Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬, ০৫ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বাবুগঞ্জে স্কুলছাত্র ১৩ দিন ধরে আইসিইউতে

বরিশাল ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৮ অক্টোবর, ২০১৯, ১২:০১ এএম


বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর গ্রামের ইমাম হোসেন ইমন (১৪) নামে নবম শ্রেণির এক স্কুলছাত্র বন্ধুদের সাথে মোটর বাইকে পূজা ম-পে ঘুরতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে ১৩ দিন ধরে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন। বন্ধুরা ওই স্কুলছাত্রকে চলন্ত মোটর বাইক থেকে ফেলে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল বলে অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে ইমনের পিতা নাসির উদ্দিন বেপারী ৪ জনের নাম উল্লেখ করে বাবুগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ সোহেল হাওলাদার নামে এক বন্ধুকে গ্রেফতারের পরে জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

ইমনকে গত ৫ অক্টোরব রাতে পূজা দেখার নাম করে একই গ্রামের আবুল হোসেনের পুত্র নুরুন নবী মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায়। এসময় তার সাথে আরো ৩ সহযোগী ঠাকুর মল্লিক গ্রামের জাহাঙ্গীরের ছেলে হাসান, ইসলামপুর গ্রামের আমির হোসেন হাওলাদারের ছেলে সোহেল, চর হোগলাপাতিয়া গ্রামের ফারুক আকনের ছেলে মুন্না একত্রে বাড়ি থেকে বের হয়।

ইমনের বাবা নাসির উদ্দিন জানান, ওই দিন রাতে বিভিন্ন পূজা ম-পে ঘুরে বেড়ানোর এক পর্যায়ে বন্ধুদের সাথে ইমনের মতপার্থক্য হলে তাকে চলন্ত মোটরবাইক থেকে ফেলে হত্যার চেষ্টা করে নুরুন নবী, সোহেল, হাসান ও মুন্না। এক পর্যায়ে আহত ইমনকে নুরুন নবীর বাড়িতে একটি ঘরে আটকে রেখে হত্যার জন্য দ্বিতীয় দফায় নির্যাতন করা হয়।

পরদিন ৬ অক্টোবর দুপুরে ইমনকে আটক রাখার খবর পেয়ে অচেতন অবস্থায় নবীনদের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ইমনকে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রেরণ করা হয়। গত প্রায় ১৩ দিন হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ইমন এখনও শঙ্কামুক্ত নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
বাবুগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ইমনের বাবার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নিয়েছি। একজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। তদন্ত চলছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন