Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

সরকারের উচ্চ থেকে তৃণমূল দুর্নীতিতে নিমজ্জিত তা প্রমাণিত

সাংবাদিকদের মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

সরকার আকণ্ঠ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, তাদের (সরকার) একেবারে উচ্চ পর্যায় থেকে তৃণমূলের কর্মী পর্যন্ত দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। তারই কিছু প্রমাণ আপনারা কয়েক দিন ধরে দেখছেন। এখন কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরোচ্ছে। গতকাল (শনিবার) সকালে ছাত্রদলের নবনির্বাচিত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পর্যন্ত সবখানেই তারা আজকে যে ভয়াবহ আকারে দুর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়েছে, এটা দেশের জন্য, জনগণের জন্য অত্যন্ত ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

ক্যাসিনো ব্যবসা বিএনপির আমলেই শুরু হয়েছে বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল বলেন, উনাকে জিজ্ঞেস করেন তো এটা (ক্যাসিনো) পত্রপত্রিকায় কখন সামনে এসেছে? বিএনপির আমলে তো কখনো মিডিয়ায় আসেনি। এ ধরনের কথাবার্তা বলে লাভ নেই। দেশের মানুষ বোঝে। এটা তারা এড়িয়ে যেতে চায়। আপনারা দেখছেন, ধর্মের কল বাতাসে নড়তে শুরু করেছে। আজকে পত্রপত্রিকা, টেলিভিশনে যেভাবে এসেছে, এতে প্রমাণিত হয়ে গেছে, আওয়ামী লীগ সরকার শুধু দুর্নীতি নয়, তারা বাংলাদেশের যে রাজনৈতিক কাঠামো তা ভেঙে ফেলছে, সামাজিক কাঠামো তা ভেঙে ফেলছে এবং এদেশকে সত্যিকার অর্থে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

ছাত্রদলের কাউন্সিলের অর্জন কী- প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আপনারা নিজেরাই দেখলেন, সরকারের সমস্ত ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত ভেদ করে, আদালতকে তারা (সরকার) ব্যবহার করার চেষ্টা করেছে, অত্যন্ত সফলভাবে ছাত্রদলের কাউন্সিল হয়েছে। নতুন দিগন্তের স‚চনা হয়েছে এই কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে। তিনি বলেন, আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের তত্ত্বাবধানে অত্যন্ত সুষ্ঠুভাবে ছাত্রদলের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে এবং আমাদের তরুণ দু’জন মেধাবী ছাত্রনেতা নির্বাচিত হয়েছেন এবং ছাত্রদলের এই নেতৃত্ব দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন, গণতন্ত্র মুক্তি আন্দোলনের নেতৃত্ব নিঃসন্দেহে সবচেয়ে ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে আমরা সবাই বিশ্বাস করি। বিএনপি ও তার অঙ্গসংগঠনসহ দেশের মানুষের তাদের প্রতি দোয়া আছে এবং তাদের প্রতি সবার সেই বিশ্বাস আছে যে তারাই আন্দোলনে সফল হবে। ফখরুল বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির জন্য দেশব্যাপী দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবে ছাত্রদল এবং তার মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরে যাবে না, এই ছিল আজকে তাদের শপথ।

গত বুধবার ছাত্রদলের ষষ্ঠ কাউন্সিলে ফজলুর রহমান খোকন সভাপতি এবং ইকবাল হোসেন শ্যামল সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ছাত্রদলের নবনির্বাচিত দুই নেতাসহ সংগঠনের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীদের জিয়ার কবরের সামনে আন্দোলনের শপথ করান ফখরুল।

এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, ছাত্রদলের সাবেক নেতা আসাদুজ্জামান রিপন, ফজলুর রহমান মিলন, খায়রুল কবির খোকন, শহিদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, কামরুজ্জামান রতন, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আজিজুল বারী হেলাল, সাইফুল আলম নিরব, শফিউল বারী বাবু, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মোরতাজুল করীম বাদরু, আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, আমিরুল ইসলাম খান আলীম, শহিদুল ইসলাম বাবুল, আবদুল আউয়াল খান, হাবিবুর রশীদ হাবিব, রাজীব আহসান, আকরামুল হাসান প্রমুখ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ