Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার , ১৬ নভেম্বর ২০১৯, ০১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

মুখে কাপড় গুঁজে গৃহবধূকে ধর্ষণ

মুন্সীগঞ্জে ছাত্রীসহ শিকার ৬ : আটক ৬

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

মুন্সীগঞ্জ এক বছর ধরে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া চাচাতো বোনকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। বরিশালের গৌরনদীতে মুখে কাপড় গুজে গৃহবধূকে ধর্ষণ করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া সাভারে বেড়াতে এসে দুই কিশোরী ও হবিগঞ্জে চলন্ত এনা বাসে ছাত্রীকে সুপারভাইজারের ধর্ষণের চেষ্টায় মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে, সাভারে অভিযুক্ত প্রেমিকসহ ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখানে বিভিন্ন প্রকার ভয় ভীতি দেখিয়ে অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মো. আবুল বাশার শেখ (২৩) নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আবুল বাশার শেখ উপজেলার শেখরনগর ইউনিয়নে অবস্থিত দক্ষিণহাটী গ্রামের মো. হেলাল উদ্দিন শেখের ছেলে।
ধর্ষণের শিকার ওই শিক্ষার্থীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মুন্সীগঞ্জ সদর হসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সিরাজদিখান থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোঃ ফরিদউদ্দিন জানান, ধর্ষক মো. আবুল বাশার শেখ সম্পর্কে ধর্ষিত ছাত্রীর প্রতিবেশি চাচাতো ভাই। সেই সুবাদে বিবাদী ধর্ষক ওই ছাত্রীর বাড়িতে আসা যাওয়া করতো। পরে ভয় দেখিয়ে গত এক বছর ধরে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে আসছিল মো. আবুল বাশার। সর্বশেষ গত শুক্রবার বিকাল ৪টায় বাড়িতে অন্য কেউ না থাকায় ওই ছাত্রীর বাসায় তখন একা পাইয়া জোড়প‚র্বক ধর্ষণ করতে চাইলে ছাত্রীর চিৎকার করিলে ঘটনাটি কাউকে কিছু না বলার জন্য বিভিন্ন প্রকার হুমুকি দিযে কৌশলে ওই বাড়ি হতে চলে যায়। এর পরে বাড়িতে লোকজন আসলে বিষয়টি ওই ছাত্রীর ভাই, বোন ও তার মাকে জানায়। এরপর গত শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় ছাত্রীর বোন মোসা আমেনা বেগম বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণ মামলা করেন। মামলার আইও এস আই মো. আসাদুজ্জামান তালুকদার জানান, আসামিকে দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়। আদালতে জিজ্ঞাসাবাদে একাধিকবার ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে বাশার শেখ।
বরিশাল : বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বড়দুলালী গ্রামের গৃহবধূ ধর্ষণের ২১দিন পর দ্বীন ইসলাম তালুকদার (২০) নামে যুবককে অভিযুক্ত করে মামলা হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে ওই গৃহবধূ গৌরনদী মডেল থানায় এ মামলা করেন। ঘটনার দিন থেকেই বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী কিছু ব্যক্তি মরিয়া হয়ে মাঠে নামায় মামলা করতে দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্যাতিতা গৃহবধূ।

আসামি দ্বীন ইসলাম ওই গ্রামের আবুল হোসেন তালুকদারের ছেলে। গতকাল দুপুরে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গৃহবধূর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয় বলে নিশ্চিত করেছেন গৌরনদী মডেল থানার ওসি সরোয়ার হোসেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সগীর হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে বাদিনীর স্বামী ঢাকায় একটি প্রতিষ্ঠানের গাড়িচালক হিসেবে চাকরি করে আসছেন। শাশুড়িকে নিয়ে গৃহবধূ গ্রামের বাড়িতে বসবাস করেন। এ সুযোগে প্রতিবেশী দ্বীন ইসলাম ২০ সেপ্টেম্বর রাতে কৌশলে ঘরে ঢুবে ওই গৃহবধূর মুখে কাপড় গুজে দিয়ে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে গৃহবধূর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এলে ধর্ষক পালিয়ে যায়।
হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী এনা পরিবহনের বাসে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ওই বাসের সুপারভাইজার মানিক মােল্লাকে (৪৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। গ্রেফতার মানিক মোল্লা নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার কাবিলপুর গ্রামের নাজির মিয়ার ছেলে এবং এনা পরিবহনের সুপারভাইজার।

মাধবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজমিরুজ্জামান বলেন, হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার কর্চা গ্রামের একটি পরিবার এনা পরিবহনের বাসে (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৭৮৫১) ঢাকায় যাচ্ছিল। পরিবারের সদস্যরা বাসে ওঠার পর শায়েস্তাগঞ্জ অলিপুর পার হলে সুপারভাইজার কৌশলে ওই পরিবারের শিশু ছাত্রীকে গাড়ির পেছনের আসনে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় ছাত্রীর চিৎকারে বাবা-মা ও বাসের অন্য যাত্রীরা এগিয়ে যান। সেই সঙ্গে ছাত্রীকে ধর্ষণের হাত থেকে রক্ষা করেন তারা। ওসি আজমিরুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সুপারভাইজার মানিক মােল্লাকে আসামি করে মাধবপুর থানায় মামলা করেছেন। মানিক মোল্লার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত কবির হোসেনকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের পর কবির হোসেনের মোবাইলে ধারণকৃত ধর্ষণের ভিডিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার সকালে ধর্ষণের শিকার শিশুর বাবা বাদী হয়ে কবির হোসেনের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেছেন। গ্রেফতারকৃত কবির হোসেন চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার উত্তর রামপুরা এলাকার আব্দুল হান্নান ওরফে হান্নু মিয়ার ছেলে।

এর আগে গত শুক্রবার গভীর রাতে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় শিশুর পরিবার ও এলাকাবাসীর সহযোগিতায় শহরের উত্তর চাষাঢ়া থেকে কবিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মোদাচ্ছের হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে। মোবাইলে ধারণকৃত ভিডিও না দেখলে প্রমাণ হতো না শিশুটির সঙ্গে দীর্ঘদিন এমন জঘন্য কাজ করেছে কবির। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
সাভার : ঢাকার সাভারে পৃথক ঘটনায় এক গার্মেন্টস শ্রমিকসহ তিন জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। পুলিশ গ্রেফতর করেছে তিন ধর্ষককে। গত শুক্রবার রাতে পুলিশ পৌর এলাকার ভাগলপুর মহল্লা থেকে মনিরুল ইসলাম আলিফ (২৮), আমিন বাজারের হিজলা গ্রাম থেকে ওয়াসিম (২৫) ও পৌর এলাকার পার্বতীনগর মহল্লা থেকে জসিমকে (৩২) গ্রেফতার করেছে।

আমিন বাজার পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) জামাল হোসেন বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে মানিকগঞ্জ থেকে ১৭বছর বয়সী এক কিশোরী আমিনবাজারের হিজলা গ্রামের ভাড়াটিয়া এক আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে আসে। ওই বাড়ির যুবক ওয়াসিম রাতে তাকে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরদিন শুক্রবার ওই কিশোরী ওয়াসিমকে আসামি করে সাভার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ রাতে হিজলা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে। অপরদিকে, সাভারের পার্বতীনগর এলাকায় ফুফার বাসায় বেড়াতে এসে ১৫ বছরের এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এঘটনায় ওই কিশোরী ধর্ষণকারী ফুফা জসিমকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ রাতে জসিমকে গ্রেফতার করে।

এদিকে ভাগলপুরে বিয়ের প্রভোলন দেখিয়ে ১৯বছরের এক গার্মেন্টস শ্রমিককে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বাসাভাড়া নিয়ে বসবাসের পর গোপনে শুক্রবার বিয়ে করে মনিরুল ইসলাম আলিফ নামের এক যুবক। পরে ওই গামের্ন্টস কর্মী সাভার মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করলে রাতে বাসর ঘর থেকে পুলিশ আলিফকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ এফ এম সায়েদ বলেন, ভিকটিমদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টফ ক্রাইসিস সেন্টারে ও গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।



 

Show all comments
  • Babul Reja ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    ধর্ষকের শাস্তি চাই।
    Total Reply(0) Reply
  • Kabir Humayun ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৫ এএম says : 0
    সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি ও অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে ,তাহলেই মহামারী আকার থেকে এটা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। কোন দেশ ই এটা চিরতরে বন্ধ করতে পারে নাই হয়তোবা সম্ভব ও নয়।
    Total Reply(0) Reply
  • Sabbir Ahamed ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    বিচারহীনতা বন্ধ হলেই এইগুলোও বন্ধ হয়ে যাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • Debesh Chandra Das ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    কঠোর আইন বানিয়ে আর সাথে আইনের সঠিক প্রয়োগ ঘটিয়ে বন্ধ করতে হবে।
    Total Reply(0) Reply
  • কাবাতুল্লাহ ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    দেশে প্রতিদিনই এমন বর্বরতার ঘটনা ঘটছে। আল্লাহ তায়ালা কি আমাদের ‍মুক্তি দেবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Mahmud ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৬ এএম says : 0
    প্রতিটি ধর্ষকের বিচার জনসন্মূখে হওয়া উচিত, কেননা তারা সবসময় আইনের ফাঁকা জায়গা দিয়ে বের হয়ে যায় ।
    Total Reply(0) Reply
  • শফিক রহমান ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    কর্মক্ষেত্রে, পরিবহনে, স্কুল, মাদ্রাসায় এমন কি কোচিং সেন্টারেও নারীর শীলতাহানী করা হচ্ছে। ধর্ষণের পর হত্যাও করা হচ্ছে। এ সকল ঘটনায় অনেক ক্ষেত্রেই পুলিশ অভিযোগ নিতে টালবাহানা করে। অন্যদিকে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা সালিশের নামে অভিযুক্তকে রক্ষা করার চেষ্টা করে।
    Total Reply(0) Reply
  • জাবের ১৩ অক্টোবর, ২০১৯, ১:৩৭ এএম says : 0
    দ্রুত বিচার আইনে ধর্ষণের শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড, পুলিশ কর্তৃক অভিযোগ আমলে নিতে টালবাহানা বন্ধ করা, নারীদের অভিযোগ শোনার জন্য প্রতি থানাায় নারী কর্মকর্তা নিয়োগের দাবি জানাচ্ছি
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
৮ আগস্ট, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ