Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

পাঁচ স্ত্রীর চাহিদা মেটাতে ৫০ নারীর সঙ্গে প্রতারণা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ অক্টোবর, ২০১৯, ৪:৫৩ পিএম

চাকরি দেওয়া হবে বলে একটি প্রতারণা চক্রের সন্ধান করতে গিয়ে বেরিয়ে আসল চাঞ্চল্যকর তথ্য। এক ব্যক্তি পাঁচ স্ত্রীর ভরণ পোষণ মেটাতে প্রতারণা করেন কমপক্ষে ৫০ জন নারীর সঙ্গে। আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, ভারতে মধ্যপ্রদেশে এ ঘটনা ঘটে। রাজ্যের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ) এই প্রতারণা চক্রের সন্ধান পায়।

চাকরির নাম করে অন্তত ৫০ জন নারীকে প্রতারিত করেছে চক্রটি। প্রতারিতদের ভোপালের অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্স (এমস)-এ চান্স পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তারা।

সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশ পুলিশ একটি অভিযোগ পায়, কিছু লোক নার্স হিসেবে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বেশ কয়েকজন নারীকে ঠকিয়েছে। এই অভিযোগ আসার পর বিষয়টি তদন্তের জন্য এসটিএফের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এসটিএফ তদন্তে নেমে এই চক্রের প্রধান দিলশাদ খানকে গ্রেপ্তার করে। দিলশাদের বাড়ি মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরে। দিলশাদ ছাড়াও ভোপাল থেকে অলোক কুমার নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই চক্রের সঙ্গে জড়িত অন্যদেরও খুঁজছে তদন্তকারী দল।

স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের এডিজি অলোক অবস্থি বলেন, ‘এই চক্রটি ৫০ জনের বেশি নারীকে ঠকিয়েছে। প্রতারিতদের সবাইকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় নার্স হিসেবে ভোপাল এমসে চাকরি পাইয়ে দেওয়া হবে।’

তদন্তে জানা গিয়েছে, দিলশাদ খানের পাঁচজন স্ত্রী। জেরার মুখে দিলশাদ জানিয়েছেন, স্ত্রীদের ভরণপোষণের জন্য সে প্রতারণা করতে শুরু করে।

দিলশাদ আরও জানায়, তার এক স্ত্রী জব্বলপুরে একটি ক্লিনিক চালায়। আর এক অভিযুক্ত অলোক কুমারের স্ত্রী একটি সরকারি গার্লস হোস্টেলের সুপারিনটেনডেন্ট।

যদিও তদন্তে জানা গিয়েছে দুই অভিযুক্তের স্ত্রীরা এই প্রতারণা চক্রের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত নন। এরপরেও এই প্রতারণার সঙ্গে তাদের কোনও ভূমিকা ছিল কিনা, তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন এক তদন্তকারী অফিসার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রতারক আটক


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ