Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭, ১৩ সফর ১৪৪২ হিজরী

দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগ যেন মুখ থুবড়ে না পড়ে মুসলিম লীগ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০১ এএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর নৈতিক দায়বদ্ধতা থেকেই দুর্নীতিবাজ দলীয় নেতাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর গণ-সমর্থিত এই উদ্যোগ কতিপয় স্বার্থান্বেষীর কারসাজিতে মাঝ পথে যেন মুখ থুবড়ে না পড়ে। গতকাল সোমবার সকাল পল্টনস্থ দলীয় প্রধান কার্যালয়ে নির্বাহী সভাপতি আব্দুল আজিজ হাওলাদারের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ঢাকায় অবস্থানরত কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের এক জরুরি সভায় দলীয় নেতৃবৃন্দ একথা বলেন।
নেতৃবৃন্দ বলেন, গত দশ বছরে চাঁদাবাজি টেন্ডারবাজিসহ দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া জুয়া ও মাদকের প্রকাশ্য ব্যবসা প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। সকল নীতি-নৈতিকতা ও ধর্মীয় মূল্যবোধকে বিসর্জন দিয়ে মসজিদের শহর নামে খ্যাত গর্বিত ঢাকাকে আজ ক্যাসিনোর শহরে পরিণত করা হয়েছে। প্রশাসনের অর্থলোভী ও নীতিহীন কিছু কর্মকর্তার সহযোগিতায় সর্বক্ষেত্রে দুর্নীতি ও নৈতিক অবক্ষয় আজ মহামারী রূপে সমাজে বিরাজ করছে।
এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দলের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত মহাসচিব আকবর হোসেন পাঠান, খোন্দকার জিল্লুর রহমান, আনোয়ার হোসেন আবুড়ী, কাজী এ.এ কাফী, খান আসাদ, ইঞ্জিনিয়ার ওসমান গনী, নজরুল ইসলাম ও শেখ এ সবুর।
বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলন
বাংলাদেশ জনসেবা আন্দোলনের চেয়ারম্যান মুফতি সৈয়দ মো. ফখরুল ইসলাম বলেছেন, ক্যাসিনো ক্লাবের নামে জনগণের অর্থ লুটপাট করে রাতারাতি কালো টাকার মালিক হচ্ছে সরকার দলীয় হোমড়া চোমড়ারা। তিনি বলেন, গোটা দেশ আজ দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। বালিশ পর্দা কয়লা দুর্নীতির ঘটনায় দেশবাসি হতবাক। গতকাল দলীয় কার্যালয়ে বর্ধিত সভায় তিনি এসব কথা বলেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন ,দলের মহাসচিব মাওলানা ইয়ামিন হোসাইন আজমী, মাহমুদুল হাসান ও দ্বীপু রাজ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন