Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

চাঁদপুরে শহর রক্ষাবাঁধে আবারো ভাঙন

স্টাফ রিপোর্টা, চাঁদপুর থেকে : | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০২ এএম

 চাঁদপুর শহরের পুরান বাজার হরিসভা মন্দির এলাকায় আবারো ভাঙন দেখা দিয়েছে।
গত সোমবার সন্ধ্যায় শহর রক্ষা বাঁধের ৪০ মিটার এলাকার সিসিব্লক দেবে গেছে। অন্তত ৮টি বসতঘর নদীতে বিলিন হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এতে পুনরায় ছড়িয়ে পড়ে নদী ভাঙন আতঙ্ক।

এমন পরিস্থিতিতে হরিসভার আশ-পাশের বেশ কিছু বসতবাড়ি ও দোকানপাট নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান,পুলিশ সুপার মাহাবুবুর রহমান (পিপিএম বার) ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান ঘটনাস্থলে যান।
এলাকা বাসিন্দারা জানান, হঠাৎ করেই মন্দিরের উত্তর-পশ্চিমপাশে নদীপাড়ে শহর রক্ষা বাঁধের বেশকিছু সিসিব্লক তলিয়ে যায়। এ সময় বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি ও দোকানপাট নিরাপদে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকেই জিও ব্যাগ বোঝাই বালুর বস্তা ভাঙন স্থানে ফেলতে দেখা যায়। তাৎক্ষনিক ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে প্রায় ৩ হাজার বালু ভর্তি জিও টেক্সটাইল বস্তা ফালানো শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার পূর্বেই ক্ষতিগ্রস্ত বসতঘরের মালামাল অন্যত্র সরিয়ে রাখা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান বলেন, রাতে হঠাৎ করে ভাঙন শুরু হয়েছে। হরিসভা এলাকার পুরো শহর রক্ষা বাধই হুমকির মুখে। আমরা ভাঙন রোধে তাৎক্ষনিক বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফালানো শুরু করেছি। এখন মজুদকৃত ৩ হাজার বস্তা বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফালানো হবে।

গত দুই মাস আগে হরিসভার এই এলাকায় আরেক দফা মেঘনার ভাঙনের শিকার হয়। তখন প্রায় তিন শত মিটার শহর রক্ষা বাঁধ নদীতে দেবে যায় প্রতিবারই পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন ঠেকাতে কাজ করেছেন। আবারও সেখানে ভাঙন শুরু হওয়ায় হরিসভা, মধ্যশ্রীরামদী ও পশ্চিম শ্রীরামদী এলাকাটি এখন মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভাঙন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ