Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বিদেশি পর্যটকদের জন্য দরজা খুলে দিচ্ছে সউদী আরব

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭:৫৬ পিএম

শুধুই বেড়ানোর জন্য সউদী আরবে যাবার কথা কি কখনো ভেবেছেন? আপনার পূর্ব-ধারণা যাই থাকুক, সৌদি মন্ত্রীর কথায় 'পর্যটকদের অবাক করার মতো' অনেক কিছুই আছে সেখানে।

এক নতুন ভিসার নিয়মকানুন চালুর মধ্যে দিয়ে সৌদি আরব আন্তর্জাতিক পর্যটকদের জন্য তাদের দরজা খুলে দিচ্ছে।
এতে নারী পর্যটকরা সৌদি আরবে কিরকম পোশাক পরতে পারবেন - তা নিয়েও কড়াকড়ি শিথিল করা হচ্ছে।
শুক্রবারই এই রাজতান্ত্রিক দেশটি বিশ্বের ৪৯টি দেশের জন্য ভিসার নতুন নিয়ম চালু করছে - যার বৃহত্তর লক্ষ্য হচ্ছে তেলের ওপর তাদের অর্থনৈতিক নির্ভরতা কমানো।
সৌদি পর্যটন মন্ত্রী আহমাদ আল-খতিব একে বর্ণনা করেছেন এক 'ঐতিহাসিক মুহূর্ত' হিসেবে।
এতদিন সৌদি আরবে ভিসা দেয়া হতো প্রধানত হজযাত্রী, ব্যবসায়ী এবং বিদেশি শ্রমিকদের জন্য।

কিন্তু মি. আল-খতিব বলছেন, "আমাদের এখানে দেখার মতো এমন সব জিনিস আছে যা পর্যটকদের অবাক করবে। এখানে আছে পাঁচটি স্থান যা ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইট বা বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ, সমৃদ্ধ স্থানীয় সংস্কৃতি এবং মনোমুগ্ধকরা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য।"

বলা হচ্ছে নতুন নিয়ম অনুযায়ী, বিদেশি নারী পর্যটকদের পুরো শরীর ঢাকা আবায়া পরতে হবে না - যা সৌদি নারীরা পরেন - তবে অবশ্যই সংযত-শালীন পোশাক পরতে হবে।

পুরুষ সঙ্গীবিহীন একাকী নারীর সৌদি আরব সফরেও কোনো নিষেধাজ্ঞা থাকবে না।
তবে অমুসলিমরা এখনো পবিত্র মক্কা ও মদিনা নগরীতে যেতে পারবেন না।
তা ছাড়া মদ্যপানের ওপর নিষেধাজ্ঞাও বহাল থাকবে।

সৌদি আরব আশা করছে যে সেদেশে পর্যটন খাতে বিদেশি বিনিয়োগ হবে এবং ২০৩০ সাল নাগাদ পর্যটন ৩% থেকে বেড়ে ১০ শতাংশে পৌঁছাবে।
এসব পদক্ষেপ সৌদি প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের অর্থনৈতিক সংস্কার প্রক্রিয়ার অংশ - যার মধ্য দিয়ে দেশটির তেলের ওপর নির্ভরতা কমানোর চেষ্টা চলছে।
২০১৭ সালেই সৌদি আরব দক্ষিণাঞ্চলীয় লোহিত সাগর তীরবর্তী ৫০টি দ্বীপে বিলাসবহুল অবকাশ কেন্দ্র গড়ে তোলার কথা ঘোষণা করে।
আর রাজধানী রিয়াদের কাছে কিদ্দিয়া নামে একটি বিনোদন ও মোটরস্পোর্ট কেন্দ্র তৈরির কাজ শুরু হয়েছে সম্প্রতি।
বিবিসির সংবাদদাতা ফ্যাংক গার্ডনার বলছেন, ২০০০ সালেও দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ আসিরে জুনিপার বন-সমৃদ্ধ পার্বত্য এলাকায় পর্যটন সুবিধা চালু হয়েছিল। তবে ৯/১১র সন্ত্রাসী হামলার পর পরিস্থিতি পাল্টে যায়।

তিনি বলছেন, লোহিত সাগরতীরবর্তী আসির এলাকায় গরমের সময় স্থানীয়রা বেড়াতে যায়। এখানকার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য অসাধারণ, তবে এটা সৌদি আরব - তাই এক গ্লাস ককটেল নিয়ে সন্ধ্যে উপভোগের চিন্তা না করাই ভালো।



 

Show all comments
  • নঈম ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১১:২২ পিএম says : 0
    লেখা পড়তে অনেক সমস্যা হয় দয়া করে লেখা ঠিক করবেন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ