Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ সফর ১৪৪১ হিজরী

রাজনীতিকদের মুক্তির সিদ্ধান্ত কাশ্মীরে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

ভারতীয় সরকারি স‚ত্রগুলো বলেছে, জম্মু অঞ্চলটি শান্তিপ‚র্ণ হওয়ায় নির্বাচনের আগে রাজনীতিকদের মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এনডিটিভির খবরে বলা হয়, জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার প্রায় দুই মাস পর জম্মুর গৃহবন্দি সব রাজনীতিককে মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় প্রশাসন। কিন্তু কাশ্মীর উপত্যকার রাজনীতিকদের বন্দিত্ব বজায় রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম। ভারতীয় কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জম্মুর যেসব নেতা গৃহবন্দি ছিলেন তাদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে এবং তাদের বিরুদ্ধে আরোপ করা বিধিনিষেধ তুলে নেওয়া হয়েছে। কয়েকদিন আগে পঞ্চায়েতরাজ ব্যবস্থার দ্বিতীয় পর্যায় বøক উন্নয়ন কাউন্সিলের নির্বাচন ঘোষণা করেছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রধান নির্বাচনী কর্মকর্তা, এই কারণেই স্থানীয় রাজনীতিকদের মুক্তি দেওয়ার এই সিদ্ধান্ত। জম্মুর মুক্তি পাওয়া নেতাদের মধ্যে দেভেন্দ্রর সিং রানা, রমন ভল্লা, হার্শদেব সিং, চৌধুরি লাল সিং, ভিকর রাসুল, জাভেদ রানা, সুরজিত সিং সøাথিয়া ও সাজ্জাদ আহমেদ কিচলু উল্লেখযোগ্য। ন্যাশনাল কনফারেন্সের দেভেন্দ্রর রানা এনডিটিভিকে বলেছেন, “আমার চলাচলে কোনো বিধিনিষেধ থাকবে না বলে গত সন্ধ্যায় এক পুলিশ কর্মকর্তা আমাকে জানিয়েছেন।” জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে একে দুটি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে ভাগ করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরই রাজ্যটিকে নিরাপত্তার ঘেরাটোপে বন্দি করে ফেলে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। এর অংশ হিসেবেই জম্মু ও কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি, ওমর আবদুল্লাহ ও ফারুক আবদুল্লাসহ প্রায় ৪০০ রাজনীতিককে আটক অথবা গৃহবন্দি করা হয়। এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ