Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

শিবালয়ে মা ইলিশ শিকারি ৮ জেলের কারাদণ্ড

আরিচা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:৫৮ পিএম

শিবালয় উপজেলার অন্তর্গত পদ্মা-যমুনায় ইলিশ প্রজনন চলতি মৌসুমে মা’ ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ থাকলেও চরাঞ্চলের মৌসুমি জেলেরা লুকিয়ে এ সময় মাছ ধরা অব্যাহত রেখেছে। শিবালয় উপজেলা প্রশাসন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করছে। যমুনা নদীর আলোকদিয়া চর এলাকার গত শুক্রবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে ৯ জেলেকে আটক করে। এদের মধ্যে ৮ জনকে ১ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ জাকির হোসেনের নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমান আদালত। উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আতিয়ার রহমান জানান, আটককৃত একজন নির্দোষ প্রমাণ হওয়ায় বেকসুর খালাস পায়। দণ্ডপ্রাপ্তরা শিবালয়ের আলোকদিয়া, দৌলতপুর উপজেলা ও পাবনা জেলার বাসিন্দা। উল্লেখ্য, ৯ অক্টোবর শুরু হওয়া মা ইলিশ নিধনের বিরুদ্ধে অভিযানে এ প্রথম আটক ব্যক্তিদের দণ্ড দেয়া হলো।

এদিকে, গতকাল শনিবার পদ্মা-যমুনা তীরবর্তী এলাকায় সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, যমুনা নদীর মাঝামাঝি পাবনা ও মানিকগঞ্জ জেলার সীমান্তবর্তী এলাকায় বেশকিছু জেলেরা মা’ ইলিশ ধরায় ব্যস্ত রয়েছে। এ সময় অভিযান না থাকায় তারা অনায়াসে মাছ ধারছিল। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী স্পীডবোট ভাড়া করে নদী থেকেই মাছ ক্রয় করে দুরবর্তী স্থানে বাজারজাত করার চেষ্টা করছে। এ সময় নদী তীর এলাকায় এবং শিবালয় উপজেলা সদর ও থানা এলাকায় জেলেদের সংবাদদাতারা ঘুরাফেরা করছিল। অভিযান শুরু হলেই তারা মোবাইলে জেলেদের সতর্ক করে দেয় বলে স্থানীয়বাসী জানায়। জেলেরা যেহেতু রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে মাছ শিকার করে সেহেতু রাতে অভিযান পরিচালনা হয়ে থাকে। অভিজ্ঞ মহল লোকবল বাড়িয়ে দিনে ও রাতে অভিযান পরিচালনার অনুরোধ জানিয়েছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কারাদণ্ড


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ