Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

আইএস বন্দিদের পাহারায় অগ্রাধিকার নয় : এসডিএফ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের অভিযান অব্যাহত থাকলে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বন্দি জঙ্গিদের পাহারার বিষয়টিকে আর অগ্রাধিকার দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে কুর্দি গেরিলারা। সন্দেহভাজন কয়েক হাজার আইএস যোদ্ধা এখনও কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সের (এসডিএফ) হাতে বন্দি বলে জানিয়েছে বিবিসি। শনিবার এসডিএফের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা রেদুর জেলিল টেলিভিশনে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলেছেন, তুরস্কের সঙ্গে লড়াইয়ের কারণে তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা বন্দিশিবিরগুলোতে আইএস জঙ্গিদের আটক রাখার প্রক্রিয়াটি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। “আইএস জঙ্গিদের বন্দি রাখা কারাগারগুলোতে পাহারা দেওয়ার বিষয়টি এখন আর (আমাদের) অগ্রাধিকারের মধ্যে নেই। বন্দিশিবিরগুলোর সুরক্ষা নিয়ে যারা চিন্তিত হবে তারা বিষয়টি সমাধান করার ক্ষেত্রে এগিয়ে এলে স্বাগত জানানো হবে,” বলেছেন তিনি। আইএস বন্দিদের ওপর নজরদারির চেয়ে এসডিএফ এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা শহর ও জনগণের সুরক্ষায় বেশি মনোযোগী বলে জানিয়েছেন রেদুর। তুরস্কের অভিযান সিরিয়ায় আইএসের পুনরুত্থানের পথ করে দিচ্ছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি। “তারা (আইএস) নিজেদেরকে ফের সংগঠিত করছে। কামিশলি ও হাসাকে শহরে তাদের সেলগুলোও সক্রিয় হচ্ছে,” বলেছেন এ এসডিএফ নেতা। ওই শহরদুটিতে আইএস জঙ্গিদের প্রাণঘাতি দুটি গাড়িবোমা হামলার একদিন পর রেদুরের এ মন্তব্য পাওয়া গেল। শুক্রবার তুরস্ক বাহিনীর গোলাবর্ষণের মধ্যে কামিশলির একটি কারাগার থেকে আইএসের পাঁচ সদস্য পালিয়েছে বলে এসডিএফ জানিয়েছে। কামিশলিতে প্রাণঘাতি ওই গাড়িবোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে আইএস। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক এ জঙ্গিগোষ্ঠীটি কুর্দি কারাগারগুলোতে তাদের সদস্যদের আটকে রাখার প্রতিশোধ নিতে শনিবার থেকে সিরিয়ায় নতুন করে কার্যক্রম শুরুরও ঘোষণা দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। এসডিএফ জানিয়েছে, তাদের সাতটি কারাগারে এখনও ১২ হাজারের বেশি সন্দেহভাজন আইএস সদস্য আছে, এর মধ্যে চার হাজারই বিদেশি নাগরিক। সিরিয়ার উত্তরপ‚র্বাঞ্চলের এসডিএফ নিয়ন্ত্রিত অংশে গত সপ্তাহের বুধবার থেকে তুমুল গোলাবর্ষণ শুরু করেছে তুরস্ক। ‘অপারেশন পিস স্থিú্রং’ নামের তাদেই এই অভিযান চলাকালে দুপক্ষের লড়াইয়ে সীমান্তের উভয় পাশে এরই মধ্যে শিশুসহ অর্ধশতাধিক বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছে। কুর্দি গেরিলাদের ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে চিহ্নিত করা আঙ্কারা বলছে, তারা কুর্দিদের সীমান্ত থেকে তাড়িয়ে দিয়ে সিরিয়ার ভেতর ৩০ কিলোমিটার এলাকা পর্যন্ত একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করে সেখানে তুরস্কে থাকা ৩০ লাখেরও বেশি সিরীয় শরণার্থীকে পুনর্বাসন করবে। শনিবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে নিহত নয় বেসামরিকের মধ্যে কুর্দি নারী রাজনীতিবিদ ও নারী অধিকার কর্মী হারভিন খালাফও আছে বলে যুদ্ধপরিস্থিতি পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস (এসওএইচআর) জানিয়েছে। রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ