Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার , ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১ পৌষ ১৪২৬, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

বিপদে পড়লে পুলিশের সাহায্য চাইবে

শিশুদের উদ্দেশ্যে আইজিপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, কমিউনিটি পুলিশিংয়ের মাধ্যমে পুলিশকে জনবান্ধব পুলিশে পরিণত করা হচ্ছে। পুলিশের কাজে জনগণকে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। সমাজের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে নিয়েই পুলিশ কাজ করছে। আমরা জনগণের বন্ধু হতে চাই, জনগণের বন্ধু হিসেবে কাজ করতে চাই। আমাদের লক্ষ্য এ দেশকে সবার জন্য নিরাপদ আশ্রয়স্থল হিসেবে গড়ে তোলা। দেশকে সমৃদ্ধশালী ও উন্নত দেশে পরিণত করা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষে বাংলাদেশ শিশু একাডেমি আয়োজিত একাডেমির মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সপ্তাহব্যাপী ‘ছোটরা বলবে, বড়রা শুনবেন’ শীর্ষক ‘আমার কথা শোনো’ অনুষ্ঠানে ‘পুলিশ আমার বন্ধু’ বিষয়ক আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। বৈচিত্র্যপূর্ণ ও ভিন্নধর্মী এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব কামরুন নাহার। একাডেমির পরিচালক আনজীর লিটন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

শিশুরা প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে শিশু পাচার, ছেলে ধরা আতঙ্ক, পুলিশকে কিভাবে বন্ধু ভাবা যায়, ফুটওভার ব্রিজ, শিশুদের দিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি করানো, শিশু হত্যা, যানজট ইত্যাদি বিষয় আইজিপির কাছে জানতে চায়। আইজিপি ধৈর্য ধরে গভীর মনোযোগের সাথে শিশুদের প্রতিটি প্রশ্ন শোনেন এবং তাদের উপযোগী করে জবাব দেন।
আইজিপি বলেন, পুলিশ সবসময়ই তোমাদের একজন কাছের মানুষ, একজন কাছের বন্ধু। তোমরা পুলিশের সাহায্যের জন্য ৯৯৯ নম্বরেও টেলিফোন করতে পারো। তিনি কখনো কোনো অপরিচিত ব্যক্তির কাছ থেকে খাবার, চকলেট, পানীয় ইত্যাদি গ্রহণ না করার জন্য শিশুদের পরামর্শ দেন। কাউকে সন্দেহ হলে আশেপাশের পুলিশকে জানানোর উপদেশ দেন আইজিপি। অনুষ্ঠানের শুরুতে শিশুরা নাচ ও গান পরিবেশন করে। পরে বাংলাদেশ পুলিশ সাংস্কৃতিক পরিষদের শিল্পীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন