Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

কাশ্মির ইস্যুতে চীন যেন অনধিকার চর্চা না করে : ভারত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০১৯, ২:৩০ পিএম

ভারত অধিকৃত কাশ্মিরে বিষয়ে চীনের সম্প্রতি একটি মন্তব্যের সমালোচনা করেছে দিল্লি। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রাবিশ কুমার বলেছেন, জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। দিল্লি সেখানে যে ব্যবস্থা নিয়েছে তা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাছাড়া পাকিস্তান ও ভারত দুই দেশ আলোচনার ভিত্তিতে কাশ্মির সংকটের সমাধান করবে। এ নিয়ে চীন যেন অনধিকার চর্চা না করে।
সম্প্রতি ইসলামাবাদে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত বলেছিলেন, কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে রয়েছে বেইজিং। তার ওই মন্তব্যের জবাবেই এমন প্রতিক্রিয়া জানালেন ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র। আগামী ১১ই অক্টোবর ভারতে সফরের কথা রয়েছে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং-এর। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উপস্থিতিতে একটি সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে তার। তার আগে কাশ্মির নিয়ে চীনের রাষ্ট্রদূতের মন্তব্য ও নয়াদিল্লির প্রতিক্রিয়া তাৎপর্যপূর্ণ বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে।
গত শুক্রবার ইসলামাবাদে কাশ্মির ইস্যুতে কথা বলেন চীনা রাষ্ট্রদূত ইয়াও জিং। তিনি বলেন, ‘কাশ্মিরিদের মৌলিক অধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠা ও ন্যায় বিচারের দাবিতে আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি। কাশ্মির সমস্যার যৌক্তিক সমাধান হওয়া উচিত। এই ইস্যুতে এবং আঞ্চলিক শান্তির লক্ষ্যে পাকিস্তানের পাশে রয়েছে চীন।’ গত সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সাধারণ সভায় কাশ্মির ইস্যু উত্থাপন করে বেইজিং। ভারত সরকার কর্তৃক অধিকৃত কাশ্মিরের সাংবিধানিক মর্যাদা বাতিলের পর চীনের প্রস্তাব অনুযায়ী, নিরাপত্তা পরিষদে এ নিয়ে আলোচনা হয়।
চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং জি জাতিসংঘে দেওয়া ভাষণে বলেন, ‘কাশ্মির নিয়ে অতীত থেকেই সমস্যা রয়েছে। জাতিসংঘের সনদ মেনেই এর সমাধান হওয়া উচিত। একতরফাভাবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত নয়। ভারত ও পাকিস্তান; উভয়ের প্রতিবেশী হিসাবে চীন কাশ্মির সমস্যার যৌক্তিক সমাধান ও আঞ্চলিক শান্তি দেখতে আগ্রহী। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর


আরও
আরও পড়ুন