Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

চাপিয়ে দেওয়ার কোচিং বানিজ্য বন্ধ করতে হলে প্রয়োজন সবার অংশগ্রহণ শিক্ষামন্ত্রী দীপু

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:০১ পিএম

অন্যায়ভাবে চাপিয়ে দেওয়ার অংশটুকু (কোচিং বানিজ্য) বন্ধ করতে হলে সবার অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলে মন্ত্রব্য করেছেন সিলেট সফররত শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি। নগরীর জিন্দাবাজারে অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল কার্যক্রম উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এমন কথা বলেন তিনি। এক দিনের সফরে সিলেট শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি। রবিবার মন্ত্রী বিমানযোগে বেলা পৌণে ১২টায় সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌছন তারা। সেখানে তাদেরকে স্বাগত জানান স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। এরপর নেতাকর্মীদের নিয়ে শাহজালাল (রহ.) ও শাহপরাণ (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করেন দুই মন্ত্রী সহ অন্যরা। সিলেটে কয়েকটি অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিমান যোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে সিলেট ত্যাগ করবেন তারা। এরমধ্যে নগরীর জিন্দাবাজারে অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাথে মিড-ডে মিল খেয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে সিলেট অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সিলেট বিভাগের ১৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মিড-ডে মিল কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন হওয়া ১৪টি বিদ্যালয়ের মধ্যে সিলেটে ২, মৌলভীবাজারে ৩, হবিগঞ্জে ৪ এবং সুনামগঞ্জের ৫টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এদিকে, বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু করার পরপরই শিক্ষার্থীদের পাশে বসে খাবার খেয়েছেন তিনি। এসময় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষার মানোন্নয়নে স্কুল ফিডিং নীতিমালার আওতায় সরকারের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পর মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর মিড-ডে মিল চালু করেছে। শিশুদের স্কুলমুখী করতে প্রতি মিলের জন্য আগ্রহী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনূর্ধ্ব ২০ টাকা গ্রহণ করা যাবে। প্রতিষ্ঠানে স্বাস্থ্য সম্মত রান্নার জায়গা এবং রান্না পরিবেশন করার জনবলের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে বলে জানান মন্ত্রী। এছাড়া রবিবার দুপুরে সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে মিড ডে মিল কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এখন কোনো সেশন জট নেই। কোথাও কোথাও কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা ইস্যুতে ছোটখাটো আন্দোলন আছে, কিছু দাবিদাওয়া আছে। যখনই যেখানে যে সমস্যা আছে, আমরা তখনই দ্রুততার সঙ্গে সেগুলো মোকাবেলা করছি, আলাপ আলোচনা করছি, সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছি। এখন যেখানে যেখানে যে সমস্যাগুলো আছে, সেই সমস্যাগুলোও খুব শিগগিরই আমরা নিরসন করতে পারবো।’ এছাড়া শিক্ষায় কোচিং বাণিজ্য নিয়েও কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, ‘কোচিং বাণিজ্য এমন একটি বিষয়, এটি সুইচ টিপে চালু আর সুইচ টিপে বন্ধ করা যায় না। এটি বন্ধের ক্ষেত্রে সরকারের যেমন সদিচ্ছা আছে, তেমনি আমাদের সকলের সদিচ্ছা থাকতে হবে। শিক্ষকদের, অভিভাবকদের সদিচ্ছা থাকতে হবে, প্রশাসনের সদিচ্ছা থাকতে হবে।’ মন্ত্রী বলেন, ‘কোচিং পুরোটি বন্ধ করে দেওয়ার বিষয় নয়। অনেক শিক্ষার্থী আছে যাদের দুর্বলতা আছে কোথাও, তাদের কোচিং প্রয়োজন আছে। সারাবিশ্বেই কোচিং হয়। কিন্তু যেখানে কোনো শিক্ষক নিজ শিক্ষালয়ে শিক্ষাদান না করে তার নিজের স্কুলের শিক্ষার্থীদেরকে বাধ্য করেন তার কাছে অর্থের বিনিময়ে পড়তে, সেই বাণিজ্য অংশটুকু, অন্যায়ভাবে চাপিয়ে দেওয়ার অংশটুকু বন্ধ করতে হলে সবার অংশগ্রহণ প্রয়োজন। এ নিয়ে আদালতে একটি মামলা ছিল, সেটির রায়ও আমরা পেয়েছি।’
এসময় উপস্থিত ছিলেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য ও সাবেক সিসিক মেয়র বদর উদ্দিন কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন, কোতোয়ালী থানার ওসি সেলিম মিয়া প্রমুখ।াপরদিকে, সিলেটে মিড-ডে মিল’র আওতায় আসছে ৬২২ বিদ্যালয়। অপরদিকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা সিলেট আঞ্চলিক উপ-পরিচালকের কার্যালয় সুত্র জানায়, সিলেট অঞ্চলে এ পর্যন্ত ৬২২টি মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মিড-ডে মিল কার্যক্রম চালু হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ২৬২টি, সুনামগঞ্জে ৬৮টি, মৌলভীবাজার জেলায় ১১৬টি এবং হবিগঞ্জ জেলায় ১৭৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।



 

Show all comments
  • আশিক ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:৫৭ পিএম says : 0
    কোচিং বানিজ্য বন্ধ করতে হবে। স্যারেরা ক্লাসে পড়ায়না। ক্লাসে গল্প করে, কোচিংয়ে একটু পড়ায়।
    Total Reply(0) Reply
  • আশিক ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:৫৭ পিএম says : 0
    কোচিং বানিজ্য বন্ধ করতে হবে। স্যারেরা ক্লাসে পড়ায়না। ক্লাসে গল্প করে, কোচিংয়ে একটু পড়ায়।
    Total Reply(0) Reply
  • আশিক ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৬:৫৮ পিএম says : 0
    কোচিং বানিজ্য বন্ধ করতে হবে। স্যারেরা ক্লাসে পড়ায়না। ক্লাসে গল্প করে, কোচিংয়ে একটু পড়ায়।
    Total Reply(0) Reply
  • Nadim ahmed ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১০:০৬ পিএম says : 0
    Our education system and level are destroyed because of Chatra League, the curse, the desease of our education. Please destroy and get this desease (Chatro league) out of our country, everything will be okay Inshaa Allah.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ