Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

হকির সিরিজে সৌহার্দ্যরে বারতা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:৪৩ এএম

বাংলাদেশ এবং ওমান যুব দলের পাঁচ ম্যাচের হকি সিরিজ শুরু হচ্ছে আজ থেকে। সিরিজে একমাত্র ভেন্যু মওলানা ভাসানী জাতীয় হকি স্টেডিয়ামে বিকেল সাড়ে ৪টায় শুরু হবে প্রথম ম্যাচটি। এই সিরিজকে সামনে রেখে গতকাল ঢাকায় পৌঁছেছে ওমান যুব দল। এটি দু’দেশের মধ্যে একটি সৌহার্দ্যপূর্ণ সিরিজ। সিরিজ শেষে বাংলাদেশ দলও ওমানে যাবে খেলতে। গতকাল বিকেলে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের (বাহফে) সভা কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তথ্যটি জানান বাহফে’র সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ শিকদার। এ সময় বাংলাদেশ দলের কোচ মামুন-উর রশিদ, প্রথম ম্যাচের অধিনায়ক ও পেনাল্টি কর্ণার মাস্টার আশরাফুল ইসলাম এবং সিরিজের টাইটেল স্পন্সর ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন উপস্থিত ছিলেন।
আগামী বছর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি টুর্নামেন্ট। কেবল এশিয়া কাপই নয়, ওই প্রতিযোগিতাটি বিশ্বকাপের বাছাইও। তাই বড় ওই আসরকে সামনে রেখে গত জুলাই মাস থেকেই অনুশীলন শুরু করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২১ হকি দল।
রশিদ শিকদার বলেন, ‘আগে এই টুর্নামেন্টের নাম ছিল এয়ার এশিয়া কাপ জুনিয়র হকি। তবে আমরা স্বত্ব কিনে নিয়েছি বঙ্গবন্ধুর নামে। আগামী বছর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য বঙ্গবন্ধু জুনিয়র এশিয়া কাপ ও জুনিয়র বিশ্বকাপ বাছাইকে ঘিরে যুব দলের দুই মাসের প্রস্তুতি যাচাই করতে সাহায্য করবে ওমানের বিপক্ষে সিরিজ।
কোচ মামুন-উর রশিদ বলেন, ‘জুলাইয়ে ১১০ জনকে নিয়ে শুরু হয়েছিল এই ক্যাম্প। কয়েক দফা বাছাই শেষে খেলোয়াড় সংখ্যা ৩৬ জনে নামিয়ে আনা হয়েছে। তবে এই টুর্নামেন্টে খেলবে ২৪ জন। তাই ৩৬ জন থেকে ২৪ জনকে বাছাই করা হয়েছে।’ তিনি যোগ করেন, ‘পাকিস্তানে চারটি ম্যাচ খেলে সরাসরি ঢাকায় এসেছে ওমান। সেখানে তিনটি ম্যাচে ৭-০, ৬-০ ও ৪-০ গোলে হেরেছে তারা। একটি ম্যাচে ৪-৪ গোলে ড্র করেছে। ওই ম্যাচগুলো আমি দেখেছি। ওমানের দুর্বল দিকগুলো সম্পর্কে ছেলেদের নির্দেশনা দেয়া হবে।’ সিরিজ ম্যাচ নিয়ে কোচের কথা, ‘আমরা ভালো প্রস্তুতি নিয়েছি। স্থানীয়ভাবে দু’চারটি ম্যাচও খেলেছি। দলের ২৪ জনের মধ্যে পাঁচজনের জাতীয় দলে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। বাকি ১৯ জন নতুন।’
প্রতিপক্ষ ওমান সম্পর্কে বাংলাদেশ কোচের কথা, ‘সিনিয়র বিভাগে ওমান সত্যিই শক্তিশালী দল। বাংলাদেশ জাতীয় দলও হিমশিম খায় তাদের সামনে। তবে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে আমরা বরাবরই তাদের হারিয়েছি। ২০১৫ সালে এএইচএফ কাপ টুর্নামেন্টে ওমানকে গ্রুপ পর্বে ৭-০ এবং ফাইনালে ৪-০ গোলে হারিয়েছিলাম। এবারের সিরিজেও আমরা জয়ের প্রত্যাশা করছি।’
জুনিয়র এশিয়া কাপ নিয়ে কোচ মামুন বলেন, ‘আগামী বছর টুর্নামেন্টের আগ পর্যন্ত আমরা ২৫ থেকে ৩৫টি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে চাই। তাহলে ছেলেরা নিজেদের স‘মস্যাগুলো শুধরে নিতে পারবে এবং টুর্নামেন্টে ভালো করতে পারবে।’
তবে সিরিজের ফল কিংবা লড়াই ছাপিয়ে স্মৃতির ভেলায় চড়ে এলেন ওমান কোচ তাহির জামান। কেননা পাকিস্তানের এই তারকা খেলোয়ার এক সময় খেলে গেছেন বাংলাদেশেও। গতকাল সেই প্রসঙ্গ টেনে বললেন, ‘দীর্ঘ দিন পর বাংলাদেশে এসে ভালো লাগছে। চোখের সামনে ভেসে উঠছে অসংখ্য স্মৃতি। এই টেস্ট সিরিজ যতটা ফলাফলের উপর নির্ভরশীল তার চাইতে সৌহার্দ্যরে বারতাই ছড়াবে বেশি। যাতে দু’দেশের হকিকে আরে বেগবান করবে বলে আমি মনে করি।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ