Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

কিশোর গ্যাং সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধান সাজ্জাদসহ আটক ১১

কিশোরগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১১ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:১৭ পিএম

কিশোরগঞ্জে কিশোর গ্যাং সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধান সাজ্জাদসহ (১৭) এর ১১ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্যরা শহরের বত্রিশ বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন তাতিপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করেন।

আটকরা হলেন কিশোর গ্যাং সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধান সাজ্জাদ, গ্যাঙের সদস্য ফজলে রাব্বি বাধন (১৮), মো. আনোয়ারুল ইসলাম (১৮), আব্দুলাহ আল নোমান (১৬), মো. জুয়েল (১৬), মো. ইয়াছিন ইসলাম (১৮), মো. সানি আহাম্মেদ (১৬), ফজলুল করিম আকাশ (১৯), সৌমিত্র বৈষ্ণব (১৬), হৃদয় দত্ত (১৬) এবং মো. আদনান ইসলাম (১৬)।

গ্যাং প্রধান সাজ্জাদ কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়াকান্দা গ্রামের আব্দুল আউয়ালের ছেলে। সদস্য ফজলে রাব্বি বাধন শহরের বত্রিশ এলাকার মো. সুলতানের ছেলে, মো. আনোয়ারুল ইসলাম শহরের বত্রিশ এলাকার মুনসুর আলমের ছেলে, আব্দুলাহ আল নোমান কটিয়াদী উপজেলার গচিহাটার মো. মোজাম্মেল হকের ছেলে, মো. জুয়েল কটিয়াদী উপজেলার করগাঁও গ্রামের মো. আইযুব হাজীর ছেলে, মো. ইয়াছিন ইসলাম শহরের বত্রিশ এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে, মো. সানি আহাম্মেদ শহরের উকিলপাড়া এলাকার মো. বুলবুল আহম্মেদ এর ছেলে, ফজলুল করিম আকাশ শহরের স্টেশন রোড এলাকার ফজলুল মতিন সিদ্দিকির ছেলে, সৌমিত্র বৈষ্ণব শহরের খরমপট্টি এলাকার সমির বৈষ্ণবের ছেলে, হৃদয় দত্ত শহরের বত্রিশ এলাকার রাখাল দত্তের ছেলে এবং মো. আদনান ইসলাম শহরের বত্রিশ এলাকার মোফাজ্জল ইসলামের ছেলে।

র‌্যাব-১৪, সিপিসি-২, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের এএসপি মো. মাহবুব-উল-আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত ৭ অক্টোবর কিশোরগঞ্জ শহরের বত্রিশ এলাকায় নতুন পল্লী সংঘ মন্দিরে হিন্দু ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজার রাত্রিকালীন আরতি চলছিল। এ সময় কিশোর গ্যাং সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধান সাজ্জাদ এবং এই গ্রুপের আটক হওয়া অন্য ১০ সদস্যসহ কিশোর গ্যাং এর কতিপয় সদস্যরা মেয়েদের উত্যক্ত করার মাধ্যমে বিশৃংখলা সৃষ্টি করে। শুভ সরকার (১৬), প্রসেনজিৎ ঘোষ (১৭) এবং তনয় বর্মন বিকাশ (১৭) নামের তিন কিশোর এতে বাধা দিলে তাদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়।

ওই ঘটনার জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধান সাজ্জাদ এবং অন্য সদস্যরা শুভ সরকার, প্রসেনজিৎ ঘোষ ও তনয় বর্মন বিকাশকে দেশি অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আহত করে।

খবর পেয়ে র‌্যাব-১৪, কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের একটি দল আনুমানিক রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযান চালায়। অভিযানকালে সাজ্জাদ গ্রুপের প্রধানসহ এই গ্রুপের মোট ১১ সদস্যকে আটক করা হয়।

আহত শুভ সরকার কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল এবং প্রসেনজিৎ ঘোষ ও তনয় বর্মন বিকাশ ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

থানায় হস্তান্তরের পর আটকদের বিচারিক হাকিম আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বাক্কার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ