Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২০ জানুয়ারি ২০২১, ০৬ মাঘ ১৪২৭, ০৬ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বিসিবি থেকেও লোকমানকে অপসারণের দাবি

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১০:০০ পিএম

অবৈধ ক্যাসিনো চালানোর দায়ে শুধু ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব থেকেই নয়, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকেও লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার অপসারণের দাবি জানিয়েছেন মোহামেডানের সাবেক তারকা খেলোয়াড় ও সংগঠকরা। শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাবেক খেলোয়াড় ও সংগঠকদের পক্ষে এ দাবি তোলেন মোহামেডানের স্থায়ী সদস্য, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সহ-সভাপতি বাদল রায়।

বেশ ক’বছর ধরে মোহামেডানে জমজমাট ক্যাসিনো বাণিজ্য চলেছে। যার রেশ ধরে ক্রীড়াবান্ধব প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে চলা শুদ্ধি অভিযানে গত ২৫ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে মোহামেডানের ডাইরেক্টর ইনচার্জ লোকমান হোসেন ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। লোকমান গ্রেফতার হওয়ার পর এই প্রথম মোহামেডান ক্লাব সংশ্লিষ্টরা আনুষ্ঠানিকভাবে মুখ খুললেন। যারা লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার দাপটে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে ক্লাবে প্রবেশ করতে পারছিলেন না। কাল তারা একাট্টা হয়ে সাংবাদিকদের সামনে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেন।

সংগঠক ফজলুর রহমান বাবুলের পরিচালনায় সম্মেলনে মূল বক্তব্য দেন মোহামেডান তথা জাতীয় দলের সাবেক তারকা ফুটবলার বাদল রায়।

তিনি বলেন,‘আমরা এখানে যারা এসেছি সবাই মোহামেডানকে মনেপ্রাণে ভালোবাসি। মোহামেডানকে লোকমান ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছেন। খেলাধুলায় সাফল্য তো নেই-ই, বরং ক্লাবের ঐতিহ্য ও ভাবমূর্তি লোকমান নষ্ট করেছেন ক্যাসিনোর মতো জুয়ার আসর বসিয়ে।’

লোকমান বিসিবি’র একজন প্রভাবশালী পরিচালকও। তাই বাদল সেখান থেকেও লোকমানকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমপি’র উদ্দেশ্যে বলেন,‘ক্রিকেট বোর্ড সভাপতির কাছে আমরা অনুরোধ করছি। লোকমানকে বিসিবি থেকেও বহিষ্কার করা হোক। পাশাপাশি আমাদের মোহামেডান ক্লাবে আর তার কোনো স্থান নেই।’ লোকমানের প্রতি অভিযোগ এনে বাদল রায় আরো বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ছবি নামিয়ে ভেঙেছিল এই লোকমান। তার উপযুক্ত শাস্তি হওয়া দরকার।’

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে লোকমান স্বীকার করেছেন, প্রায় দু’বছরের বেশী সময় ধরে মোহামেডানে ক্যাসিনো পরিচালনা করে কোটি কোটি টাকা আয় করেছেন তিনি। একই সঙ্গে জানিয়েছেন ক্যাসিনো ও জুয়ার বোর্ড থেকে আয়ের ৪১ কোটি টাকা তিনি রেখেছেন অস্ট্রেলিয়ার দু’টি ব্যাংকে। অথচ বিসিবি সভাপতি বলছেন, লোকমানের বন্ধু হলেও তিনি জানতেন না সে মোহামেডানে ক্যাসিনো চালাতো। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বাদল রায় কড়া সমালোচনা করেন পাপনের। তিনি বলেন, ‘পাপন সাহেব দেশের ক্রীড়াঙ্গনের একজন অভিভাবক। লোকমান প্রসঙ্গে তার কাছ থেকে এমন মন্তব্য আশা করিনি। কই বিসিবি সভাপতির ক্লাবে তো ক্যাসিনো চলেনা। মোহামেডানে চলবে কেন? তাহলে কি ধরে নেয়া যায় না, কারো মদদে আমাদের প্রাণের ক্লাবকে ধ্বংস করতেই এমন কাজ করেছেন লোকমান! ’

বাদল রায় ছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সাবেক তারকা ফুটবলার ইমতিয়াজ সুলতান জনি, আব্দুল গাফফার, কায়সার হামিদ,সৈয়দ রুম্মন বিন ওয়ালী সাব্বির, ছাইদ হাসান কানন, ইলিয়াস হোসেন, শফিকুল ইসলাম মানিক, রিয়াজ, ইমতিয়াজ আহমেদ নকীব, মোহামেডানের সাবেক অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক মোস্তাকুর রহমান,সংগঠক সাজেদ এ এ আদেল, তরিকুল ইসলাম টিটো সহ আরো অনেকে।

তাদের পরবর্তী কর্মসূচি রোববার বিকেলে ক্লাবে অবস্থান এবং সোমবার সকালে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন