Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

তারকাহীন আর্জেন্টিনাও উজ্জ্বল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:১৬ এএম

শুরুর দশ মিনিট বলের দখল নিয়ে ঠিকই ছন্দময় ফুটবল উপহার দিল আর্জেন্টিনা। দু’চারটে বিচ্ছিন্ন আক্রমণ করলেও স্কোরারের অভাবে ধরা দেয়নি কাক্সিক্ষত লক্ষ্য। এই সময়টুকুতে নিজেদের গুছিয়ে নিয়েছে জার্মানি। আর তাতে ঠিকই সফল স্বাগতিকরা। মাত্র ৭ মিনিটের ব্যবধানে জোড়া গোল আদায় করে নেন জোয়াকিম লোর শিষ্যরা। সেই চাপ ধরে রেখে ধীরে ধীরে খোলস ছেড়ে বেড়িয়ে শেষ পর্যন্ত হার এড়ায় লিওনেল স্কালোনির দল। গতপরশু রাতে ডর্টমুন্ডের সিগনাল ইদুনা পার্কে সাবেক দুই বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের মধ্যে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে।

জয়ের লক্ষ্যেই আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মাঠে নেমেছিল সাবেক দুই বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা এবং জার্মানি। যদিও দুই দলেই ছিলেন না তারকা ফুটবলাররা। শুরুতে ২ গোলের লিড নিলেও চোট জর্জর স্বাগতিক জার্মানিকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে দেয়নি মেসি, আগুয়েরো, ডি মারিয়াহীন আর্জেন্টিনা। ছন্দময় ফুটবল খেলে হার এড়িয়েছে দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচের ১৫ মিনেটের মাথায় বায়ার্ন মিউনিখের তরুণ ফরোয়ার্ড সার্গেই জিনাব্রি গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। তরুণ এই ফুটবলার ক’দিন আগে বায়ার্নের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে টটেনহ্যামের মাঠে গিয়ে একাই চার গোল করেন। দলকে জেতান ৭-২ গোলের বড় ব্যবধানে। সেই ফর্ম জাতীয় দলের হয়েও দেখান তিনি। ম্যাচের ২২ মিনিটে আবার গোল করে জার্মানি। কাই হাভার্টেজ দলকে ২-০ গোলের লিড এনে দেন। তাকে দারুণ বলের যোগান দেন জিনাব্রি। ওই গোল নিয়েই প্রথমার্ধ শেষ করে জার্মানি। যদিও প্রথমার্ধে গোল করার আরও সুযোগ পায় স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ৬৬ মিনিটের মাথায় পাউলো দিবালার বদলি নামা লুকাস আলারিও গোল করে ব্যবধান কমান। জার্মানির হাভার্টেজের মতো তিনিও জার্মান ক্লাব বায়ার লেভারকুসেনে খেলেন। এরপর ম্যাচের ৮৫ মিনিটে গোল করেন লুকাস অকাম্পোস। লা লিগার ক্লাব সেভিয়ায় খেলা ২৫ বছর বয়সী এই ফুটবলার গোল করে আলবেসেলেস্তেদের হারের লজ্জার হাত থেকে বাঁচান।

ম্যাচে অবশ্য বল দখলের হিসেবে এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা। প্রথমার্ধে শুরুতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ছিল স্কালোনির দলের অধীনে। ঠিক দ্বিতীয়ার্ধের শেষটা আবার নিজেদের নিয়ন্ত্রণে ম্যাচ রাখে আর্জেন্টিনা। শেষ দিকে গোল করে সমতায় ফেরার পাশাপাশি গোল হওয়ার মতো আরও দুটি সুযোগ তৈরি করে তারা। তবে সামগ্রিকভাবে ম্যাচে আক্রমণ বেশি করেছে চারবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন জোয়াকিম লোর জার্মানি।

দলের খেলা নিয়ে সম্ভবত কোন কোচই খুশি নন। দুই গোলে এগিয়ে থেকেও ২-২ গোলের সমতা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে জার্মানির। প্রথমার্ধে দুই গোল খাওয়া লিওনেল স্কালোনির আর্জেন্টিনা হার বাঁচিয়ে মাঠ ছেড়েছে। তাও জার্মানিতে এসে। এজন্য হয়তো শিষ্যদের হাল না ছাড়ার মানসিকতার জন্য কোচের প্রশংসা পাবেন আর্জেন্টিনা ফুটবলারর। কিন্তু প্রথমার্ধে বলের নিয়ন্ত্রন রেখে গোল না করতে পেরে বরং হজম করায় নিশ্চয়ই অখুশি আর্জেন্টিনা কোচও। ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে স্কালোনি বললেন, ‘আমরা দু-তিনটি ভুল করেছি প্রথমার্ধে। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে খেলাটা ধরে ফেলি। ২-০ গোলে পিছিয়ে থেকেও দলের হাল না ছাড়া মানসিকতায় আমি মুগ্ধ। আশা করি এই জয় ভবিষ্যতে আমাদের ইতিবাচক ফল দেবে।’ এগিয়ে থেকেও ড্রয়ে হতাশা লুকননি জার্মান কোচ লো। বলেছেন, ‘আমরা ৯০ মিনিট খেলাটা ধরে রাখতে পারিনি। সাহসিকতা দেখাতে পারিনি। সমস্যায় পড়ে গেলাম।’

এ পর্যন্ত দুই দল মুখোমুখি হলো মোট ২৩ বার। এর মধ্যে আর্জেন্টিনা জিতেছে ১০ বার। জার্মানি জিতেছে ৮ বার। আর ৫টি ম্যাচ ড্র। সবমিলিয়ে মুখোমুখি দেখায় জার্মানির সবচেয়ে বড় জয় ৪-০ গোলে। ২০১০ সালের বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে এই ব্যবধানে হারিয়েছিল জার্মানরা। অপরদিকে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় জয় ৪-২ গোলের ব্যবধানে। সেটা ২০১৪ বিশ্বকাপের পর, আগের প্রীতি ম্যাচে।

এখান থেকে ইকুয়েডরের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচ খেলতে স্পেনে উড়াল দেবে আর্জেন্টিনা। আর ইউরো বাছাইপর্বে খেলতে এস্তোনিয়ায় যাবে জার্মানি।
জার্মানি ২-২ আর্জেন্টিনা



 

Show all comments
  • Riaj Khan ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
    Germany aigula cara star Player nai. Arai Notun Germany er Notun Prwjommo.
    Total Reply(0) Reply
  • Shohel Ahammed ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:০৩ এএম says : 0
    Vai Germany o tarokabihin chilo......2 team e junior die khelaiche ...
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আর্জেন্টিনা


আরও
আরও পড়ুন