Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, ০৯ মাঘ ১৪২৭, ০৯ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

বাণিজ্যমেলায় ‘আখেরি অফার’

প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : আগামী কাল পর্দা নামবে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার। এইড শেষ মেলা প্রাঙ্গণে এখন ক্রেতা-দর্শনার্থীদের ঢল। সবাই স্টল থেকে স্টলে ছুটছেন পছন্দের প্রয়োজনীয় দ্রব্য-সামগ্রীর খোঁজে। বসে নেই বিক্রেতারাও। বেশি বিক্রিতে বেশি মুনাফা- এই নীতিতে দিচ্ছেন ‘আখেরি অফার’। ক্রেতারাও লুফে নিচ্ছেন তাদের পণ্য।
গতকাল স্টলগুলো ঘুরে দেখা যায়, নারীদের পছন্দ বিভিন্ন নন স্টিক কুকারিজ, প্রসাধনী, দেশি-বিদেশি জামা-শাড়ি, অ্যালুমিনিয়াম সামগ্রী, সবজি চপার ইত্যাদি। আর পুরুষ ক্রেতারা ছুটছেন কোট, মোদি কোট, শার্ট, ইলেকট্রনিক্স সামগ্রীর পেছনে। এছাড়া সপরিবারে এসে অনেকেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি আর আসবাব ক্রয়ে ব্যস্ত। মেলায় কুকারিজ সাধারণত প্যাকেজেই বিক্রি হচ্ছে। এক্ষেত্রে প্রতি প্যাকেজে ১ থেকে ২ হাজার টাকা পয়ন্তু ছাড় দেওয়া হচ্ছে। আবার ২০ হাজার প্যাকেজ কিনলে অন্য পণ্যের সঙ্গে ৫০ শতাংশ ছাড়ও দিচ্ছে কোনো কোনো প্যাভিলিয়ন। প্রসাধনীতেও ছাড় দেওয়া হচ্ছে ৫০ শতাংশ পযন্তু। এক্ষেত্রে চাইনিজ, ইরানি আর থাইল্যান্ডের পণ্যগুলোর দিকেই ঝুঁকছে সবাই।
কোটের স্টলগুলোতে দেখা গেছে , সারা মাস ধরে যে কোট ২ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে, এখন তা বিক্রি হচ্ছে ১৫শ’ থেকে ১৬শ’ টাকায়। আবার যে মোদি কোট ১৫শ’ থেকে ২ হাজার টাকা ছিলো তা এখন বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার টাকায়। আশিক ফ্যাশনের চলছে এ নিয়ে ‘আখেরি অফার’। এতে কাজও হচ্ছে। ক্রেতার ভিড়ে স্টলে দাঁড়ানোয় দায়।
শার্ট-টি শার্টের দোকানেও চলছে ৪০ শতাংশ পযর্ন্ত ছাড়। হাল ফ্যাশনের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘ইজি’ ছেলেদের আকর্ষণীয় রং আর ডিজাইনের শার্ট ২০ থেকে ৪০ শতাংশ ছাড়ে দিচ্ছে। বিশেষ করে বিদেশি প্যাভিলিয়নগুলো ‘আখেরি অফার’ হাঁকছে বেশি। চায়না প্যাভিলিয়নের বিক্রেতা ইয়ান সুজো বলেন, মেলার সময় শেষের দিকে। তাই আমাদের সব পণ্যই বিক্রি করতে চাই। ইয়ান সুজো বিভিন্ন প্রসাধনীর পসরা সাজিয়েছেন। টানা হেঁকে যাচ্ছেন-ফিফটি পারসেন্ট লেস, ফিফটি পারসেন্ট লেস। তার স্টলেই কথা হলো মিরপুর থেকে আগত গৃহকর্ত্রী সুমনা আক্তারের সঙ্গে। তিনি বলেন, চায়না প্রসাধনী খুব ভালো না। তবে ওরা দাম কমিয়েছে। তাই কিনতে এসেছি। যে কয়দিন যায়, তাতেই পোষাবে। রুপালী ব্যাংক কর্মকর্তা কানন জানালেন, মেলার শেষ দিকে ছাড়ে ভালো জিনিস পাওয়া যাবে তাই এসেছেন।
মেলায় থেকে বিভিন্ন পণ্য কিনে বাড়ি ফিরছিলেন রাজধানীর কলাবাগনের বেসরকারি চাকরিজীবী তাহমিদা বেগম। তিনি বলেন, আর একদিন পরই মেলা শেষ হচ্ছে। তাই আজ ছুটির দিনে পরিবার নিয়ে কেনাকাটা জন্য মেলায় আসা। কিন্তু মেলার আশপাশ আজ প্রচুর লোক সমাগম ছিল। অনেক কষ্টে ভিড় ঠেলে মেলায় প্রবেশ করতে হয়েছে।
ওয়ালটন প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার মোহাম্মদ আকরামুজ্জামান অপু বলেন, এবারের মেলায় অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি আকর্ষণীয় ডিজাইন ও মডেলের সর্বোচ্চ সংখ্যক ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল এবং হোম অ্যাপ্লায়েন্সের পণ্য প্রদর্শন করা হচ্ছে। মেলায় আসা ক্রেতারা যাতে এক জায়গাতেই দরকারি সব ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল হোম অ্যাপ্লায়েন্স পণ্য পান সেজন্যই সর্বোচ্চ সংখ্যক পণ্য নিয়ে এসেছে ওয়ালটন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাণিজ্যমেলায় ‘আখেরি অফার’

৩১ জানুয়ারি, ২০১৬
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ