Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের যাত্রা শুরু কাল

রংপুর ও লালমনি এক্সপ্রেস পাচ্ছে নতুন কোচ

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০৩ এএম

ঢাকা-কুড়িগ্রাম রেলপথে চালু হচ্ছে নতুন আন্ত:নগর ট্রেন কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস। ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানী করা অত্যাধুনিক নতুন কোচ দিয়ে চলবে ট্রেনটি। আগামীকাল ১৬ অক্টোবর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ট্রেনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সাথে রংপুর ও লালমনি এক্সপ্রেস পাচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার নতুন কোচ। রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন গতকাল ইনকিলাবকে বলেন, ইন্দোনেশিয়া থেকে অত্যাধুনিক দু’শ কোচ আসছে। বর্তমানে ৪৮টি কোচ এসেছে। এই কোচগুলো দিয়ে নতুন ট্রেন কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ও পুরাতন দুটি ট্রেন রংপুর ও লালমনি এক্সপ্রেস চালানো হবে। তিনি বলেন, আরও কোচ আসছে। রেলের পূর্বাঞ্চলের যে সব ট্রেনের কোচ পুরাতন আছে ক্রমান্বয়ে সেই ট্রেনগুলোতে নতুন কোচ লাগানো হবে। পশ্চিমাঞ্চলে এক সাথে তিনটি ট্রেনে নতুন কোচ দেয়া প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রী বলেন, পশ্চিমাঞ্চল বা পূর্বাঞ্চল বলে কথা নয়, ক্রমান্বয়ে দেশের সব ট্রেনেই নতুন কোচ লাগানো হবে। লালমনি ও রংপুর এক্সপ্রেসের কোচগুলো ছিল পুরাতন। এত দীর্ঘ পথের জন্য কোচগুলো চলনসই ছিল না বলেই ট্রেন দুটিতে নতুন কোচ দেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা রেলকে সাশ্রয়ী ও আরামদায়ক করার পাশাপাশি সেবার মান বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছি।
রেলওয়ে সূত্র জানায়, ইন্দোনেশিয়া থেকে অত্যাধুনিক দু’শ কোচ আসছে। এর মধ্যে ৪৮টি মিটার গেজের নতুন কোচ এসে গেছে। নতুন এই কোচগুলো দিয়ে ঢাকা-কুড়িগ্রাম রুটে কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস নামে নতুন ট্রেনটি চালু করা হচ্ছে। ট্রেনটি চালু হওয়ার খবরে দারুণ উচ্ছ¡সিত কুড়িগ্রামসহ উত্তরাঞ্চলের মানুষ। আলাপকালে কয়েকজন বাসিন্দা বলেন, আমাদের এই অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল কুড়িগ্রাম-ঢাকা রুটে সরাসরি একটি ট্রেন। প্রধানমন্ত্রী আমাদের সেই দাবি পূরণ করতে চলেছেন। এজন্য আমরা খুবই খুশি। তবে কয়েকটি স্থানে ট্রেনটি না দাঁড়ানোর কারণে এ নিয়ে অনেকের ক্ষোভও আছে। আবার ট্রেনটি কুড়িগ্রাম থেকে গাইবান্ধা-বোনারপাড়া-বগুড়া হয়ে না চলায় অনেকেই হতাশ। এসব এলাকার যাত্রী ও রেল সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গাইবান্ধা- বোনারপাড়া-বগুড়া রুটে ট্রেনের যাত্রী সংখ্যা অনেক। এ রুটে চলাচলকারী রংপুর ও লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন যাত্রীতে পরিপূর্ণ থাকে। প্রথম ও এসির টিকিট পাওয়া যায় না। নতুন ট্রেনটি এ রুটে চালালে যাত্রীরা যেমন উপকৃত হতো, তেমনি রেলও লাভবান হতে পারতো। অন্যদিকে, ট্রেনটি রংপুর হয়ে পার্বতীপুর হয়ে চলবে। ওই পথে আগে থেকেই ব্রডগেজের একতা, দ্রুতযান, নীলসগার ও পঞ্চগড় এক্সপ্রেস আছে। সেগুলোর ভিড়ে নতুন এ ট্রেনে কুড়িগ্রাম রংপুরের বাইরে যাত্রী খুব একটা হবে না। এতে করে ট্রেনটি লোকসান খাতে পড়ার আশঙ্কাও দেখছেন কেউ কেউ।
বাংলাদেশ রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নতুন ট্রেনটি সপ্তাহে ৬ দিন সকাল ৭টা ২০ মিনিটে কুড়িগ্রাম রেলস্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসবে। আর ঢাকা থেকে কুড়িগ্রামের উদ্দেশে ছাড়বে রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে। বুধবার এটি বন্ধ থাকবে। এ ট্রেনটির বিরতি থাকছে (উভয় পথে) রংপুর-বদরগঞ্জ-পার্বতীপুর-জয়পুরহাট-সান্তাহার-মাধনগর-ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে।
ঢাকা থেকে কুড়িগ্রামে যাওয়ার সময় ট্রেনটিতে আসন সংখ্যা থাকবে মোট ৫৯৬টি। আর কুড়িগ্রাম থেকে ঢাকায় আসার সময় আসন থাকবে মোট ৬২৬ টি। ভাড়া শোভন চেয়ার ৫১০ টাকা, এসি চেয়ার ৯৭২ টাকা, এসি সিট ১১৬৮ টাকা এবং এসি বার্থ ১৭৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
এদিকে, এই ট্রেনটি উদ্বোধনের সাথে সাথে রংপুর ও লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন দুটিতেও ইন্দোনেশিয়ার নতুন অত্যাধুনিক কোচ লাগানো হবে। রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন ট্রেন দুটিতে নতুন কোচ সংযোজনের ঘোষণা আগেই দিয়েছিলেন। এতে করে পুরাতন জরাজীর্ণ কোচ নিয়ে চলাচলকারী এ দুটি ট্রেনও গতি পাবে। যাত্রীরা পাবেন স্বস্তি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রেল


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ