Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার , ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ০৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

অর্ধশতাব্দীর প্রথা ভাঙলো বুকার, রেকর্ড গড়ে পুরস্কার জিতলেন দুই নারী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ অক্টোবর, ২০১৯, ৫:১৫ পিএম

৩০ বছরের প্রথা ভেঙ্গে এবার যৌথভাবে বুকার পুরস্কার জিতেছেন কানাডিয়ান ঔপন্যাসিক মার্গারেট অটউড ও ব্রিটিশ লেখক বার্নারডাইন এভারইসটো। আবার ৫০ বছর পর এই প্রথম কালো নারী হিসেবে বার্নারডাইন এভারইসটোই জিতলেন বুকার। অন্যদিকে সবচেয়ে বয়স্ক বুকারজয়ীর খেতাব পেলেন মার্গারেট অটউড।

টেস্টামেন্টস সিরিজের দ্য হ্যান্ডমেইডেস টেল উপন্যাসের জন্য অটউড এবং গার্ল, ওম্যান, আদার বইটির জন্য বার্নারডাইনকে সম্মানজনক এ পুরস্কার প্রদান করা হয়। পুরস্কারের রীতি রক্ষার্থে বিচারকেরা অনেক চেষ্টা করেছিলেন যে কোনো একজনকে বাছাই করার। তবে উভয় উপন্যাসই অসাধারণ হওয়ায় প্রথা ভেঙ্গে তাদের উভয় লেখককেই বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। পুরস্কারের ৫০ হাজার পাউন্ড (প্রায় ৬৩ হাজার মার্কিন ডলার) অর্থ বিজয়ী দু’জনের মধ্যে ভাগাভাগি করে দেয়া হবে।

১৯৬৯ সালে ম্যান বুকার পুরস্কার প্রদান শুরু হয়। বুকারের ইতিহাসে এটি মাত্র তৃতীয়বার যৌথভাবে পুরস্কার জেতার ঘটনা। ১৯৯৩ সালে নিয়ম করা হয়েছিল, এই পুরস্কার আর কখনোই ভাগাভাগি করে দেওয়া হবে না। তবে সেটা রক্ষা করতে পারেননি বিচারকরা। বুকার প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সাহিত্য বিষয়ক পরিচালক গ্যাবি উড বলেন, বুকারের বিচারকেরা টানা পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা জনপ্রিয় বইগুলো নিয়ে আলাপ-আলোচনা করে বুঝতে পারেন, এর মধ্য থেকে একজন বিজয়ী বের করা অসম্ভব। বুকার পুরস্কারের ওয়েবসাইটের তথ্যমতে, এর আগে মাত্র দু’বার বুকার পুরস্কার ভাগাভাগির ঘটনা ঘটেছে। ১৯৭৪ সালে নাদিন গোরডাইমার ও স্ট্যানলি মিডলটন এবং ১৯৯২ সালে মাইকেল ওন্দাজে ও ব্যারি আন্সওর্থ যৌথভাবে এ পুরস্কার জেতেন।

অন্যদিকে এর আগে সংক্ষিপ্ত তালিকায় কৃষ্ণাঙ্গ লেখকের উপস্থিতি থাকলেও কখনও মূল পুরস্কার পাননি কেউ। সেদিক দিয়ে রেকর্ড গড়েছেন বার্নার্ডাইন। তিনি বলেন, এমন অনেক পুরষ্কারই আছে যেগুলো নির্দিষ্ট কোনও গোষ্ঠীর মানুষ পায় না। এবং এটা সত্যি যে কৃষ্ণাঙ্গরা সাহিত্যে খুব বেশি পুরস্কার পায় না। এটা কেউ খেয়াল না করলেও ব্যাপারটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই লেখিকা বলেন, এর আগে কখনও কৃষ্ণাঙ্গ নারী এই পুরস্কার পায়নি। মাত্র চারজন সংক্ষিপ্ত তালিকায় ঠাই পেয়েছিলেন। কিন্তু কখনও পুরস্কার হাতে উঠেনি। আমি আশা করি পরবর্তীতে আরও কৃষ্ণাঙ্গ নারী এই পুরস্কার পাবেন। অন্যদিকে রেকর্ড করেছেন অটউডও। কানাডিয়ান এই লেখক এর আগে ২০০০ সালে তার ব্লাইন্ড অ্যাসাসিয়ান বইয়ের জন্যও বুকার জিতেছিলেন। দুটি বুকার পাওয়ার তালিকায় তিনি চতুর্থ। এছাড়া সবচেয়ে বয়স্ক বুকারজয়ীর রেকর্ডও গড়েছেন ৭৯ বছর বয়সী মার্গারেট অটউড।

চলতি বছর বুকার পুরস্কারের জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিল ছয়জনের নাম। বুকার পুরস্কারের সাহিত্য পরিচালক বিচারকদের বারবার অনুরোধ করেছিলেন যাতে যেকোনো একজনকে দেওয়া হয় ইংরেজি সাহিত্যের মর্যাদাপূর্ণ এ পুরস্কারটি। তবে বিচারকরা সে নিয়ম রক্ষা করতে পারেননি। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বুকার জয়ী
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ