Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে মর্মাহত যুক্তরাজ্য

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:৩৫ পিএম

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় বিস্মিত ও মর্মাহত হয়েছে যুক্তরাজ্য। আজ বুধবার (০৯ অক্টোবর) ঢাকার যুক্তরাজ্য হাইকমিশন এক বার্তায় এই প্রতিক্রিয়া জানায়।

বার্তায় বলা হয়, বুয়েটে ঘটে যাওয়া ঘটনায় আমরা বিস্মিত ও মর্মাহত। যুক্তরাজ্য বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রসঙ্গে নিঃশর্তভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ।

গেল রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ১০ জনকে মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

ভারতের সঙ্গে সাম্প্রতিক কয়েকটি চুক্তি নিয়ে ফেসবুকে মন্তব্যের সূত্র ধরে শিবির সন্দেহে আবরারকে ডেকে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রোববার রাতে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেন বলে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ। ওই ঘটনায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ গ্রেফতার দশজনকে মঙ্গলবার পাঁচদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সাংগঠনিক তদন্তের ভিত্তিতে আগের রাতেই বুয়েট ছাত্রলীগের ১১ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করার কথা জানিয়েছে।



 

Show all comments
  • Delwar Hossain Sayeed ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:৪৬ পিএম says : 0
    2006 সালে 28 শে অক্টোবর প্রকাশ্য রাজপথে পিটিয়ে হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল জাতিসংঘ তা দেখেনাই
    Total Reply(0) Reply
  • Md Balal ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:৪৬ পিএম says : 0
    এদেশে বিচার নাই
    Total Reply(0) Reply
  • Abu Raihan ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:৪৬ পিএম says : 0
    সাধুবাদ আপনাদের
    Total Reply(0) Reply
  • Md Rashed ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:৪৭ পিএম says : 0
    জাতিসংঘের হায়াত দারাজ করুন।আমিন।
    Total Reply(0) Reply
  • A Khanom ৯ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:৪৭ পিএম says : 0
    জাতিসংঘ এসব সন্ত্রাসী কার্যকলাপ আগে যদি বন্ধ করতে চাইত।তাহলে এখন বিচার চাওয়া লাগত না।যে দেশে টর্চালসেল বন্ধ করতে পারে না সেই দেশে বিচার হবে না।আসামী পক্ষের আইনজীবী বলে আরবাবের শরীরেএলার্জির দাগ।তাহলে আরবাবকে মনে হয় আইনজীবী হত্যা করেছে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আবরার

১৪ অক্টোবর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ