Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আড়াইহাজারে ভাবিকে ধর্ষণ করতে গিয়ে দেবরের লিঙ্গ কর্তন

আড়াইহাজার ( নারায়ণগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:৪৮ পিএম

নিজের ভাবিকে ধর্ষণ করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গ হারিয়েছে এক দেবর। শনিবার দিবাগত রাতে আড়াইহাজার উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া বুরুমদীপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃস্টি হয়েছে। মূমুর্ষূ অবস্থায় দেবর মনির (৩০) কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত সাদেকুর রহমানের ছেলে তাজুল ইসলাম দীর্ঘ ৬ বছর ধরে দুবাই প্রবাসে আছে। তার দুই সন্তান সহ স্ত্রী সুমাইয়া বাড়ীতেই থাকে। সুমাইয়ার দেবর মনির (৩০) দীর্ঘ দিন যাবত সুমাইয়ার সাথে অনৈতকি সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। শনিবার রাতে সে ঘুমন্ত অবস্থার সুমাইয়াকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করতে যায়। এ সময় সুমাইয়া আগে থেকে প্রস্তুত রাখা ধারালো ব্লেড দিয়ে মনিরের পুরুষাঙ্গ কেটে নেয়। ঘটনাটি জানতে পেরে বাড়ীর লোকজন দ্রুত তাকে প্রথমে আ্ড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে আনে এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।
আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাঃ মনিরুজ্জামান জানান, লিঙ্গটি দেড় থেকে ২ সেন্টিমিটার পরিমাণ কাটা গেছে এবং প্রচুর রক্ত ক্ষরণ হয়েছে । তাকে এ হাসপাতালে আনলে অবস্থা খারাপ হওয়ায় আমরা ঢাকায় প্রেরণ করি।

সুমাইয়া জানান, আমার দেবর আমাকে দীর্ঘ দিন ধরে উত্যাক্ত করে আসছে। আমি বাধ্য হয়ে এই কাজ করছি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আলমগীর হোসেন জানান, ঘটনা সত্য। আমরা এলাকাবাসি সম্ভাব্য কোন অঘটনের আশংকায় মহিলাকে নজরদারীতে রেখেছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে তিনি কোন লিখিত অভিযোগ পায়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ