Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

চীন-বাংলাদেশের মধ্যে যৌথ বিনিয়োগ প্রস্তাব শিল্পমন্ত্রীর

প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম

কর্পোরেট রিপোর্টার
চীন-বাংলাদেশের মধ্যে যৌথ বিনিয়োগ প্রস্তাব করেছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। একই সঙ্গে বাংলাদেশ থেকে দক্ষ ও আধাদক্ষ জনশক্তি আমদানির জন্য চীনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, চীনে শ্রমিকের মজুরি ব্যাপকহারে বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশ থেকে শ্রমশক্তি আমদানির সুযোগ রয়েছে। তিনি বাংলাদেশে উন্নতমানের শিল্পপণ্য উৎপাদনের লক্ষ্যে চীনের উন্নত প্রযুক্তি স্থানান্তর এবং মানব সম্পদ প্রশিক্ষণের জন্য যৌথ বিনিয়োগের প্রস্তাব করেন। চীনের ইউনান প্রদেশের গভর্নর চেং হাউ-এর সাথে বৈঠককালে শিল্পমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। কুনমিং ইন্টারন্যাশনাল এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য উলে¬খ করা হয়েছে। বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী বাংলাদেশে চিনি, কাগজ ও সার কারখানার আধুনিকায়নে সরাসরি কিংবা যৌথ বিনিয়োগে চীনা উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে গভর্নরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। জ্বালানি সাশ্রয়ী বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম উৎপাদন, বিএসটিআইর আধুনিকায়ন, রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলগুলোর উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি, আধুনিক পদ্ধতিতে মৌ-চাষ এবং পরিবেশবান্ধব শিপ-রিসাইক্লিং শিল্পখাতে চীনের প্রযুক্তিগত সহায়তা কামনা করেন। বৈঠকে গভর্নর চেং হাউ বলেন, কুনমিং প্রদেশের শিল্প উদ্যোক্তারা বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পসহ উদীয়মান শিল্পখাতে বিনিয়োগে আগ্রহী। দ্বিপাক্ষিক বিনিয়োগ ও বাণিজ্য প্রসারের মাধ্যমে বাংলাদেশের উদীয়মান অর্থনীতির অংশীদার হতে চীন সব ধরনের সহায়তা দেবে বলে তিনি জানান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চীন-বাংলাদেশের মধ্যে যৌথ বিনিয়োগ প্রস্তাব শিল্পমন্ত্রীর
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ