তিনি নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য। ২৭ হাজার ৪০০ টাকা দামের ওই ফ্রিজ কিনে ১০ লাখ টাকা পেয়েছেন তিনি। এলাকার সবার কাছে এখন তার নতুন পরিচিতি ‘মিলিয়নিয়ার ছায়েদ’। অপ্রত্যাশিত এ সৌভাগ্যে তার পরিবারেও বইছে খুশির বন্যা।

চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোরের আওতায় ফ্রিজ ক্রেতাদের এ সুযোগ দিচ্ছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। যেকোনো মডেলের ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর কিংবা ফ্রিজার কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা প্রতিদিনই পেতে পারেন ১০ লাখ টাকা। রয়েছে ১ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন অঙ্কের নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার কিংবা ফ্রিজ, টিভিসহ বিভিন্ন পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব সুবিধা থাকছে ৩০শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

জানা গেছে, ১ আগস্ট স্থানীয় চাঁচকৈর বাজারের ওয়ালটন প্লাজা থেকে ফ্রিজটি কেনেন ছায়েদ আলী। এরপর ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় ফ্রিজটি রেজিস্ট্রেশন করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মোবাইল ফোনে ১০ লাখ টাকা পাওয়ার মেসেজ যায়।

১৫ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ছায়েদ আলীর হাতে ১০ লাখ টাকা হস্তান্তর করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন গুরুদাসপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন, উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান রোকসানা আক্তার, গুরুদাসপুর থানার ওসি মোজাহারুল ইসলাম, স্থানীয় সংবাদপত্র ‘দৈনিক দিবারাত্রি’র সম্পাদক আতাহার হোসেন, ওয়ালটনের এরিয়া ম্যানেজার আক্তার হাবিব খান শূর এবং ওয়ালটন প্লাজার ম্যানেজার কুমার অভিজিৎ গৌরসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে ছায়েদ আলী বলেন, ওয়ালটন পণ্য আমাদের এলাকায় অনেক জনপ্রিয়। আমিও সবসময় ওয়ালটনের পণ্য কিনি। এর আগে ওয়ালটনের টেলিভিশন কিনেছি। খুব ভালো সার্ভিস দিচ্ছে। সেজন্য পরিবারের ব্যবহৃত ফ্রিজটি কেনার ক্ষেত্রেও দ্বিতীয় কোনো চিন্তা করি নাই। সোজা চলে গেছি ওয়ালটন শোরুমে। এরপর যখন ১০ লাখ টাকা পাওয়ার মেসেজ পেলাম, তখন প্রথমে বিশ্বাস হয়নি। পরে প্লাজার কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে নিশ্চিত হই। ওয়ালটন কর্তৃপক্ষের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তাদের ধন্যবাদ।

ছায়েদ আলী জানান, ইউপি সদস্য হলেও কৃষিকাজ করে সংসার চালান তিনি। তিন বছর আগে নির্বাচনের সময় লোন নিয়েছিলেন। ফ্রিজ কিনে পাওয়া ১০ লাখ টাকা থেকে ওই লোন পরিশোধ করবেন। বাকি টাকায় জমি লিজ নিয়ে চাষাবাদ করবেন।

উল্লেখ্য, অনলাইনে দ্রæত বিক্রয়োত্তর সেবা নিশ্চিত করতে কাস্টমার ডাটাবেজ তৈরি করছে ওয়ালটন। সেজন্য তারা সারা দেশে চালাচ্ছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন। ওই ক্যাম্পেইনে ক্রেতাদের উদ্বুদ্ধ করতে ওয়ালটন ঘোষণা করেছে ‘কে হবেন আজকের মিলিয়নিয়ার’ শীর্ষক সুবিধা। এর আওতায় ক্রেতাদের ১০ লাখ টাকাসহ নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার এবং ফ্রি পণ্য দেয়া হচ্ছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ওয়ালটন ফ্রিজ


আরও
আরও পড়ুন