Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ০৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ সফর ১৪৪১ হিজরী

সৎ বাবা থেকেও রেহাই পেল না

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় স্কুলছাত্রীসহ শিকার ৭ : আটক ৫

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

সৎ বাবা থেকেও রেহাই পেলনা ৫ বছরের এক ছোট্ট শিশু। বগুড়ায় এমন ঘৃণ্য ঘটনা ঘটেছে । সোনাগাজীতে অচেতন করে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সুনামগঞ্জে প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। রূপগঞ্জে ৩য় শ্রেণির এক শিক্ষার্থী যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এছাড়া বাগেরহাট স্কুলছাত্রী, কুড়িগ্রামে ১০ বছরের শিশু , সাভারে নারী ও বগুড়ায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে, বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টায় মূল আসামিসহ বিভিন্ন স্থানে ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বগুড়া : বগুড়ায় সৎ বাবার হাতে ৫ বৎসরের শিশু কন্যা ধর্ষিত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শহিদুল ইসলাম (২৬) কে গতকাল দুপুর ২ টার দিকে গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত শহিদুল উত্তর চেলোপাড়ার জিলহক ইসলামের পুত্র বলে জানা গেছে।

শিশুটির মায়ের বরাত দিয়ে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রেজাউল করিম রেজা জানান, প্রায় তিনমাস আগে শহিদুলের সাথে তার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। প্রথম স্বামী পক্ষ ও তার শিশু সন্তানকে শহিদুল ধর্ষণ করে । বিয়ের পর থেকে সে তার নতুন স্বামীর সাথে উত্তর চেলোপাড়ার ভাড়া বাসায় থাকতো। রবিবার বিকেল ৪ টায় মেয়ের মা তার বাবার বাড়িতে গেলে ধর্ষক শহিদুল শিশুটিকে ধর্ষণ করে। পরে মেয়ের মা বাড়িতে এসে শিশুটিকে কাঁন্নাকাটি করতে দেখে এবং বাড়ির মেঝেতে রক্ত পড়ে থাকতে দেখে। এরপর তার মেয়েকে নিয়ে সে স্থানীয় গ্রাম্য ডাক্তারের কাছে যায় এবং তার শিশু ধর্ষিত হয়েছে বলে জানতে পারে। একপর্যায়ে শিশুটি জানায় তার সৎবাবা দ্বারা সে ধর্ষণের স্বীকার হয়েছে। এরপর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে দুপুর সাড়ে ১২ টায় মেয়ের মা থানায় এসে মামলা দায়ের করে।

এদিকে, বগুড়ায় বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে আলী আহসান ডিউক (৪৩) নামের কোচিং সেন্টারের এক পরিচালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল উপশহরের সিন্ধা আবাসিক এলাকার ক্রিয়েশন হোম কোচিং সেন্টার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার আলী আহসান ডিউক ওই কোচিং সেন্টারের পরিচালক এবং ঝোপগাড়ী এলাকার মৃত হযরত আলীর ছেলে। ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী অভিযোগ করেন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন আলী আহসান। পরে পুলিশ আলী আহসানকে গ্রেফতার করে সদর থানায় নিয়ে আসে।

কুড়িগ্রাম : দশ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে কুড়িগ্রামে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত কিশোর সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নের শুলকুর বাজার সংলগ্ন উত্তর নওয়াবশ গ্রামের গাদু মিয়ার ছেলে। সে একই এলাকার পাঁচগাছী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার পর থেকে ওই কিশোর পলাতক রয়েছে।

নির্যাতনের শিকার শিশুটি কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছী ইউনিয়নে ধর্ষণের শিকার ওই শিশু গুরুতর অসুস্থ হয়ে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। গতকাল কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের গাইনি বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. নাসিমা বেগম বলেন, “প্রাথমিক পরীক্ষায় শিশুটিকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। “তবে আমরা কমিটির মাধ্যমে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেব।”

ধর্ষণের শিকার শিশুটির মা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশে একটি অনুষ্ঠানে শিশুটিকে তার বাবাসহ রেখে যান। শিশুটি ঘুমিয়ে পড়লে শিশুটির বাবা বাইরে থেকে ঘরের দরজার শেকল লাগিয়ে দিয়ে পার্শ্ববর্তী বাজারে যান। এসময় পাশের বাড়ির এক ছেলে ঘরে ঢুকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। “পরে বাড়ি ফিরে মেয়েকে রক্তাক্ত অবস্থায় কাতরাতে দেখে রাতেই তাকে নিয়ে কুড়িগ্রাম সদর থানায় গেলে পুলিশ শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেয়।”

শিশুটির মা আরও জানান, ঘটনা ধামাচাপা দিতে এলাকার ‘মেম্বারসহ’ প্রভাবশালী একটি মহল তৎপরতা শুরু করে। মীমাংসার প্রস্তাবে রাজি না হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়।

সোনাগাজী : ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে কোমল পানীয় খাইয়ে অচেতন করে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গত রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার দুপুরে অভিযুক্ত আশফাকুল রহমানকে (৩৫) আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় লোকজন। বিকেলে ছাত্রীর মামা বাদী হয়ে আশফাকুলকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা করেছেন।

পুলিশ ও ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রোববার সন্ধ্যায় ওই ছাত্রী তার নানাবাড়িতে বেড়াতে আসে। রাত আটটার দিকে বাসার ভাড়াটে আশফাকুল কোমল পানীয় এনে ছাত্রী ও তার নানা-নানিকে দেন। কোমল পানীয় খাওয়ার কিছুক্ষণ পর সবাই অচেতন হয়ে পড়েন। পরে গভীর রাতে ঘরে ঢুকে মোবাইল ফোনে ওই স্কুলছাত্রীর আপত্তিকর ছবি তোলেন ও ধর্ষণ করেন।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণ ও মুঠোফোনে ছবি তোলার কথা স্বীকার করেছেন আশফাকুল। তার মুঠোফোনটি আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিমের আদালতে হাজির করা হবে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আশুলিয়া (ঢাকা) : আশুলিয়ায় এক নারীকে গণধর্ষণ করেছে চিহ্নিত মাদক কারবারিরা। আশুলিয়া থানায় আটজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করেছেন ওই মহিলা। গত শনিবার সকালে আশুলিয়া মরাগাং এলাকার কাবাব হোটেলে এ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

বাগেরহাট : বাগেরহাট সদরে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন জানান, রোববার বিকালে সদরের রণবিজয়পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী নোনাডাঙ্গা গ্রামে এক মেয়ে গৃহ শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে যায়। এ সময়ে ওই গৃহ শিক্ষক বাড়িতে না থাকায় তার ভাই অনিক শেখ (২২) ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা বাগেরহাট হাসপাতালে সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল সকালে গ্রেফতারকৃতকে আদালতে পাঠালে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এক লম্পট ১০ বছর বয়সের এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার দুপুরে উপজেলার আড়িয়াবো এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে ধর্ষিতা মা বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, দুপুরে ভাড়াটিয়া বাড়ী সংলগ্ন মাঠে খেলাধুলা করার সময় আড়িয়াবো এলাকার বাচ্চু মিয়ার ছেলে লম্পট লিটন মিয়া চকলেট খাওয়ার প্রলোভন দেখায় ওই শিশুকে। পরে লিটন তার ঘরে নিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে জোরপুর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষনের পর এ ব্যপারে কাউকে বললে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়া হয় শিশুটিকে। পরে লম্পট লিটন এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।

সুনামগঞ্জ : সুনামগঞ্জের ধর্মপাশায় সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা করা হয়েছে। উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের নওধার গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে সজিবকে (২২) আসামি করে গত রোববার নারী শিশু ও নিযার্তন দমন আইনে ধর্মপাশা থানায় মামলা করেন ওই ছাত্রীর বাবা। মামলা স‚ত্রে জানা গেছে, বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়ার পথে সজিব ওই ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়াসহ বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার বাবাকে জানায়। এরপর তিনি (ছাত্রীর বাবা) সজিবকে শাসিয়ে দেন এবং সতর্ক করেন। গত বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাওয়ার সময় সজিব তাকে জোর করে নিজের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সজিব সেখান থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায়।

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) : বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে এক গৃহবধূকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মজিবুল হক বয়াতী নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সেকালে গেপ্তার মজিবুল হককে কোর্টে চালান করা হয়। গ্রেফতার মজিবুল হক বয়াতী উপজেলার মধ্য-বরিশাল গ্রামের নুর ইসলাম বয়াতীর ছেলে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ