Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার , ২২ নভেম্বর ২০১৯, ০৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

ভারতের তিন ফুটবলারের দিকে চোখ জামাল ভূঁইয়ার!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ অক্টোবর, ২০১৯, ৭:০০ পিএম

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ভারতের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচে মাঠে নামার আগে তিন ভারতীয় ফুটবলার ভাবাচ্ছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়াকে। ভারতের ওই তিন ফুটবলার অধিনায়ক সুনিল ছেত্রি, উইঙ্গার উদান্ত সিং ও গোলরক্ষক গুরপ্রিত সিং সাধুর দিকেই চোখ এখন জামালের। বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে গত বৃহস্পতিবার ঢাকায় এশিয়ান কাপ চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিপক্ষে অসাধারণ ফুটবল খেলেছে বাংলাদেশ। যদিও ম্যাচটিতে তারা হেরেছে ২-০ ব্যবধানে। তারপরও বলা যায়, গেল প্রায় ১৫ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ জাতীয় দল কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচে এতোটা ভালো খেলতে পারেনি। কাতার ম্যাচের আগে সবার ধারণা ছিল হয়তো বেশ বড় ব্যবধানে হারবে বাংলাদেশ। কিন্তু মাঠে দেখা গেল অন্য চিত্র। বরং বেশ বড় ব্যবধানে জেতার কথা ছিল লাল-সবুজদের। ঢাকায় কাতারের বিপক্ষে চোখ জুড়ানো ফুটবল উপহার দিয়ে বর্তমানে কোলকাতায় অবস্থান করছেন জামাল ভূঁইয়ারা। ১৫ অক্টোবর কোলকাতার সল্টলেকের বিবেকানন্দ যুব ভারতী ক্রীড়াঙ্গনে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের তৃতীয় ম্যাচে শক্তিশালী ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। কাতার ম্যাচের অনুপ্রেরণা কাজে লাগিয়ে এবার ভারতের বিপক্ষে নামার অপেক্ষায় রয়েছেন নাবীব নেওয়াজ জীবন, রায়হান হাসানরা। ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে অনেক এগিয়ে ভারত। র‌্যাঙ্কিংয়ে যেখানে ভারত রয়েছে ১০৪তম স্থানে, সেখানে বাংলাদেশের অবস্থান ১৮৭। শুধু র‌্যাঙ্কিংয়ের বিচারেই নয়, যে দলটি সর্বশেষ এশিয়ান কাপের চ্যাম্পিয়ন এবং আগামী বিশ্বকাপের আয়োজক সেই কাতারের বিপক্ষেই গোলশূণ্য ড্র করেছে ভারত। তাই ধারনা করা হচ্ছে মনস্তাাত্ত্বিক দিক থেকে ১৫ অক্টোবরের ম্যাচে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে থাকবে স্বাগতিকরাই। কিন্তু এসব নিয়ে ভাবতে নারাজ বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। তার মতে স্বাগতিক দল হওয়ায় নিজেদের মাঠে ভারতই বেশি চাপে থাকবে। সে সুযোগ কাজে লাগিয়ে জয়ের তাগিদ ও তারুণ্যকেই মূল হাতিয়ার বানিয়ে মাঠে নামার ইচ্ছা জামালের। শনিবার ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে জামাল ভূঁইয়া বলেন, ‘ঘরের মাঠে চাপটা বেশি ভারতেরই। কারণ ম্যাচটা ওদের জিততে হবে। প্রতিবেশী দেশের বিপক্ষে এই ম্যাচটা আমরা হারতে চাই না। ম্যাচে কড়া ট্যাকল, ধাক্কাধাক্কি হবেই। আমাদের দলে অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবলারের সংখ্যা বেশি। ভারতকে হারানোর জন্য ইচ্ছাশক্তি ও তারুণ্যই আমাদের মূল অস্ত্র।’

কাতার ম্যাচ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, ‘কাতারের বিপক্ষে সুযোগ তৈরি করেও কাজে লাগাতে পারিনি আমরা। আমি নিজেই দু’টো সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করেছি। তিনবার গোল লাইন থেকে বল বিপদমুক্ত করেছে কাতার। আমাদের ভাগ্য সহায় ছিল না।’

সাহস ও মানসিকতায় শক্ত অবস্থানে থাকলেও তিন ভারতীয় ফুটবলারের ব্যাপারে নিজেদের সতর্কতার কথা জানান জামাল ভূঁইয়া। তিনি মনে করেন ভারতের অধিনায়ক সুনিল ছেত্রি, উইঙ্গার উদান্ত সিং ও গোলরক্ষক গুরপ্রিত সিং সাধুর বিপক্ষে ভালো করতে পারলেই ম্যাচের ফলাফল অনুকূলে আসতে পারে। এ প্রসঙ্গে জামালের কথা,‘সুনিল আমাদের জন্য বড়সড় একটা বিপদ। পুরো ভারতীয় দলের রিমোট কন্ট্রোলই সুনিলের হাতে, সঙ্গে উদান্তর গতি এবং গোলবারে গুরপ্রিত সিং সাধু! এ তিনজনের জন্যই বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচে ভারত ফেভারিট।’

এদিকে ১১ অক্টোবর কোলকাতায় পৌঁছালেও শনিবার সকালে মাঠের অনুশীলনে নামে বাংলাদেশ দল। কোলকাতা থেকে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট জানায়, দলের সব খেলোয়াড় সুস্থ আছেন। তারা ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে’র তত্বাবধানে ভারতের বিপক্ষে একটি উপভোগ্য ম্যাচ খেলার অপেক্ষায় রয়েছেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

২২ নভেম্বর, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ