Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৩ কার্তিক ১৪২৬, ১৯ সফর ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

দুদককে তথ্য দিয়েছে বিআইএফইউ

ক্যাসিনো কান্ড

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:২৬ এএম

ক্যাসিনো হোতাদের পাচারকৃত অর্থ সম্পর্কে বাংলাদেশ ব্যাংকের ‘ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিআইএফইউ) সংগৃহিত তথ্য এখন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) হাতে। গতকাল বৃহস্পতিবার সংস্থার আবু হেনা মোহাম্মদ রাজী হাসান দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সঙ্গে সাক্ষাত করে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। তবে এ বিষয়ে গণমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলতে রাজী হননি রাজী হাসান।
দুদক সূত্র জানায়, বিআইএফইউ’র প্রধানের সঙ্গে দুদক চেয়ারম্যানের দীর্ঘ বৈঠক হয়েছে। এ সময় তারা মানিলন্ডারিং সহ অবৈধ ব্যাংকিং নিয়ে আলোচনা হয়। বিএফআইইউ প্রধান চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে মানলিন্ডারিং সংক্রান্ত গোয়েন্দা তথ্য হস্তান্তর করেন দুদক চেয়ারম্যানের কাছে। এছাড়া ব্যাংক ও অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মানিলন্ডারিংয়ের আর্থিক গোয়েন্দা তথ্য সম্পর্কে অবহিত করেন রাজী হাসান। বৈঠকে সরকারি কর্মকর্তাদের মানিলন্ডারিংয়ের একটি তালিকা নিয়ে তথ্য বিনিময় হয়।
এর আগে গত ৭ অক্টোবর ক্যাসিনোর মাধ্যমে অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন এমন ১৫ থেকে ২০ জনের তালিকা নিয়ে দুদক অনুসন্ধান শুরু হয়েছে বলে দুদকের পক্ষ থেকে জানানো হয়। দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ক্যাসিনোর মাধ্যমে অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন-এমন অভিযোগে ১৫ থেকে ২০ জনের তালিকা দুদকের হাতে এসেছে। তাদের অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধান শুরু হয়েছে। যদিও ক্যাসিনো সংশ্লিষ্ট অপরাধের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া দুদকের কাজ নয়। শুধু অবৈধ সম্পদ অর্জনের অংশটুকু দুদকের তফসিলভুক্ত। গত ১ অক্টোবর ক্যাসিনোর মাধ্যমে অঢেল সম্পদের মালিকদের বিরুদ্ধে অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেয় দুদক। দায়িত্ব দেয়া হয় দুদক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনকে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। পরে সারা দেশে র‌্যাব ও পুলিশ অন্তত: ৩৭টি অভিযানে প্রায় ৩শ’ জনকে গ্রেফতার করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ