Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০৮ কার্তিক ১৪২৬, ২৪ সফর ১৪৪১ হিজরী

পাবনার আমিনপুর থানার এক এস আইয়ের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ, পুলিশের অস্বীকার

পাবনা থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪:৫২ পিএম

পাবনার আমিনপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইউসুফ আলীর বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে ।

অভিযোগ রয়েছে, কখনো মিথ্যা মামলা, আবার কখনো নির্যাতনের ভয় দেখিয়ে নিরীহ মানুষের কাছ থেকে অর্থ আদায় করছেন তিনি। তার ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বেশ কয়েকজন। সম্প্রতি এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর দোকানে এসআই ইউসুফ তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর গ্রামের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম মুন্সী। গত ১০/১২ বছর ধরে আমিনপুর বাজারে মুদি ও ষ্টেশনারী ব্যবসা করে আসছেন । সম্প্রতি রফিকুল মুন্সীর সাথে প্রতিবেশী সবুজ মন্ডল নামের এক ব্যক্তির জমি নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। এ ঘটনায় আমিনপুর থানার এসআই ইউসুফ আলী সবুজের পক্ষ নিয়ে রফিকুল মুন্সীকে জমি বদল করে নিতে চাপ দেন বলে অভিযোগ উঠে। এতে রাজী না হওয়ায় গত ২ সেপ্টেম্বর দুপুরে আমিনপুর বাজারে রফিকুল মুন্সীর দোকানে থাকা তার পিতাকে বের করে দিয়ে তালা ঝুলিয়ে দেন এসআই ইউসুফ। সেইসাথে চাঁদা দাবি করেন। টাকা না দিলে দোকানের তালা খোলা হবে না বলেও জানিয়ে দেন।

রফিকুল মুন্সী জানান, এভাবে কতদিন পালিয়ে থাকা যায় । এই অভিযোগের বিষয়ে আজ শনিবার আমিনপুর থানায় মোবাইল করলে তদন্ত কর্মকর্তা মঈনুদ্দিন বলেন, ‘ পুলিশের বিরুদ্ধে তো অভিযোগের শেষ নেই। আমাদের ভাল কাজগুলো কেউ দেখেন না ,সব কিছু বাঁকা চোখে দেখা হয়।’ এস আই ইউসুফের অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন, পুলিশ কোনো দোকানে তালা ঝুলিয়ে দিতে পারেন না ম্যাজিষ্ট্রেটের উপস্থিতি ছাড়া। তিনি জানান, ঐ মুদি ব্যবসায়ী একজন মৃত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী মরিয়ম বেগমের জায়গা জোর করে দখলে রেখেছে। তিনি থানায় অভিযোগ করলে এস আই ইউসুফ ঘটনা তদন্তে জানান । ঐ দোকানী নিজেই দোকানে তাল দিয়ে পালিয়ে যান। পরে ইউসুফের বিরুদ্ধে নানা প্রচারণা চালাচ্ছেন। তারপরও অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে । সত্যতা পাওয়া গেলে পাবনার পুলিশ সুপার মহোদয়কে জানানো হবে। সত্যতা পাওয়া গেলে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেবেন।

 

 



 

Show all comments
  • somsu miah ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৫:১৫ পিএম says : 0
    always there will be good, bad and ugly, the police officers only human they make mistake like everyone, the most officer does honest work the country should be proud of these police officer.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অভিযোগ


আরও
আরও পড়ুন