Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার , ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

বিরলে বখাটের ছুরিকাঘাতে এক নারীর মৃত্যু

বিরল (দিনাজপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০১৯, ৩:৪২ পিএম | আপডেট : ৭:২৩ পিএম, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯

দিনাজপুরের বিরলে কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এক বখাটে যুবকের ছুরিকাঘাতে সাবিনা নামের এক স্বামী পরিত্যক্তা নারীর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে। ছুরিকাঘাতের পর থেকেই ওই বখাটে যুবক পলাতক রয়েছে। লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের নিকট হস্তান্তর করেছে পুলিশ।

নিহত সাবিনার মা শাহিনা বেগম জানান, উপজেলার ৯ নং মঙ্গলপুর ইউপি’র মোস্তফাবাদ (পাঠানপাড়া) গ্রামের মোঃ রাজা’র পুত্র বখাটে বদিউজ্জামান (২৫) পার্শ্ববর্তী সফিকুল ওরফে পচুর স্বামী পরিত্যাক্তা কন্যা সাবিনা বেগম (২২) কে প্রায় সময় কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি হচ্ছিল না সাবিনা। গত ১০ অক্টোবর বৃহষ্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮ টা দিকে বখাটে বদিউজ্জামান কৌশলে সাবিনাকে মোবাইল ফোনে গ্রামীণ ব্যাংক মঙ্গলপুর শাখা কার্যালয় চত্ত¡রে বিশ্রাম নেয়ার বেঞ্চে ডেকে নিয়ে আসে। এসময় দু’জনের কথাবার্তার এক পর্যায় বদিউজ্জমান ইট দিয়ে মারপিট করে এবং সাবিনার পেটে ছুরি মেরে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে বখাটে বদিউজ্জামান। সাবিনা কোনমতে ছুরিকাহত অবস্থায় মঙ্গলপুর বাজারে এসে পৌঁছলে এমন অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন তাঁর পিতাকে সংবাদ দেয়। পরে তাঁকে বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থা শংকাজনক হওয়ায় পরদিন শুক্রবার উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় সাবিনাকে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার রাত সোয়া ১২ টায় সাবিনার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় দিনাজপুর কোতয়ালি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার দুপুরে কোতয়ালি থানা পুলিশ লাশ ময়না তদন্ত শেষে সাবিনার পিতা সফিকুল এর নিকট হস্তান্তর করে এবং বিকালে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করার প্রস্তুতি নেয়া হয়।

এ ব্যাপারে গ্রামীণ ব্যাংক মঙ্গলপুর শাখার ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপক ছামিউল হক জানান, অফিসে পিয়ন/প্রহরী ফিরোজ আছেন। এরকম কোন ঘটনা তিনি জানেন না।

প্রহরী মোঃ ফিরোজ জানান, ঘটনার দিন তিনি অফিসে ছিলেন না, বোচাগঞ্জে বাসায় ছিলেন। এ বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না এবং গতকাল লোকমুখে তিনি বিষয়টি জেনেছেন।

বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ এ টি এম গোলাম রসুল জানান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সেরাজুল ইসলাম আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন। ময়না তদন্ত শেষে এজাহার দাখিলের প্রস্তুতি নিচ্ছে নিহতের পরিবার। এ ব্যাপারে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দিনাজপুর


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ