Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

বিএনপি নেতার আত্মহত্যা!

শেরপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০৩ পিএম

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বিএনপি নেতা আমিরুল ইসলাম (৫০) আত্মহত্যা করেছেন । নালিতাবাড়ী উপজেলা বিএনপির নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন তিনি। তিনি গড়কান্দা গ্রামের মকরব আলীর ছেলে।


বুধবার (৯ অক্টোবর) রাতে ঘুমের ওষুধ খেয়ে ও পরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন এ বিএনপি নেতা। রাতেই তার লাশ উদ্ধার করে থানায় প্রেরণ করে পুলিশ।

পরে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছ থেকে বিনা ময়নাতদন্তে লাশ দাফনের অনুমতি নিয়ে গতকাল (বৃহস্পতিবার) দুপুরে উপজেলার গড়কান্দা কবরস্থানে লাশ দাফন করে তার পরিবার।

আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে হতাশায় ভুগছিলেন ওই বিএনপি নেতা, তাই তিনি আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে ধারণা করছেন স্বজনরা।

নালিতাবাড়ী শহর বিএনপির আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন জানান, ‘আমিরুলের মৃত্যুর ঘটনাটি দুঃখজনক। মূলত হতাশা থেকেই তার মৃত্যু হয়েছে।’

পারিবারিক সূত্র জানায়, তিন সন্তানের জনক আমিরুল ইসলাম রাজনীতি করার কারণে কাজকর্মে নিয়মিত ছিলেন না। তাই পরিবার চালাতে পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রি করতে থাকেন। সব সম্পত্তি বিক্রি করতে করতে শেষ হয়ে যাওয়ার পর হতাশায় ভুগতে থাকেন আমিরুল।

আমিরুলের স্ত্রী জ্যোৎস্না বেগম বলেন, ‘রাতে ঘুম হতো না আমার স্বামীর। প্রায়ই ঘুমের ওষুধ খেতেন। বুধবার রাতে আমাকে বকাবকি করে সন্তানসহ ঘর থেকে বের করে দেন। তার মনের অবস্থা ভালো নেই বুঝে আমরা শাশুড়ির ঘরে আশ্রয় নিই। রাত সাড়ে ১১টার দিকে আবার ঘরে ঢোকার জন্য দরজায় ডাকাডাকি করি। কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে ঘরে ঢুকে দেখি গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তার ঝুলন্ত দেহ।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা!

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ