Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ০৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

ধর্মীয় বিভাজন সৃষ্টির বিরুদ্ধে হুশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্টের

প্রকাশের সময় : ১৬ জুন, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১১:৩৬ পিএম, ১৫ জুন, ২০১৬

ইনকিলাব ডেস্ক : মুসলিমবিদ্বেষী বলে ইতোমধ্যে পরিচিতি পাওয়া রিপাবলিকান দলীয় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে একহাত নিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি মুসলমানদের গণহারে ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে উপস্থাপনের তীব্র সমালোচনা করে বলেছেন, ট্রাম্প অপ্রয়োজনীয় বিপজ্জনক মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন, যা আমেরিকার ইতিহাসের অন্ধকারতম অধ্যায়ের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। খবর দি নিউইয়র্ক টাইমস।
মঙ্গলবার ওবামা বলেন, আমরা ট্রাম্পের যে ভাষা শুনেছি তা অভিবাসীদের বিভাজিত করে এবং বোঝায় যে গোটা মুসলিম সম্প্রদায়ই সহিংসতায় লিপ্ত। মার্কিন অর্থ দফতরে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে আমেরিকার লড়াইয়ের অবস্থা সম্পর্কে তার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সাথে এক বৈঠকের পর ওবামা এ কথা বলেন। এ বৈঠকে ওরল্যান্ডো হত্যাকা-ের আলোচনা প্রাধান্য পায়। প্রেসিডেন্ট ওবামা ট্রাম্পের বক্তব্য উল্লেখ করে বলেন, তিনি যুক্তরাষ্ট্রে মুসলমানদের প্রবেশ বন্ধ করার প্রস্তাব করেছেন। ওবামা বলেন, এর শেষ কোথায়? তিনি বলেন, আগের ক্যালিফোর্নিয়ার সান বার্নার্ডিনো ও টেক্সাসের ফোর্ট হুডের সন্ত্রাসী হামলার অপরাধীদের মতো ওরল্যান্ডো হামলার খুনিও একজন আমেরিকান নাগরিক।
তিনি প্রশ্ন করেন, আমরা কি সকল মুসলিম-আমেরিকানের সাথে পৃথক আচরণ করতে যাচ্ছি? আমরা কি তাদের বিশেষ নজরদারির শিকার করতে যাচ্ছি? তাদের ধর্মবিশ্বাসের কারণে কি তাদের বিরুদ্ধে বৈষম্য শুরু করতে যাচ্ছি? ট্রাম্পের সর্বাপেক্ষা সরাসরি নিন্দায় তার কণ্ঠস্বর ক্রমেই চড়া হচ্ছিল। তিনি প্রশ্ন করেন, রিপাবলিকান কর্মকর্তারা কি আসলেই ট্রাম্পের সাথে একমত?
প্রেসিডেন্ট ওবামা দৃঢ়তার সাথে ইসলামিক স্টেটের [যারা ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড সিরিয়া (আইসিস) বা ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড লেভান্ট (আইসিল) নামেও পরিচিত] বর্ণনায় ‘চরমপন্থী ইসলাম’ শব্দটি ব্যবহারে তার অস্বীকৃতি জানান। আর সেজন্য ট্রাম্প ও অন্য রিপাবলিকানদের সমালোচনাও তিনি প্রত্যাখ্যান করেন। ওবামা বলেন, আমরা আমাদের শত্রুদের ব্যাপারে বিভ্রান্ত বলে যদি কেউ ভেবে থাকে, তা হাজার হাজার সন্ত্রাসীর কাছে বিস্ময়কর মনে হবে যাদের আমরা যুদ্ধক্ষেত্রে নিধন করেছি। তিনি বলেন, ‘চরমপন্থী ইসলাম’ প্রবাদের মধ্যে কোনো জাদু নেই। এটি একটি রাজনৈতিক আলোচনার বিষয়, কোনো কৌশল নয়।
প্রেসিডেন্ট বলেন, তিনি এ শব্দটি ব্যবহার করেন না, কারণ তিনি ইসলাম ও পাশ্চাত্যের মধ্যে পবিত্র যুদ্ধের নেতা হিসেবে নিজেদের স্বপ্নে ইসলামিক স্টেটকে বিজয়ী হতে দিতে চান না।  
তিনি বলেন, আমরা যদি সকল মুসলিমকে মোটা দাগে চিত্রিত করার ফাঁদে পা দিই এবং প্রদর্শন করি যে আমরা গোটা ধর্মের সাথেই যুদ্ধে নিয়োজিত, তাহলে তাদের জন্য সন্ত্রাসীদের কাজটাই করা হবে।
রোববার সকালে অরল্যান্ডো হত্যাকা-ে বেঁচে যাওয়া লোজন ও নিহতদের পরিবারদের সাক্ষাতের জন্য প্রেসিডেন্ট ওবামা আজ বৃহস্পতিবার সেখানে যাবেন।    
মঙ্গলবার ওবামা অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা বলবত করার জন্য কংগ্রেসের প্রতি আহ্বান জানান।     
এএফপির খবরে বলা হয়, মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওবামা ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প ও অন্য রিপাবলিকানরা মুসলমানদের ব্যাপারে দায়িত্বজ্ঞানহীন কথাবার্তা বলে আমেরিকার মূল্যবোধের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা ও উগ্রপন্থার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষতি করছেন।



 

Show all comments
  • wasim ali ১৬ জুন, ২০১৬, ৪:৪২ এএম says : 0
    I salute Obama, your words is right,Tramp is 2 nd Hitler.If he is able to be the president of America,3 rd world wald war will be occurred which may dangerous for American world policy.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন