Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

বিপিএলের দিকে তাকিয়ে খালেদ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:৩৫ এএম

অবসরে বাড়িতে বসে টিভি দেখছিলেন পেসার সৈয়দ খালেদ আহমেদ, হঠাৎ পায়ে টান লেগে যায়। একটু জোর করে পা সোজা করতে গিয়ে ছিঁড়ে যায় লিগামেন্টই। রোজার ঈদের আগে পাওয়া সেই চোট এখনো সেরে ওঠেনি। মুম্বাইয়ে গত জুলাইয়ে খালেদের হাঁটুরর মিনিসকাসে অস্ত্রোপচার করানো হয়। তার পর থেকেই আছেন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায়। এরমধ্যে জাতীয় দল, ‘এ’ দল, এইচপি দলে বেশ কিছু খেলা মিস হয়েছে, খেলতে পারছেন না জাতীয় লিগেও। হতাশার মাঝে নীরবেই চলছে তার ফেরার লড়াই।

গতকাল ছুটির দিনেও মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাওয়া গেল বাংলাদেশের হয়ে ২ টেস্ট খেলা এই পেসারকে। বিসিবির ফিজিও বায়েজিদুল ইসলামের সঙ্গে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যে আছেন তিনি। আপাতত জিম, রানিং, ওয়েট লিফটিং, স্কোয়াট, লেগ প্রেস এসবই চলছে তার। আরও মাস দুয়েক তা চলবে। এরপরই হাতে নিতে পারবেন বল, ‘এখন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় আছি, এর শেষ বলতে কিছু নেই। ভালো হয়ে গেলে এটা চালিয়ে যেতে হবে। আলহামদুলিল্লাহ এখন ৭০ ভাগ ঠিক আছি।’
মে মাসে ছিল রোজা। রোজার সময় ক্যাম্পেই ছিলেন। ঈদের আগে ছুটি নিয়ে বাড়িতে গিয়েই বাধান চোট। জানালেন হয়ত পানি শূন্যতায় হয়েছে এমন বিপত্তি, ‘রোজার মধ্যে ছিলাম, হতে পারে সেহরির সময় পানি কম খেয়েছি। না বুঝেই সোজা টান দিয়েছিলাম, তখনই চোটে পড়ি।’ নভেম্বরের শেষ দিকের আগে বল হাতেই নিতে পারছেন না, তারমানে জাতীয় লিগের পুরোটাই মিস করছেন। নভেম্বরে ভারত সফরের দলেও বিবেচিত হওয়ার সুযোগ নেই তার। গতি আর বাউন্স দিয়ে নজরকাড়া এই পেসার ফেরার আশা করছেন বিপিএলে, ‘নভেম্বরের শেষের দিকে আমাকে ছাড় দিবে, আশা করছি এর মধ্যে সব শেষ হয়ে যাবে। এরপরই বোলিং শুরু করবো। বিপিএল হলে, বিপিএল দিয়ে ফেরার আশা করছি।’
এখন পর্যন্ত দুটি টেস্ট খেলে সেভাবে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি ২৭ বছর বয়সী এই পেসার। তিন ইনিংসে বোলিং করে পাননি উইকেট। ভেবেছিলেন জাতীয় লিগে বোলিং নিয়ে কাজ করে ফিরবেন আরও ধারাল হয়ে। ম্যাচের পর ম্যাচ বাইরে থাকাটা পোড়াচ্ছে তাকে। তবে পুনর্বাসন ঠিক পথে চলায় আশার ঝিলিকও মিলছে। জাতীয় দলের নতুন ফিজিও জুলিয়ান ক্যালিফাতোর সঙ্গে আজ মিটিং করবেন। এরপর তার পরামর্শেই চালাবেন ফেরার লড়াই।
একাডেমি মাঠে খালেদের সঙ্গে ছিলেন খুলনার পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ডে খেলতে গতকালই খুলনায় চলে গেছেন বাঁহাতি এই পেসার। দুই জনে গল্প করছিলেন জাতীয় লিগ নিয়ে। এই টুর্নামেন্টে ভালো করেই নজর কাড়েন খালেদ। পরে বিসিএলে ভালো করে জায়গা করে নেন জাতীয় দলে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন