Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

কোনোভাবেই ইরান দায়ী নয় : পুতিন

জাতিসংঘের কার্যক্রমে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে যুক্তরাষ্ট্র

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

সউদী আরবের দুটি তেল স্থাপনায় হামলার ঘটনায় ইরান কোনো ভাবেই দায়ী নয় বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়ার আরবি ভাষার নিউজ চ্যানেল ‘রুসিয়া আল-ইয়ায়োম’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি। পুতিন বলেন, ‘যে কাজে ইরানের হাত ছিল না সে কাজের জন্য দেশটিকে দায়ী করা যথাযথ হবে না। অন্যায়ভাবে দায় চাপানোর প্রচেষ্টা হিতে বিপরীত ফল বয়ে আনতে পারে।’ সাক্ষাৎকারের এক পর্যায়ে পুতিন বলেন, ‘সউদী আরব বা সংযুক্ত আরব আমিরাতের কেউই ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ চায় না।’ সউদী জোটের চালানো আগ্রাসনের প্রতিশোধ নিতে গত ১৪ সেপ্টেম্বর ইয়েমেনের হুথি আনসারুল্লাহ যোদ্ধাদের সমর্থিত সেনাবাহিনী সৌদি আরবের দু’টি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলা চালায়। সৌদি আরবের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত তেল কোম্পানি আরামকোর বুকাইক ও খুরাইস তেল শোধনাগারে চালানো ওই হামলায় স্থাপনা দু’টির মারাত্মক ক্ষতি হয় এবং দেশটির তেল রফতানি অর্ধেকে নেমে আসে। ইয়েমেন ওই ড্রোন হামলার দায়িত্ব স্বীকার করলেও আমেরিকাসহ বেশ কয়েকটি দেশ ইরানের ওপর দায় চাপাচ্ছে। শুরু থেকেই অভিযোগ কঠোর ভাষায় প্রত্যাখ্যান করছে ইরান। অপর এক খবরে বলা হয়, আমেরিকার কাছে জাতিসংঘের অনেক অর্থ পাওনা থাকার তীব্র সমালোচনা করে রাশিয়া বলেছে, এই বিশ্ব সংস্থার কার্যক্রমে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে ওয়াশিংটন।রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রোববার এক বিবৃতি প্রকাশ করে এ মন্তব্য করেছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমেরিকা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে জাতিসংঘের কাজে বাধা সৃষ্টি করছে। এই বিশ্ব সংস্থার পাওনা টাকা না দেয়ার পাশাপাশি জাতিসংঘ সম্মেলনে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ক‚টনৈতিক প্রতিনিধিদলকে ভিসা না দিয়ে কার্যত নাশকতাম‚লক তৎপরতা চালাচ্ছে ওয়াশিংটন। রাশিয়ার বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শুধু আমেরিকা নয় সেইসঙ্গে বিশ্বের আরো প্রায় ৫০টি দেশ জাতিসংঘের পাওনা অর্থ পরিশোধ করেনি।শুধুমাত্র আমেরিকার কাছে বর্তমানে জাতিসংঘের পাওনা প্রায় ১০০ কোটি ডলার। এদিকে নিউ ইয়র্ক থেকে ক‚টনৈতিক স‚ত্রগুলো জানিয়েছে, অর্থের অভাবে জাতিসংঘ এখন তার ইতিহাসের সবচেয়ে কঠিন দিনগুলো অতিক্রম করছে। জাতিসংঘ সদরদপ্তরের রুম হিটারগুলোর পাশাপাশি স্কেলেটারগুলো এখন বেশিরভাগ সময় বন্ধ থাকছে এবং খরচ কমানোর জন্য ক‚টনৈতিক মিশনগুলোকে দেয়া সেবা কার্যক্রম বিকাল ৫টার মধ্যে বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস স¤প্রতি বলেছেন, তার সংস্থার বর্তমানে ২৩ কোটি ডলার বাজেট ঘাটতি রয়েছে। রুসিয়া আল-ইয়ায়ো, পার্সটুডে।



 

Show all comments
  • Dr. Md. Abdur Rahman ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১:২৮ পিএম says : 0
    UN headquarter should be removed from NY to Moscow.
    Total Reply(0) Reply
  • Nasir Swapon ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:৩৬ এএম says : 0
    Thanks to putin
    Total Reply(0) Reply
  • Nazrul Islam ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:৩৩ এএম says : 0
    শুধু মধ্যএশিয়ার দেশগুলি নয়.. আমরা পৃথিবীর শান্তি মানুষরা বহূজাতিক সংস্থার শিকার... কে কিভাবে বাজার ধরবে তারই ফল.
    Total Reply(0) Reply
  • Jubair Ahmed Mazumder ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:৩৪ এএম says : 0
    তাদের সবার ক্ষমতার লড়াইয়ে প্রতিদিন বলি হচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ।
    Total Reply(0) Reply
  • Kabir Ahmed ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:৩৪ এএম says : 0
    you are 100% right
    Total Reply(0) Reply
  • Fahadi Nadia ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:৩৪ এএম says : 0
    পৃথিবীর সকল অশান্তির মুলে আমেরিকা
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সউদী


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ